যোগ ব্যায়াম কতটুকু শারীরিক এবং কতটুকু মানসিক ব্যায়াম?

যোগ ব্যায়ামের (Yoga) অন্য বৈশিষ্ট্য হল এটি মাংসপেশি বৃদ্ধি না করে বরং সমস্ত শরীরের উপর কাজ করে। ফলে রক্ত সঞ্চালন, কোষ ও কলায় পুষ্টি, শ্বাসতন্ত্র, শরীরের বর্জ্য নিস্কাশন, পরিপাকতন্ত্র প্রভৃতির প্রভূত উন্নতি ঘটে। নিয়মিত যোগ ব্যায়াম অভ্যাসে মাংসপেশি ভাল থাকে। মেরুদণ্ড ও গ্রন্থিসমূহ কোমল, শক্ত এবং নমনীয় হয় কারণ সামনে-পেছনে এবং উভয় পাশে শরীরকে নড়াচড়া করা হয়। যোগ ব্যায়াম গ্রন্থি আর অন্যান্য যন্ত্রকে যেরকম পুষ্ট ও সবল করতে পারে সেরকম অন্য কোনো ব্যায়াম পারে না। স্নায়ুমন্ডলী আমাদের গোটা দেহযন্ত্রকে চালনা করে। এই স্নায়ুমন্ডলীর কেন্দ্রস্থল আমাদের মস্তিস্ক থেকে বিভিন্ন স্নায়ুর মাধ্যমে যে আদেশ প্রেরিত হয় সেই আদেশ অনুসারেই আমাদের শরীরের পেশি ও বিভিন্ন অঙ্গ-প্রতঙ্গ চালিত হয়। এখনও পর্যন্ত এমন কোনো ব্যায়াম আবিস্কৃত হয়নি যা মস্তিস্কের ভিতরে প্রচুর রক্ত প্রবাহিত করে মস্তিস্ককে বেশি সবল ও বেশি কর্মক্ষম করতে পারে।

যোগ ব্যায়াম

যোগ ব্যায়াম

আমাদের শরীরের ভেতর এমন সব যন্ত্র ও অন্ত্র আছে যার কর্মক্ষমতা কমে গেলে শরীরে বড় রকমের গোলযোগ দেখা দিতে পারে, কখনও কখনও প্রাণ সংশয়ও হতে পারে। সেই যন্ত্রগুলোর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণগুলো হল হৃদপিণ্ড, ফুসফুস, যকৃৎ, কিডনি বা বৃক্ক, পাকস্থলী ইত্যাদি। আমাদের শরীরের প্রধান অন্ত্র দু’টো-বৃহদান্ত্র ও ক্ষুদ্রান্ত্র।

যোগ ব্যায়ামের মাধ্যমে কীভাবে চুল বৃদ্ধি করবেন? জেনে নিন

শুধু যোগাসনের সাহায্যেই এসব যন্ত্র আর অন্ত্রকে সুস্থ ও সক্রিয় রাখা যেতে পারে, আর কোনো ব্যায়ামে নয়।
যোগাসন ছাড়া আর কোনো ব্যায়ামে শরীরের বিভিন্ন অস্থিসন্ধি স্থানের কর্মক্ষমতা অক্ষুন্ন রাখা যায় না। যোগ ব্যায়াম সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে এবং অনেকগুলো ডিজেনারেটিভ রোগ নিরাময়ে খুবই কার্যকর। এই বিজ্ঞানভিত্তিক শাস্ত্র সারাবিশ্বে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ইউরোপ ও আমেরিকার বহু শহরে যোগ ব্যায়াম শিক্ষাকেন্দ্র গড়ে উঠেছে। যোগ ব্যায়ামের সাহায্যে রোগ নিরাময় করা যায় তা প্রমাণিত হয়েছে বলেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বীমা কোম্পানিগুলো এ পদ্ধতিতে চিকিৎসার খরচ বহন করছে। বর্তমানে সেদেশের মহাকাশচারীদের জন্য যোগ ব্যায়াম অনুশীলন করা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ক্রিকেট খেলায় মনঃসংযোগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেজন্য অনেক ক্রিকেট খেলোয়াড় মনঃসংযোগ বৃদ্ধির জন্য যোগ ব্যায়াম করেন। এর সাহায্যে উচ্চ রক্তচাপ, অজীর্ণ, অম্ল, বাত, পিঠেব্যথা, কোমরে ব্যথা, হাঁটু ব্যথা, অর্শ, প্লীহা বৃদ্ধি, অ্যাজমা, স্নায়ু সমস্যা, প্রভৃতি রোগ নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *