পুরুষদের পেশিতে নয়, আবেগেই মুগ্ধ হয় নারীরা

পুরুষদের পেশিতে নয়, আবেগেই মুগ্ধ হয় নারীরা

সুঠাম ও পেশিবহুল পুরুষদের প্রেমে নারীরা পাগল থাকেন, এ কথা সবাই জানেন। কিন্তু এক গবেষণায় পুরুষের পেশি পরাজিত হয়েছে তাদের আবেগপ্রসূত ভালোবাসার কাছে। আধুনিক নারীরা দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্ক স্থাপনে এমন পুরুষদের ই পছন্দ করেন যাদের ভালোবাসায় আবেগ জড়িয়ে রয়েছে। মেয়েরা তার সঙ্গীকে গতানুগতিক প্রেমিক হিসাবেই দেখতে চান। এখানে জেনে নিন এর ৫টি কারণ।

পুরুষদের

১. সমবেদনা :

রক্ষণশীল পুরুষ বলতে যাদের বোঝায় তারা তাদের যাবতীয় কাজের দায়ভার নেন। নিজের কাজের দোষ ঘাড়ে নিয়ে তারা আরো সামনে এগিয়ে যেতে চান। এই আবেগতাড়িত পুরুষটির যথেষ্ট সমবেদনাও রয়েছে। এ ধরনের পুরুষ জানেন কীভাবে সম্পর্কের নানা পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হয়।

২. যোগাযোগ :

সঙ্গিনীর সঙ্গে আন্তরিক যোগাযোগের বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিরেট সম্পর্কের জন্য এটি অন্যতম প্রধান শর্ত। নারী-পুরুষ কেউই জ্যোতিষি নন যে একে অপরের মনের কথা নিমিষেই বুঝে ফেলবেন। বিশেষ করে নারীরা অভিমান নিয়ে মুখে কুলুপ আঁটলে এ ধরনের পুরুষরা জানেন কীভাবে কী করতে হয়। নারীরাও চান, সঙ্গী তার সঙ্গে এই উপায়েই যোগাযোগের বন্ধন সৃষ্টি করুক।

৩. সহযোগিতা :

আবেগ-অনুভূতিসম্পন্ন পুরুষরা সঙ্গিনীর প্রতি সব সময় সহযোগিতাপূর্ণ হন। আর তাদেরই খোঁজেন নারীরা। শুধু সম্পর্কের টানাপড়েন নয়, তারা বাড়ির নানা কাজেও হাত বাড়ার। এই স্বভাবটি পুরুষরা পুরোপুরি আয়ত্ব করতে না পারলেও ধীরে ধীরে এতে অভ্যস্ত হচ্ছেন।

৪. বিবেচনাবোধ :

কোন নারী এমন পুরুষকে চান না? এই পুরুষরা সঙ্গিনীকে শুধু ভালো বোঝেন তাই নয়, তাদের বিবেচনাবোধ মুগ্ধ করে নারীদের। সঙ্গিনীর নানা প্রয়োজন বা সমস্যার সময় একজন বিবেচনাবোধসম্পন্ন পুরুষই হয়ে ওঠেন নারীর সত্যিকার ভালোবাসার মানুষ।

৫. বোঝাপড়া :

সম্পর্কে সমঝদার হতে হয়। সঙ্গিনীর সঙ্গে বোঝাপড়া করা পুরুষের বড় একটি গুণ। পুরুষের অহমিকা পছন্দ করেন না নারীরা। যেকোনো বিষয়ে ইগো কাজ করলে তা সমস্যাই তৈরি করে। তাই পুরুষদের হতে হয় উদার ও খোলামেলা। আর এ জন্য প্রয়োজন আবেগসম্পন্ন পুরুষ। তাই যে পুরুষের আবেগ রয়েছে তিনি বোঝাপড়া করতে পারেন।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *