সহজে ব্ল্যাকহেডস দূর করার ১৩টি ঘরোয়া উপায়

শহুরে জীবনে ব্ল্যাক হেডস নারীর জন্য কমন সমস্যায় পরিণত হয়েছে। ব্ল্যাকহেডস এক ধরনের ব্রন যার ওপর কোন পর্দা থাকেনা। যা বাতাসের সাথে অক্সিডায়েস হয়ে কালো বর্ণ ধারন করে। পরিষ্কার ত্বক সবার স্বপ্ন। কিন্তু ব্ল্যাক হেডসের কারনে যখন পুরো মুখের লাবণ্য হারিয়ে যায় তখন সেই স্বপ্নও কোথায় যেন হারিয়ে যায়। তাই ব্ল্যাকহেডস(Blackheads) দূর করার উপায়গুলো জানা থাকা জরুরী।ব্ল্যাকহেডস

সহজে ব্ল্যাকহেডস দূর করার ১৩টি ঘরোয়া উপায়

ব্ল্যাক হেডস একটি বেয়ারা সমস্যাই বলা চলে। কারণ এটি স্থায়ীভাবে দূর করা কখনও সম্ভব হয় না। নিয়মিত পরিষ্কার করার পরও এই সমস্যা ফিরে আসতে পারে। তাই প্রতিদিন পরিচর্যা করা জরুরি। নাকের উপর আর ঠোঁটের নিচে থুতনির উপরের অংশে ব্ল্যাক হেডসের সমস্যায় কম বেশি সবাইকেই ভুগতে হয়। সাধারণত মুখের এবং নাকের উপর ব্ল্যাকহেডস হলেও অনেকের ক্ষেত্রে কানে এমনকি শরীরের বিভিন্নস্থানে ব্ল্যাক হেডসের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ব্ল্যাক হেডস কেন হয়?
যেকোনো বয়সে ধুলোবালুর কারণে ব্ল্যাক হেডস হতে পারে। কৈশোর ও প্রৌঢ় বয়সে ব্ল্যাক হেডসের সমস্যা বেশি দেখা যায়। মূলত মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার না করলে ব্ল্যাক হেডস হয়। অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারের কারণে ব্ল্যাক হেডস হতে পারে। ধুলোবালু ও ত্বকের মৃত কোষ জমে রোমকূপ বন্ধ হয়ে এ সমস্যা হয়। প্রথমে অনেকেই এই হালকা কালো ছোপ ছোপ দাগকে গুরুত্ব দেয় না। শুরুর দিকে ব্ল্যাক হেডসের ছিদ্র কম থাকে। সময়মতো যত্ন না নিলে এই দাগ সারা মুখে ছড়িয়ে যায়। সারা মুখে ছড়িয়ে পড়লে যতই তুলে ফেলা হোক না কেন, আবার দ্রুত সারা মুখে ছড়িয়ে যায়। কোনো রকম প্রসাধনী ব্যবহার করা ছাড়াই হাতের কাছের ঘরোয়া উপকরণ দ্বারা এই সমস্যা দূর করা যায়।

পড়ুন  ব্ল্যাকহেড দূর করার ঘরোয়া উপায়

ব্ল্যাক হেডস মুক্ত থাকতে যা করবেনঃ
⇒ প্রতিদিন অন্তত দুই বার মুখ পরিষ্কার করতে হবে। এতে ত্বকের(Skin) ময়লা দূর হয়, যে তেল পরিষ্কার লোমকূপের মুখ বন্ধ করে আছে, তা সরে যায়।
⇒ অতিরিক্ত মেক আপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে।আর ব্যবহার করলেও তা ভালো ভাবে পরিষ্কার করতে হবে।তা না হলে লোমকূপ বন্ধ হয়ে ব্ল্যাক হেডস হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।
⇒ শরীর আর মুখের জন্য আলাদা তোয়ালে ব্যবহার করতে হবে।
⇒ তৈলাক্ত খাবার পরিহার করতে হবে।

সহজে ব্ল্যাকহেডস দূর করার ১৩ টি ঘরোয়া উপায়

১। স্টিম
হালকা একটু স্টিম দিয়ে নিলে ব্ল্যাক হেডস তুলতে সহজ হয়। বাড়িতে স্টিম মেশিন না থাকলে কোনো বড় বাটিতে বা মগে গরম পানি নিয়ে মাথার চারপাশে তোয়ালে দিয়ে ঢেকে গরম ভাপ নিতে পারেন। এতে লোমকূপ খুলে যাবে।

২। গোলাপ জল
১০০ গ্রাম গোলাপ জলে ১চা চামচ কর্পূর মিশিয়ে রেখে দিন। দিনে ২/৩ বার তুলোয় এ গোলাপ জলের মিশ্রণ দিয়ে পরিষ্কার করুন দেখবেন ব্ল্যাক ও হোয়াইট হ্যাডসথেকে মুক্তি পেয়ে গেছেন।

৩। ধনেপাতা ও হলুদ
ধনেপাতার রস ও হলুদ গুঁড়ো(Yellow powder) মিশিয়ে প্রতিদিন রাতে লাগান। সকালে মুখ ধুয়ে ময়শ্চারাইজার মাখুন। এক সপ্তাহেই ব্ল্যাক হেডস অনেকটা কমবে।

Loading...

৪। দারচিনির গুঁড়া ও লেবুর রস
সমপরিমাণ দারচিনির গুঁড়া এবং লেবুর রসের পেস্ট সারা রাত লাগিয়ে রেখে সকালে ধুয়ে নিতে পারেন। ব্ল্যাকহেডস দূর হবে।

পড়ুন  ডিমের মাস্ক দিয়ে চিরতরে ব্ল্যাকহেডস দূর করার সহজ উপায়

৫। দই, ডিম, মধু ও সামান্য পরিমাণ হলুদ
দই, ডিম, মধু ও সামান্য পরিমাণ হলুদ এক সঙ্গে মিশিয়ে নাকের উপর লাগিয়ে রাখুন ও মিনিট দশেক পর ধুয়ে ফেলুন। এর ফলে সব সময় নাকের উপর ও দু’পাশ পরিষ্কার থাকবে। সহজে কোনো ছোপ বা ব্ল্যাক হেডস হবে না।

৬। মধু, লেবু, গাজর ও বেসন
নাকের ত্বক মসৃণ করতে ১ চামচ মধু, ১০-১২ ফোঁটা লেবুর রস, ২ চামচ গাজরের রস ও ১ চামচ বেসন এক সঙ্গে মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে লাগিয়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

৭। তরমুজের রস ও লেবুর রস
তরমুজের রস আর লেবুর রস(Lemon juice) ত্বক কে ঠান্ডা করার পাশাপাশি ত্বক কে নরম করে। অন্যদিকে লেবু প্রাকৃতিক পরিষ্কারক।অতিরিক্ত তৈলাক্ত ত্বকে প্রতিদিন সকালে এটা লাগান।কারন তৈলাক্ত ত্বকে ব্ল্যাকহেডস হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

৮। টুথপেস্ট
টুথব্রাশে কিছু টুথপেস্ট আর পানি নিয়ে ব্ল্যাকহেডস আক্রান্ত জায়গায় হালকা ভাবে ব্রাশ করতে হবে।খেয়াল রাখতে হবে চোখে যেন না লাগে।

৯। দারুচিনির গুঁড়া ও ময়দা
আধা চামচ দারুচিনির গুঁড়া এবং ১ চামচ ময়দা মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। এরপর স্বাভাবিক পানি দিয়ে আস্তে আস্তে ধুয়ে ফেলতে হবে। দারুচিনির জন্য মুখ জ্বলতে পারে কিন্তু তাতে ভয়ের কিছু নেই। কিছুক্ষণ পর ঠিক হয়ে যাবে।

১০। ডিম
ডিমের সাদা অংশ নাকে লাগিয়ে টিস্যু পেপার দিয়ে মুড়ে দেবেন। শুকিয়ে গেলে মাক্সের মতো করে তুলে ফেলবেন। দেখবেন টিস্যু পেপারে ব্ল্যাকহেডস জমা হয়ে আছে।

১১। লেবুর ও মধু
লেবুর সঙ্গে মধু মিশিয়ে ত্বকে ঘষে নিতে হবে। এবার আধা ঘণ্টা পর মুখ ধুয়ে নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে লেবু ব্ল্যাক হেডস দূর করবে আর মধু ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করবে।

পড়ুন  রূপচর্চায় নিমপাতা এর ব্যবহার

১২। বেকিং সোডা
মুখে ময়লা জমেও ব্ল্যাক হেডস হতে পারে। বেকিং সোডা ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার করে ব্ল্যাক হেডস দূর করতে সাহায্য করে। দুই টেবিল-চামচ বেকিং সোডা(Baking soda) পানিতে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। ত্বকের যেখানে ব্ল্যাক হেডসের সমস্যা আছে সেখানে এই পেস্ট লাগিয়ে হালকা হাতে মাসাজ করতে হবে। কিছুটা শুকিয়ে আসলে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে দু্ই থেকে তিনদিন এটি ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যাবে।

১৩। দারুচিনি
ব্ল্যাক হেডস দূর করে এবং পুনরায় হওয়ার সম্ভাবনা কমায় দারুচিনি। মধুর সঙ্গে ১ চা-চামচ দারুচিনির গুঁড়া(Cinnamon powder) মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করতে হবে। রাতে ঘুমানোর আগে এই পেস্ট আক্রান্ত স্থানে লাগিয়ে ঘুমাতে হবে। সকালে পরিষ্কার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। টানা ১০ দিন ব্যবহারেই ভালো ফল পাওয়া যাবে। তাছাড়া এক চিমটি হলুদের সঙ্গে দারুচিনির গুঁড়া লেবুর রসের সঙ্গে মিশিয়ে ত্বক পরিষ্কার করা যেতে পারে।

ত্বকে ব্ল্যাক হেডস নিয়ে সমস্যায় পড়েন অনেকেই। ব্ল্যাক হেডস এক ধরনের ব্রন যার ওপর কোন পর্দা থাকেনা। যা বাতাসের সাথে অক্সিডায়েস হয়ে কালো বর্ণ ধারন করে। নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার করলে ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব। এছাড়াও উপরের ব্ল্যাকহেডস দূর করার উপায় গুলো আপনাকে ব্ল্যাকহেডস মুক্ত সৌন্দর্য উপহার দিতে পারে।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.