পড়ার টেবিল গুছিয়ে রাখার উপায়

কথায় আছে ‘লেখাপড়া করে যে গাড়ি ঘোড়ায় চড়ে সে’ আমাদের তাই বসতেই হয় পড়ার টেবিলে। গাড়ি- ঘোড়ায় চড়া ছাড়া যে জীবনই চলে না! নিজের ক্যারিয়ারের ভবিষ্যত নির্ধারিত হয় এই পড়ার টেবিল থেকেই। যে যত পড়ার টেবিলে সময় দিয়েছেন জীবনে তত সে সফলতার স্বাদ পেয়েছেন। তাই লেখাপড়ার বিকল্প কিছু নেই পৃথিবীতে।

পড়ার টেবিল.PNG

পড়ার টেবিল গুছিয়ে রাখার উপায়

আপনি ভালোবাসুন আর নাই বাসুন পড়ালেখা আপনাকে করে যেতেই হবে। নিজেকে ভাল পর্যায়ে আবিস্কার করার জন্য পড়ালেখাটা করা জরুরি। তাই জরুরি এই কাজটির প্রতি আগ্রহ বাড়িয়ে নিতে প্রয়োজন একটি পরিপাটি পড়ার টেবিল। তাই যথা সম্ভব গুছিয়ে রাখতে হবে পড়ার টেবিল টি। যেন দেখলেই মনে চায় একটু বসে পড়ে নেই।

সাধারণত দেখা যায় পড়া শেষ করেই আমরা বই-পত্র, খাতা-কলম ছড়িয়ে রাখি। যা একেবারেই বেমানান লাগে পড়ার টেবিলের জন্য। এতে করে অনেক সময় পড়ার টেবিলে বসার প্রতি আগ্রহ কমিয়ে দেয়। পড়া শেষে জিনিসপত্র টেবিলের নির্দিষ্ট জায়গায় গুছিয়ে রাখাটা অতি প্রয়োজন। তাহলে অটুট থাকবে পড়ার টেবিলের সৌন্দর্য এবং পড়ালেখা নির্ভর যে কোন জিনিস খুঁজে পাওয়া সহজ হবে। এতে পড়ার টেবিল টিও দেখতেও দারুণ লাগবে।

শুধু পড়ার টেবিল গুছিয়ে রাখলেই হবে না।পড়ার টেবিল এবং চেয়ারটাও যেন নিজের উপযোগী হয় সেদিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। লেখালেখির জন্য যে কলমগুলো ব্যবহার করা হয় সেগুলো প্রয়োজন শেষে নির্দিষ্ট কলম দানিতে গুছিয়ে রেখে দিতে হবে।

টেবিল সুন্দর দেখাতে পড়ার টেবিলের সাথে থাকা দেয়ালে কিংবা টেবিলের উপর একটা টেবিল ক্যালেন্ডার রাখা যেতে পারে। এতে প্রয়োজনে তারিখ দেখার পাশাপাশি টেবিলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে।

কম আলোতে কখনোই পড়াশোনা করা উচিত নয়। এতে চোখের বারোটা বাজার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই পড়ার টেবিলে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে ঘরের যেখানে আলোর উৎস তার কাছাকাছি টেবিলটা রাখলে বেশি কাজ দেবে। এ ছাড়াও টেবিল ল্যাম্প লাইটের ব্যবস্থা রাখতে পারেন।

টেবিলের আশপাশে বিখ্যাত মনিষীদের পছন্দের উক্তিগুলো লিখে রাখলে নিজের ভিতর আলাদা উৎসাহ তৈরি হয়। তাই টেবিলের সুন্দর্য রক্ষার পাশাপাশি এটি জীবনকে এগিয়ে নিতে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করবে।

সবচেয়ে বেশি ভাল হয় ঘরের জানালার কাছে টেবিল রাখার স্থান নির্বাচন করলে। এতে অধিক সময় পড়ার টেবিলে সময় ব্যয় করলেও মাথা চেপে ধরার ভাবটা জাগবে না।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *