ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার ডায়েট চার্ট

আজকের দিনে ডায়াবেটিসে আক্রান্তের সংখ্যা নেহাতই কম নয়। শুরু থেকেই এ ব্যাধি সম্পর্কে সচেতন না হলে পরবর্তীতে নানা জটিলতায় পড়তে হয়। ডায়াবেটিস নির্দিষ্ট মাত্রার বাইরে গেলে তা শরীরের ভয়াবহ ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই এ রোগে আক্রান্ত হলে নিয়ন্ত্রণই তখন সর্বোত্তম পস্থা। এজন্য প্রয়োজন কঠোর নিয়মানুবর্তিতা। স্থুলতাই ডায়াবেটিসের মূল কারণ। গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের মেদ বেশি তারা সহজেই ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হন। কাজেই ডায়াবেটিস থেকে বাঁচতে স্থুলতা কমানোর বিকল্প নেই। এর পাশাপাশি কিছু খাবার রয়েছে; যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে। কাজেই সুস্থ থাকতে ডায়াবেটিস রোগীদের প্রতিদিনের ডায়েটে এসব খাবার রাখা উচিত।ডায়াবেটিস

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখার ডায়েট চার্ট

ডায়াবেটিস রোগীরা প্রতিদিন খাবেন যেসব খাবার-

Loading...

ফলমূল
ডায়াবেটিস রোগীদের প্রতিদিনের ডায়েটে সতেজ ফলমূল বিশেষ করে আপেল, নাশপাতি, জাম, পেঁপে প্রভৃতি খাবার রাখা উচিত। এগুলোতে কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন, মিনারেল এবং তন্তু রয়েছে, যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখে।

অনমনীয় সবজি
বিভিন্ন ধরনের অনমনীয় সবজি যেমন-মটরশুঁটি, টমেটো, মরিচ, পেঁয়াজ, রসুন প্রভৃতি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খাওয়া অনেক ভালো। কেননা এসব সবজিতে কম চর্বি এবং উচ্চমাত্রার ফাইবার রয়েছে। কাজই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে এই খাবারটিও প্রতিদিনের ডায়েটে রাখুন।

শস্য
ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত সাদা রুটি খাওয়া এড়িয়ে চলুন। এর পরিবর্তে বাদামী চাল, ভুট্টা, গম, বার্লি প্রভৃতি শস্যদানা খান। প্রতিনিয়ত এসব খাবার রোগটি নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

সবুজ শাকসবজি
প্রতিদিনের ডায়েট চার্টে বিভিন্ন ধরনের সবুজ শাকসবজি বিশেষ করে ব্রোকলি, লেটুস পাতা, পাতাকপি প্রভৃতি রাখুন। নিয়মিত এসব খাবার খেলে ডায়াবেটিস থাকবে আপনার নিয়ন্ত্রণে।

ওটস
ওটসের তৈরি যে কোন ধরনের খাবারই ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ভালো। কাজেই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে প্রতিদিনের ডায়েটে এ খাবারটিও রাখুন।

ডায়াবেটিস-কে ভয় নয় জয় করতে হয়

বাদাম
প্রতিদিন আখরোট, কাজুবাদাম প্রভৃতি খাওয়ার চেষ্টা করুন। এই খাবারগুলো ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

পানীয়
ডায়াবেটিস রোগীরা চিনি ছাড়াই চা কিংবা কফি খাওয়ার চেষ্টা করুন। চাইলে এর সঙ্গে কম চর্বির দুধও মেশাতে পারেন। তবে সোডা একেবারেই এড়িয়ে চলবেন।

চর্বি
উদ্ভিজ্জ তেল, কম চর্বিযুক্ত মেয়নেজ এবং নন হাইড্রোজেনেটেড মাখন ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ভালো। তাই রোগটি নিয়ন্ত্রণে এসব খাবারও খেতে পারেন।

ডেইরি পণ্য
সবারই প্রতিদিন দুগ্ধজাত বিভিন্ন খাবার খাওয়া প্রয়োজন। কেননা এসব খাবাারে প্রয়োজনীয় প্রোটিন, মিনারেল এবং ক্যালসিয়াম রয়েছে। তবে ডায়াবেটিস রোগীদেরে এক্ষেত্রে কম চর্বিযুক্ত ডেইরি পণ্য খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

মাংস
ডায়াবেটিস রোগীদের লাল মাংসের পরিবর্তে কম চর্বিযুক্ত মাংস খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ভাজাপোড়া খাবার এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। মাছ এবং ডিম খেতে বলা হলেও তা বেশি করে না ভাজার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য দিনে তিন বেলা খাবার এবং দুইবার স্ন্যাকস খাওয়া জরুরি। এভাবে প্রতিদিন মিশ্রিত খাবার শরীরের গ্লাইসেমিক সূচককে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। তবে মনে রাখবেন, সকালের নাস্তা ভুলেও ছেড়ে দেবেন না। এক্ষেত্রে ওটস হতে পারে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সেরা সকালের নাস্তা।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

পড়ুন  জিরা ভেজানো পানির উপকারিতা

About Deb Mondal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.