বৈশাখী সাজে নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলুন

পহেলা বৈশাখ দরজায় কড়া নাড়ছে । বৈশাখী উৎসব বাঙালির প্রাণের উৎসব। জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সব বাঙালিরা বৈশাখী উৎসব পালন করে থাকে। এইদিনে সবাই নিজেকে বাঙালি সাজে সাজাতে পছন্দ করে। এই দিনটাকে ঘিরে মেয়েদের থাকে আলাদা উৎসাহ।বৈশাখের সাথে সাথে আসে প্রচণ্ড গরম। তাই সাজের ব্যাপারে একটু যত্নশীল হতে হয় মেয়েদের। কারণ সারাদিন বাহিরে ঘুরাঘুরি আনন্দদায়ক হওয়া চাই। অতিরিক্ত গরমের কারণে সাজ নিয়ে একটু টেনশনে পড়ে যান মেয়েরা। নিচের টিপসগুলো জেনে টেনশনমুক্ত হয়ে যান এখনই।বৈশাখী

বৈশাখী সাজে নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলুন

বৈশাখী পোশাকঃ

বৈশাখে সুতি শাড়ি বেছে নেওয়া ভালো। আগে সাদা-লাল পাড়ের শাড়ি পরা হতো, কিন্তু এখন নানা রঙের শাড়ি পরা হয় বৈশাখে। একরঙা সুতি শাড়িতে চিকন পাড় ভালো লাগে। যেহেতু গরম তাই হাফহাতা ব্লাউজ পরতে পারেন। শাড়ির সাথে মিল রেখে বাটিকের ব্লাউজ পরতে পারেন। তবে শাড়ি বাঙালী স্টাইলে পরলেই ভালো লাগবে।

এইদিনে অনেকেই সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া পরতে পছন্দ করে। উৎসবটি যেহেতু একেবারেই দেশীয় সংস্কৃতির তাই মেয়েদের জন্য শাড়ি, আর ছেলেদের জন্য পাঞ্জাবীটাই বেশি মানানসই।

পড়ুন  বৈশাখী রূপচর্চা ও বৈশাখী সাজ

বৈশাখী মেকআপঃ

নিজেকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে মেকআপ করাটা জরুরী। যেহেতু খুব গরম থাকবে তাই সেটা হাল্কা বেইজের ওপর হওয়া উচিত। যেহেতু দীর্ঘ সময় বাইরে থাকতে হবে তাই খুব বেশি মেকআপ না নেয়াই ভালো।

মেকআপ করার আগে মুখে বরফ টুকরা ঘষে নিন এতে মেকআপ ত্বকের ভেতরে যাবেনা আর ঘাম কম হবে। হাল্কা ফেস পাউডার ব্যবহার করুন। চোখ গাড় করে সাজান আর গাড় লিপস্টিক ব্যবহার করুন। সাজ খুব সাধারণ হবে কিন্ত খুব আকর্ষণীয় দেখাবে।

বৈশাখী গয়নাঃ

Loading...

গয়না ছাড়া শাড়ি একেবারে বেমানান। বৈশাখে আপনি শাড়ির সাথে মাটির গয়না বেছে নিতে পারেন। মাটির মালা হতে হবে লম্বা। আবার কাঠ, রূপা, মুক্তা বা তামার মালাও পরতে পারেন। ভারি গয়না পরতে না চাইলে ফুলের মালা বেছে নিন।

বৈশাখী চুরিঃ

বাঙালি নারীর হাত ভর্তি চুরি তো থাকতেই হবে! গয়না না পরলেও দুহাত ভর্তি চুরি সাজ পূর্ণ করে দেয়। শাড়ির পাড়ের সঙ্গে মিলিয়ে রেশমি চুরি পরতে পারেন। মাটির বা কাঠের চুরিও কিন্তু বেশ মানিয়ে যায়।পোশাকের রঙের প্রাধান্য যেটাই থাকুক না কেন, হাতে থাকা চাই রেশমি চুরি।

পড়ুন  বৈশাখী সাজ

বৈশাখী চুলের সাজঃ

এই দিনটিতে চুল কেমন করে বাঁধবেন তা নিয়ে যেনো চিন্তার শেষ নেই ! অনেকে চুল খোলা রাখতে পছন্দ করে, অনেকে গরমে খোলা চুলে অস্বস্তি অনুভব করে। যারা গরমে চুল খোলা রাখতে অস্বস্তি অনুভব করেন তারা চুল বেণী বা খোঁপা করে রাখতে পারেন।

যারা খোঁপা করবেন তারা খোঁপাতে একটা ফুল আটকিয়ে নিতে পারেন। যারা চুল খোলা রাখবেন তারা চুল এক পাশে নিয়ে অন্য পাশে একটা ফুল দিয়ে রাখতে পারেন। যাদের চুল ছোট তারা সুন্দর করে আঁচড়ে ক্লিপ লাগিয়ে রাখতে পারেন। ইচ্ছে করলে ফুলের মুকুটও পরে নিতে পারেন।

বৈশাখী টিপঃ

বৈশাখে লাল টিপের জুড়ি নাই। শাড়ির সাথে খুব বেশি মানিয়ে যায় এই লাল টিপ। ইচ্ছে করলে শাড়ির রঙের সঙ্গে মিলিয়ে টিপ পরতে পারেন।

বৈশাখী ব্যাগ ও জুতা ও অন্যান্যঃ

শাড়ির সঙ্গে ম্যাচিং করে ব্যাগ নির্বাচন করতে পারেন । তবে কালো আর লাল রঙের ব্যাগ মানিয়ে যায় সব রঙের শাড়ির সঙ্গে। মাঝারি সাইজের ব্যাগ ব্যবহার করুন আর প্রয়োজনীয় সব জিনিসপত্র গুছিয়ে নিন । ব্যাগ বেশি ভারী না করাই ভালো।

পড়ুন  কেমন হবে আপনার বৈশাখী সাজ

জুতা অনেকেই হিল পড়তে পারে না। যারা হিল পড়তে পারেন না তারা স্লিপারই পরে বের হোন। যাদের হিলে সমস্যা নেই তারা হিল পড়তে পারেন । শাড়ির সাথে হিলটা মানানসই।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.