চোখের নিচে কালি পড়ার কারণ এবং এর প্রতিকার!!!!

কথায় আছে চোখ যে মনের কথা বলে! চোখ মনের কথা না বললেও মুখের সৌন্দর্য অনেকখানি নির্ভর করে চোখের উপর।সৌন্দর্যের বর্ণনায় চোখের সৌন্দর্যই সবার আগে। মানুষের চেহারার সবচেয়ে সুন্দর একটি অঙ্গ চোখ। এটি খুব বেশি স্পর্শকাতর। কিন্তু যদি সেই সুন্দর দুটি চোখের নিচে কালি বা কালো দাগ বা দেখা যায় তাহলে পুরো সৌন্দর্যেই ভাটা পড়ে যায়। আবার উল্টোভাবেও বলা যায়, দুশ্চিন্তার কারণেও কালি পড়ে চোখের নিচে। আপনার ডক্টর জানিয়েছেন চোখের নিচে কালি পড়ার কারণ এবং এর প্রতিকার।চোখের নিচে কালি

চোখের নিচে কালি পড়ার কারণ এবং এর প্রতিকার!!!!

 ঘুম কম হওয়ায় বা দীর্ঘদিন কোনো অসুখে ভোগার কারণে চোখের নিচে কালি পড়লে তার জন্য কোনো চিকিৎসার প্রয়োজন নেই। তা এমনিতেই চলে যাবে।

 চোখের নিচের কালি দূর করার জন্য বিভিন্ন ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে এসব ক্রিম ব্যবহারে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও হতে পারে। ক্রিম ব্যবহারের আগেই তা খেয়াল রাখতে হবে। ক্রিম ব্যবহার বা অন্য কোনো ধরনের চিকিৎসা নিলেই যে চোখের নিচের কালি পুরোপুরি চলে যাবে, তা নয়। তবে তা অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব।

 চোখের নিচের কালি প্রতিরোধে রোদে যাওয়ার সময় ছাতা ব্যবহার করুন।

 সানব্লকও ব্যবহার করতে পারেন।

রূপবিশেষজ্ঞ ফারজানা শাকিলের পরামর্শগুলোও দেখে নিতে পারেন।

 যেকোনো ধরনের মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন।

 প্রচুর পানি ও দুধ পান করুন।

 কুচি করা শসা দিয়ে গোল বল বানিয়ে চোখের ওপর দিয়ে রাখুন। এ অবস্থায় অন্ধকার ঘরে ১০ থেকে ১৫ মিনিট থাকুন।

 একই পদ্ধতিতে শসার পরিবর্তে ব্যবহার করতে পারেন কুচি করা আলু।

 কদম ফুলের পাপড়ি বেটে ৫ থেকে ১০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এতে চোখের নিচের কালো দাগ অনেকটাই দূর হবে। এটি না পেলে পুদিনাপাতা বা নিমপাতাও ব্যবহার করতে পারেন।

 এ ছাড়া কালি দূর করার জন্য চোখের নিচে লাগানোর ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

 প্রতিদিন ঘুমানোর আগে অবশ্যই মুখ পরিষ্কার করবেন।

 কোনো বিউটি পারলারে এসে প্রতি ১০ দিন পর পর আই ট্রিটমেন্ট করাতে পারেন। করাতে পারেন হোয়াইটেনিং ফেসিয়ালও।

 হরমোনজনিত সমস্যা বা অন্য কোনো শারীরিক সমস্যার কারণে চোখের নিচে কালো দাগ হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

 তবে বংশানুক্রমিকভাবে চোখের নিচে কালি হলে, তা দূর করার জন্য তেমন কিছুই করার থাকে না।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *