যে ভুল গুলোর কারণে গোসলের আগে ও পরে মাথার চুল পড়ে থাকে

যে ভুল গুলোর কারণে গোসলের আগে ও পরে মাথার চুল পড়ে থাকে
যে ভুল গুলোর কারণে গোসলের আগে ও পরে মাথার চুল পড়ে থাকে

চুল নিয়ে মানুষের ভাবনার এবং চিকিৎসার কমতি খুব কম আছে।তবুও সঠিক সমাধান পাচ্ছেন বলে মনে হয় না।চুলের জন্য পর্যাপ্ত যত্ন, দামী শ্যাম্পুর ব্যবহার, পার্লারে  ট্রিটমেন্ট, সকল নিয়ম মেনে চলার পরও সছিক ফলাফল পাচ্ছেন না। চুল সম্পর্কে কিছু ভুল ধারণা যার কারণে গোসল করার আগে ও পরে  শাথার চুল পড়ে।অনেকে মনে করেন short hair মানে চুল কম পড়া , তবে এমনটি সব সময় না ও হতে পারে।চুল পড়া রোধ করা এবং চুলের সঠিক বিন্যাসের মাধ্যমে  hair style কে যথাযথ করার কিছু অসাধারণ টিপস শেয়ার করঠছি আপনাদের সাথে।চলুন শুরু করা যাক।

১। সবচাইতে বোর যে ভুলটি করি আমরা, সেটি হচ্ছে রোজ চুল ধোয়া। হ্যাঁ, রোজ গোসল করা খুবই জরুরী, কিন্তু রোজ চুল ধোয়া বা চুলে পানি লাগানো জরুরী নয়। আপনি দৈনিক কতটা সময় বাইরে থাকেন সেটার ওপরে নির্ভর করে চুল ধোবেন। চুল নোংরা না হলে রোজ চুলে পানি লাগানোর কোন প্রয়োজন নেই। বিশেষ করে যাদের বেশী লম্বা ও ঘন চুল, তাঁরা তো মোটেও এটা করবেন না। এমন চুল শুকাতে সময় লাগে, অনেকটা সময় গোঁড়া ভেজা থাকার ফলে চুল দুর্বল হয়ে যায়।

২। দিনে ২/৩ বার গোসলের অভ্যাস থাকলেও ২/৩ বারই চুল ভেজাবেন না। এর চাইতে খারাপ অভ্যাস আর কিছুই হতে পারে না।

৩। রোজ চুলে শ্যাম্পু করবেন না, সেটা যত ভালো ও দামী শ্যাম্পুই হোক না কেন।

৪। প্রত্যেকবার শ্যাম্পু করার সময় কন্ডিশনার ব্যবহার করা আরেকটি বড় ভুল। আমরা প্রায় সকলেই মনে করি যে কন্ডিশনার লাগালে চুল ভালো থাকে। এটি আসলে খুবই ভুল একটি ধারণা। কন্ডিশনার লাগালে চুল ভালো থাকে না, বরং সাময়িক একটা নরম ও উজ্জ্বলতা আসে কন্ডিশনারে উপস্থিত রাসায়নিকের কারণে যা মোটেও ভালো নয়। বরং নিয়মিত কন্ডিশনার ব্যবহার করলে চুল পড়ার হার বেড়ে যায় অনেক বেশী।

৫। গোসলের পর পরই ভেজা চুল আঁচড়াতে বসে যাওয়া আরেকটি বড় চুল। গোসলের পর চুল থাকে নরম ও ভঙ্গুর। এমন সময়ে আঁচড়ালে চুল ভেঙে ও ঝরে যাওয়ার হার বেড়ে যায় অনেক।

৬। গোসলে যাওয়ার আগে বা শ্যাম্পু করার আগে মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন। এতে চুলে জট পড়বে না, চুল ভাঙবে না ও ছিঁড়বে না।

৭। তোয়ালে দিয়ে ঘষে ঘষে চুল মোছার অভ্যাস বাদ দিন। এই বাজে অভ্যাসের কারণে চুলের আগা ফেটে যায় ও প্রচুর চুল ঝরে।

৮। গোসলের পর অনেকটা সময় মাথায় তোয়ালে পেঁচিয়ে রাখবেন না। এতে চুলের ওপরে চাপ পড়ে, চুল ভেঙে যায়, যত দ্রুত সম্ভব চুল শুকিয়ে ফেলুন।

৯। চুল দ্রুত শুকাবার জন্য হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করা বা রোদে বসে চুল শুকানো আরেকটি ভুল অভ্যাস। অতিরিক্ত উত্তাপে চুলের মারাত্মক ক্ষতি হয়। ফ্যানের বাতাসের নিচে চুল শুকানোই উত্তম।

১০। অনেকেই আছে দুপুরে বা রাতে গোসলের পর চুল পুরোপুরি না শুকিয়েই ঘুমিয়ে পড়েন, এই কাজটি মোটেও করবেন না। এতে চুলের গোঁড়া দুর্বল হয়ে যায়।

অপনাদের সুস্থ্য ও সুন্দর জীবনের প্রত্যাশা নিযে প্রতিদিন সাস্থ্য বিষয়ক নানা টিপস উপহার দিয়ে আসছে অাপনার ডক্টর।তাই আপনার জীনের সুস্থ্যতার যেকোন তথ্য পেতে আপনার ডক্টর সাইটটির সাথে থাকুন।
সূত্র:সময়ের কণ্ঠস্বর

আপনার স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন সমস্যার জন্য এখানে কমেন্ট করে জানান।তাছাড়া অপনারা কোন ধরণের পোষ্ট চান তাও জানাতে ভুলবেন না।ধন্যবাদ

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *