মৌসুমি ফল দিয়ে ফ্রুট ফেসিয়াল

বর্তমান আবহাওয়ায় আমাদের সকলেরই ত্বকের বেহাল অবস্থা। ত্বকের এই দুর্দশা রক্ষা করতে চাই ফ্রুট ফেসিয়াল। আজকাল আমরা সকলেই নানান ধরনের ফেসিয়াল করে থাকি। তবে সকল ধরণের ত্বকের জন্য ফ্রুট ফেসিয়াল অত্যন্ত উপযোগী।গরমের এই মৌসুম হচ্ছে ফলের মৌসুম। মৌসুমী এ সকল ফল(Fruit) দিয়েই আপনি ঘরে বসে করতে পারেন ফ্রুট ফেসিয়াল।

ফল

মৌসুমি ফল দিয়ে ফ্রুট ফেসিয়াল

যা যা লাগবেঃ
১। ক্লিনজিং মিল্ক
২। ম্যাসাজ ক্রিম
৩। ফেস ওয়াশ
৪। স্ক্রাব ফেস ওয়াশ
৫। পেষ্ট করা  Fruit (কলা, তরমুজ, পাকা আম -ইত্যাদি)
৬। কুসুম গরম পানি

যেভাবে করবেনঃ
প্রথমে মুখে অল্প করে ক্লিজিং মিল্ক নিয়ে ম্যাসাজ করুন এরপর ফেস ওয়াস দিয়ে মুখ ম্যাসাজ করে মুখ ধুয়ে নিন। এবার মুখে স্ক্রাব দিয়ে ম্যাসাজ করুন। কুসুম গরম পানিতে একটি তোয়ালে ভিজিয়ে ঐ তোয়ালে দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। এবার পেষ্ট করে রাখা ফল(Fruit) এর প্যাকটি সম্পূর্ণ ত্বকে প্যাক হিসেবে মাখুন। প্যাকটি শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এখন পুনরায় আবার ভিজা তোয়ালে দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন।এবার কোনো লোশান বা ক্রিম মেখে ফেসিয়াল সমাপ্ত করুন।

ঘরে বসে খুব সহজেই এভাবে আপনি আপনার ত্বকে ফল(Fruit) ফেসিয়াল করতে পারেন। যা আপনার ত্বককে এই গরমে রাখবে সুন্দর ও প্রাণবন্ত।তবে আর দেরি কেন,আজেই করে ফেলুন।

 

কমলা

এই ফল(Fruit) এ রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। যা শরীরের দূষিতপদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। শরীরের ভেতর থেকে ত্বক পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যজ্জ্ব্যোল করে।তাছাড়া কমলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে বেটা-ক্যারোটিন। যা ত্বকের কোষ গঠন করতে সহায়তা করে। আর বয়সের ছাপ দূর করতে পারে।

অন্যদিকে কমলার খোসাও রূপচর্চায় দীর্ঘদিন ধরেই ব্যবহৃত হচ্ছে। যা ব্যবহারে ত্বক টানটান হয়। তাছাড়া ব্রণ এবং লালচেভাব দূর করতে পারে কমলার খোসা।

আঙুর

রক্ত পরিষ্কারক হিসেবে সুপরিচিত এই ফল(Fruit)। রক্তের দূষিত পদার্থ দূর করে ভিতর থেকে ত্বক সুন্দর করে তোলে আঙুর। ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে যাওয়ার সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে এই ফল(Fruit)।

আঙুরের বীজে আছে পলিফেনল নামের একটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান যা ত্বকের বিভিন্ন ধরনের ক্ষতি পূরণ করে ত্বকে বয়সের প্রভাব কমিয়ে আনে।

আঙুরের রস বলিরেখা হালকা করতে সাহায্য করে।

বেদানা

ত্বকের সৌন্দর্য রক্ষায় দারুণ উপকারি বেদানা। এই ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। তাই নিয়মিত এই Fruit খেলে ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখা যায় দীর্ঘদিন।

বেদানা বীজের নির্যাস ত্বকের ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমায়, এমনটা জানা গেছে এক গবেষণায়। তাছাড়া ব্রণের সমস্যা কমাতেও উপকারী এই ফল(Fruit)।

 

 

লেবু

ত্বকের উপর জমে থাকা মৃতকোষ দূর করতে সাহায্য করে এ্রর এনজাইম এবং অ্যাসিডের উপাদান। তাছাড়া ত্বকের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক করে উজ্জ্বলতা ধরে রাখে লেবু।

বিশুদ্ধ লেবুর রস কনুই ও হাঁটুর কালচে দাগ দূর করে। এক টুকরা লেবু কেটে কালচে ত্বকের উপর ঘষলে উপকার পাওয়া যায়। তাছাড়া নিয়মিত লেবুর রস ত্বকে মাখলেও রং উজ্জ্বল হয়।

 

 

আপেল

আঁশে পূর্ণ একটি ফল(Fruit)। প্রতিদিন আপেল খেলে ত্বকে বলিরেখা পড়ার সম্ভাবনা কমে। ত্বক পরিষ্কারক হিসেবেও কাজ করে এই ফল(Fruit)। ব্রণ দূর করা এবং ত্বকে হোয়াইট হেডস এবং ব্ল্যাক হেডস হওয়ার সম্ভাবনাও কমিয়ে আনে আপেল।

দুধ ও মধুর সঙ্গে আপেলের রস মিশিয়ে ত্বকে লাগালে ত্বক নরম ও উজ্জ্বল হয়।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About Angel Nipa

রূপচর্চা বিষয়ে আমি আপনার ডক্টর.কম সাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।আমার রূপচর্চা বিষয়ক পোষ্টগুলো পাবেন এই পেজে https://business.facebook.com/Girls.Doctor.Tips

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *