নিতম্ব দেখে জানা যাবে মানুষের ভবিষ্যৎনা জােনলে জেনে নিন

কোনও মানুষের নিতম্বের দিকে তাকিয়ে, নিতম্ব ধরে, এমনকী নিতম্বের ছবি দেখেও সেই মানুষের ভবিষ্যৎ বলে দেওয়া সম্ভব! কিন্তু কীভাবে?

নিতম্ব

শাকিরার সেই গানটা মনে আছে ‘হিপস ডোন্ট লাই’? অর্থাৎ নিতম্ব মিথ্যে বলে না। কিন্তু নিতম্ব কি পারে আপনার ভবিষ্যৎ সম্পর্কেও সত্যি কথাটি বলে দিতে? কলম্বিযার মেরি আরাঞ্জোকে যদি এই প্রশ্ন করেন তাহলে এর উত্তরে তিনি বলবেন, হ্যাঁ, পারে। মধ্যবয়সী এই মহিলার দাবি, তিনি কোনও মানুষের নিতম্বের দিকে তাকিয়ে, নিতম্ব ধরে, এমনকী নিতম্বের ছবি দেখেও সেই মানুষের ভবিষ্যৎ বলে দিতে পারেন। তিনি দাবি করেছেন, ছবিতে শাকিরার নিতম্বের দিকে এক ঝলক তাকিয়েই তিনি নাকি ভবিষ্যতবাণী করেছিলেন, একদিন শাকিরা এক ফুটবলারের সন্তানের জননী হবেন। পরবর্তীকালে শাকিরা সত্যিই স্পেনের ফুটবলার জেরার্ড পিকের বাচ্চার মা হন।

অবশ্য নিতম্ব দেখে ভবিষ্যৎ আঁচ করার এই অদ্ভুত পদ্ধতি একা আরাঞ্জোই অনুসরণ করেন, তা নয়। এই চর্চার পোশাকি নাম হল রাম্পোলজি, যেখানে একজন মানুষের নিতম্বের গড়ন, সেখানে তিলের বা আঁচিলের অবস্থান, নিতম্বের খাঁজের গঠনের বিশেষত্বের ওপর নির্ভর করে মানুষের ভবিষ্যতবাণী করা হয়। আমেরিকার র‌‌াম্পোলজিস্ট জ্যাকি স্ট্যালোন বলেন, এটি অত্যন্ত প্রাচীন চর্চা। ব্যাবিলন, গ্রিস বা রোমে আদিকালেও নিতম্ব দেখে ভবিষ্যতবাণী করা হত। তিনি জানান, কোনও মানুষের নিতম্ব যদি পেশিবহুল হয় তাহলে বুঝতে হবে সে কর্মঠ, আত্মবিশ্বাসী এবং সৃজনশীল। ব্রিটেনের র‌াম্পোলজিস্ট স্যাম অ্যামোস মনে করেন, মানুষের গোলাকৃতি নিতম্ব তার হাসিখুশি ও আশাবাদী স্বভাবের প্রতীক। আবার চ্যাপ্টা নিতম্ব থেকে বোঝা যায়, মানুষটি নৈরাশ্যবাদী ও দুঃখী।

এঁরা কেউ নিতম্বের দিকে তাকিয়ে, কেউ বা নিতম্বের ছবি দেখে ভবিষ্যতবাণী করে থাকেন। র‌াম্পোলজিস্ট উলফ বাক আবার কারোর নগ্ন নিতম্ব হাত দিয়ে স্পর্শ না করলে তার ভবিষ্যৎ গণনা করতে পারেন না।

র‌াম্পোলজিস্টরা নিজেদের যতই অতীন্দ্রিয় ক্ষমতার অধিকারী বলে দাবি করুন না কেন, দেশে দেশে তাঁদের নিয়ে সমালোচনাও কম হয়নি। ফ্লোরিডার অতীন্দ্রিয়বাদী শেরি সিলভার যেমন র‌্যাম্পোলজিকে সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন একটি বিষয় বলে মনে করেন। এইভাবে মানুষের ভবিষ‌্যৎ জানা যায় না বলেই তাঁর দাবি।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *