স্বামী কে বশে আনার উপায় (শুধু মাত্র আপুদের জন্য। ভাইয়া দের প্রবেশ নিষেধ)

আপনার স্বামী কি অবাধ্য? কথা শুনে না? চিন্তা নেই! আপনার জন্যই আমার এই পোস্ট। বিফলে মুল্য ফেরত।
৬ বছরের বিবাহিত জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে লেখা!!!!!

স্বামী

স্বামী কে বশে আনার উপায়

স্বামীকে বশে আনার ১০টি অব্যর্থ টিপস!!!!!
১) স্বামী সময় দেয় না?
সমাধানঃ তার সামনে পেপারে, আসে পাশে শুনা স্ত্রীদের পরকীয়ার কাহিনী বলতে থাকুন:P, আর বলুন যে মহিলারা আসলে বাধ্য হয়েই পরকীয়ায় জড়ায়। কোন ঘটনা না পেলে বানিয়ে বানিয়ে বলুন। দেখবেন সময় সমস্যা সমাধান হয়ে গেছে
২)সিগারেট খায়?
সমাধানঃ আপনিও জর্দা দিয়ে পান খাওয়া শুরু করুন। খেতে না পারলে খয়ের ও পাতা চিবিয়ে ঠোট লাল করে পান খাওয়ার ভান করুন। তার বন্ধু পত্নীদের সামনে বেশী খাবেন। ব্যস কাজ হয়ে যাবে। সে শান্তি চুক্তি করতে বাধ্য হবে

৩)বাসায় থাকলে শুধু টিভি দেখে?
সমাধানঃ টিভি দেখলে চোখ নষ্ট হয়ে যায় তাড়াতাড়ি, গামা রে বের হয় ইত্যাদি খবর গুলো জোগাড় করে নাকি কান্না শুরু করে দিন এই বলে যে, আপনি তার ক্ষতি সহ্য করতে পারবেন না । ভালবাসা দেখানো হবে আবার উদ্দেশ্যও পূরণ!! তাতে যদি কাজ না হয় তাহলে লাইন ম্যান কে কিছু পয়সা দিয়ে ডিশ কানেকশন খারাপ করিয়ে নিন। যেন ছবি আসলেও কথা না আসে।

৪)বন্ধুদের মাঝে মাঝেই দাওয়াত দিয়ে রান্নার আয়োজন করে?
সমাধানঃ মেহমানদের বিদায় শেষে ও মা গো, মরে গেলাম গো, হাত ব্যাথা, পা ব্যাথা, পিঠ ব্যাথা বলে চিল্লান। অর্ধেক রাত জাগিয়ে রাখুন। ও পরের সাত দিন রান্না করার অযোগ্য তা প্রমান করুন। ইনশাল্লাহ আপনার স্বামীর শিক্ষা হয়ে যাবে।

৫)ঘুরতে যায় না আপনাকে নিয়ে?
সমাধানঃ আপনি ঘুরতে যান আর ফিরে এসে বলতে থাকুন রাস্তার সমস্ত সুপুরুষ ছেলে গুলা আপনার দিকে তাকিয়ে ছিল  । কয়েকজন কথা বলতে চেষ্টা করেছে। কয়েকজন পিছে পিছে এসেছে ব্লা ব্লা ব্লা। দেখবেন এরপর আপনার সাথে সব জায়গায় ঘুরছে  ।

৬)ঘরের কাজে সাহায্য করে না?
সমাধানঃ এই ক্ষেত্রে প্রেমিকা হয়ে যেতে হবে। প্রেম মার্কা ডায়লগ দিন, যেমন- তুমি যখন মশারি টানাও তখন আমার মনে হয় আমাকে ভালবাসার জালে আবৃত করছ! প্লিজ তুমি প্রতিদিন মশারি টানাবে। এভাবে বা এর চেয়েও সুন্দর করে বলতে হবে। ইনশাল্লাহ ঘড়ের কাজে তাকে নিয়মিত পাবেন।

৭)আপনি কোন ভুল করে ফেলেছেন?
সমাধানঃ ব্যাপার না, কাঁদো কাঁদো সুরে বলতে থাকুন যে, আমি ছোট আর তুমি বড়  । ছোট মানুষ না বুঝে একটা ভুল করেছি এমন করছ কেন?
ব্যস, দেখবেন পরিবেশ হালকা হয়ে গেছে।
৮) স্বামী আপনার সাথে মার্কেটে যেতে চায় না?
সমাধানঃ আপনি শপিং এ গিয়ে ১ টাকার জিনিস ৫ টাকায় নিয়ে আসুন। দেখবেন টাকার মায়ায় আপনার সাথে যাওয়া শুরু করছে।

৯)তার মায়ের আচরণের সাথে আপনাকে তুলনা করে ?
সমাধানঃ আপনিও নিজের সন্তানের জন্য কেমন তা মনে করিয়ে দিন আর বলুন যে এক মায়ের সাথে আরেক মায়ের তুলনা হয় কিন্তু বউ এর নয়  । ব্যস তার মুখ ভোতা হয়ে যাবে।

১০)আপ্নার রান্নার সমালোচনা করে?
সমাধানঃ আপনিও তার ইনকামের সমালোচনা শুরু করুন ) । ওই বান্দা আর সমালোচনা করবে না।
*টিপস গুলো প্রয়োগ করে হিতে বিপরীত হলে লেখিকা কোনক্রমেই দায়ী থাকবে না)) । নিজ দায়িত্বে টিপস গুলো পালন করতে হবে  ।

****সবার শেষে একটা কথা, যে কোন সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে দরকার ত্যাগ, ভালবাসা, ক্ষমা ও কমিটমেন্ট রক্ষা। বিবাহিত সম্পর্ক ও এর বাহিরে নয়। আমরা সব সম্পর্ক রক্ষা করার জন্য যদি স্যাক্রিফাইস করতে পারি তাহলে স্বামীর ক্ষেত্রে নয় কেন? সেই ক্ষেত্রেও দরকার স্যাক্রিফাইস। স্বামীরও অনুরুপ হতে হবে। সবার চমৎকার বিবাহিত জীবন কামনা করছি:)

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *