ফেসিয়াল এর জন্য ব্যবহার করুন ফ্রুট

ঘরেই সেরে নিন পার্লারের কাঙ্ক্ষিত \” ফ্রুট ফেসিয়াল \” 

ফেসিয়াল করার জন্য কি সবসময় বিউটি পার্লারে যেতে হবে? করতে হবে কাড়িকাড়ি টাকা খরচ? আপনি চাইলে বাসায় বসে করে নিতে পারেন পার্লারে মত ফেসিয়াল। সবধরনের ত্বকের সাথে মানিয়ে যায় ফলের এই ফেসিয়াল টি। বিভিন্ন ফল দিয়ে করাই এই ফেসিয়াল কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। বরং তা ত্বকে নিয়ে আসে একটি আলাদা উজ্জ্বলতা। তাহলে চলুন, জেনে নেয়া যাক ঘরে বসে ফ্রুট ফেসিয়াল করার নিয়ম।

ফেসিয়াল

ফ্রুট ফেসিয়াল

ভাল করে ত্বক পরিস্কার করা

যে কোনো ফেসিয়াল করার আগে ভালোভাবে মুখ পরিষ্কার করা আবশ্ক। প্রথমে আপনাকে মুখ ও গলা ভালো করে পরিষ্কার করতে হবে। এর জন্য আপনি কোন হালকা সাবান ব্যবহার করতে পারেন। তবে ফেস ওয়াস ব্যবহার করা ভাল। আরও ভাল হয় যদি ঠাণ্ডা কাঁচা দুধ ব্যবহার করতে পারেন পরিষ্কারক হিসাবে। একটি বাটিতে লেবুর রস, ২/৩ চিমটি লবণ কাঁচা দুধ মিশিয়ে এতে তুলার বল ভিজেয়ে নিন। এবার এই বল মুখে, গলায় বৃত্তাকার গতিতে ঘষুন ৫ মিনিট। এরপর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

এক্সফলিয়েট করা
এই পর্যায়ে ত্বক এক্সফলিয়েট করতে হবে। স্ক্রাব এর মাধ্যমে ত্বকের এক্সফলিয়েট করা হয়। আপনি চাইলে ঘরে তৈরি করতে নিতে পারেন স্ক্রাব। ওটমিল, লেবুর রস, কমলালেবুর শুকনো খোসার টুকরা ও গোলাপজল মিশিয়ে নিন। এবার মুখে লাগিয়ে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন। আপনি চাইলে লেবুর খোসার গুঁড়া, কাঁচা দুধ, অথবা দই দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন স্ক্রাব।

স্কিন টোন হালকা করা
স্ক্রাব এর পরের ধাপ হল স্কিন টোনকে হালকা করতে হবে। আর এর জন্য মধুর চেয়ে ভাল কোন কিছু হতে পারে না। মুখে ১০ মিনিট মধু লাগিয়ে রাখুন। এরপর মুখ ভেজা রুমাল দিয়ে মুছে ফেলুন।

মুখের লোমকূপ খোলা
এবারের ধাপে আপনার ত্বকের মুখের লোমকূপ খুলতে হবে। তাহলে পরের ধাপের ম্যাসাজের জন্য সুবিধা হবে। কুসুম গরম পানিতে রুমাল ভিজিয়ে তা সাথে সাথে চিপড়িয়ে মুখে ও গলায় আবৃত করে রাখুন ৫ মিনিট।

ম্যাসাজ করা
ফেসিয়াল এ ম্যাসাজ আবশ্যক। স্কিন টোন হালকা করার পরের ধাপ হল স্কিন ম্যাসাজ করা। আস্তে আস্তে করে কোন একটা ফলের পেস্ট সারা মুখে ম্যাসেজ করতে হবে। কলা, পেঁপে, স্ট্রবেরি মধু আর দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিতে পারেন ম্যাসাজের জন্য। এটি মুখে ও গলায় ৫ মিনিট আস্তে আস্তে ম্যাসাজ করুন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে রুমাল ভিজিয়ে তা দিয়ে মুখ ও গলা মুছে ফেলুন।

ফ্রুট প্যাক লাগান
এবার আপনার ত্বকে ফেস প্যাক লাগাতে হবে। ফলের ব্যবহার আপনার ত্বকের ধরণ বুঝে করতে হবে। একটি পাকা কলা বা টমেটের পেষ্ট নিন। নিতে পারেন পেঁপে, স্ট্রবেরি ইত্যাদিও। তার সাথে কিছু লেবুর রস যোগ করুন। আধ ঘণ্টার জন্য ফ্রিজে রাখুন। এরপর কয়েক ফোঁটা মধু যোগ করে মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ময়েশ্চারাইজার
এখন ময়েশ্চারাইজার করতে হবে। শশা হতে পারে খুব ভাল ময়েশ্চারাইজার। শশা পেষ্ট করে মুখে ভাল করে লাগিয়ে রাখুন। এটি আপনার ত্বকের পুষ্টি দেওয়ার সাথে সাথে ত্বকের ময়েশ্চারাইজার ধরে রাখবে অনেকক্ষন। ফেসিয়াল করার একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ এটা

টোনিং করা
এই ধাপে আপনাকে টোনার লাগাতে হবে। ২ চা চামচ গোলাপ জলের সাথে ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার এই টোনার মুখে ও গলায় লাগান। এরপর মুখ ধুয়ে বা মুছতে হবে না। শুকিয়ে গেলেই আপনার ফেসিয়াল সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *