ঈদে হাত রাঙান মেহেদি দিয়ে 

সামনে ঈদ। আর ঈদ মানেই যেন আনন্দ উত্সব।মেহেদির রং যেনো এই উত্সবে আনে এক ভিন্ন মাত্রা।হাতে মেহেদি লাগানোর মধ্য দিয়েই যেন ঈদের খুশির আমেজ শুরু হয়।চাঁদ রাতে হাতে মেহেদি লাগানোর প্রচলন অনেক আগে থেকেই রয়েছে।আধুনিকতার জোয়ারে এই উত্সব কিন্তু হারিয়ে যায়নি।আজওকিশরী, শিশু, গৃহিণী, নববধূরা চাঁদ রাতে হাতে মেহেদি লাগানোর উত্সবে মেতে উঠে।

মেহেদি

বাজারে এখন বিভিন্ন ধরনের টিউব ও কোণ মেহেদি পাওয়া যায়— সাধারণ মেহেদি, কালো মেহেদি ও নখের জন্য আলাদা মেহেদি।যদি বাসায় দেয়ার ইচ্ছা থাকে, তবে ঈদের ২ – ৩ দিন আগে মেহেদি এনে ফ্রিজে রেখে দেয়াটাই বুদ্ধি মানের কাজ হবে।

মেহেদি

এখন পুরোন মেহেদি না লাগিয়ে আঙুলের পাশ দিয়ে মেহেদির নকশা করাই হালের ফ্যাশন।আর নখে পোশাকের রঙের সঙ্গে মিল রেখে নেলপোলিশ দিলে আরও ভালো মানাবে।তাছাড়া হাতের গড়ন বুঝে মেহেদি লাগানো উচিত।
লম্বা লতার ডিজাইনের পাশাপাশি চলছে হাতের তালুতে গোল ডিজাইন।
নববধূরালাগাতেপারেনহাতভরেমেহেদি, যাঈদের দিন বিয়ের আমেজটাকেই আরও রাঙিয়ে রাখবে।
ছোটদের হাতে মেহেদির নকশায় সহজ-সরল মোটিফ ব্যবহার করাই ভালো।কোনো একটা থিম বেছে নিয়ে সেই থিমে হাত জুড়ে মেহেদি দিলে দেখতে ভালো লাগবে।
মেহেদি

পড়ুন  দ্রুত হাত নরম, কোমল ও সুন্দর করার উপায়

মেহেদির যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন:

Loading...

মেহেদি কেনার আগে মেয়দোত্তীর্ণের তারিখ দেখে নেবেন।
টিউব মেহেদির দাম ৩৫-৭০ টাকা আর কোন মেহেদির দাম পড়বে ৫০-১০০ টাকার মধ্যে—সেটা যে ধরনের কোণই কেনেন না কেন।আর পার্লারে ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে ডিজাইনের ওপর দাম বাড়বে।
আর যারা বিউটি পার্লারে দিতে চান, তারাও আগের দিনই দিয়ে দেবেন।
যদি ভালো পাকিস্তানি মেহেদি চান তার জন্য আলমাস বা প্রিয়শপ সবচেয়ে ভালো হবে।এছাড়া গাউছিয়া বা অন্যান্য মার্কেটেও পাকিস্তানি মেহেদি পেয়ে যাবেন।

চলুন জেনে নেই মেহেদি পরার আগে কী করবেন আর পরা হয়ে গেলে কী করবেন:

হাতের সব কাজ শেষ করে একেবারে ফ্রি হয়ে তার পর মেহেদি লাগাতে বসুন।
হাতটাকে ভালো করে পরিষ্কার করে নিন।
ভেজা হাতে মেহেদি লাগাবেন না, শুকনো হাতে মেহেদি লাগাবেন।
হাতে লোশন বা আয়েলি কিছু লাগাবেন না, এতে মেহেদির রং ভালো বসবে না।
মেহেদি

পায়ে মেহেদি লাগানোর ক্ষেত্রে পা পরিষ্কার করে ভালোভাবে মুছে তারপর লাগান।
মেহেদি লাগানোর পর পানি কম লাগানোর চেষ্টা করুন এতে রং বেশ কিছুদিন স্থায়ী হবে।
মেহেদি লাগানোর ক্ষেত্রে যে বিষয়টি মাথায় রাখবেন তা হচ্ছে অনেকেরই কেনা এসব টিউব মেহেদিতে অ্যালার্জি আছে, মেহেদি প্রয়োগে হাত লাল হয়ে উঠতে পারে, চুলকাতে পারে বা ফুলে যেতে পারে।এক্ষেত্রে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। মেহেদি লাগানো থেকে সেক্ষেত্রে বিরত থাকতে পারেন বা ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।
শিশুদের হাতে মেহেদি দেওয়ার আগে বাড়তি সতর্কতা নিতে হবে।

পড়ুন  দ্রুত হাত নরম, কোমল ও সুন্দর করার উপায়
Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.