নারকেলের নানা গুণ জেনে নিন

নারকেলের

নারকেলের নানা গুণ জেনে নিন

নারকেলের নানা গুণ

ডাব না পাড়লে কী হয়?

উত্তরটা সহজ ‘নারকেল’। যা দিয়ে পিঠাপুলি তৈরি তো হয়ই। আরও আছে এর নানা কাজ। নারকেল তেলের কদর তো সবখানে। ফেলনা নয় এর পানি বা শাঁসও। রূপচর্চায় এর বিশেষ সমাদর আছে।
আয়ুর্বেদা রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারের অন্যতম স্বত্বাধিকারী সারওয়াত আবেদ বলেন, প্রাচীনকাল থেকেই নানা রকম স্বাস্থ্য সমস্যা সমাধানে নারকেলের ব্যবহার হয়ে আসছে। এ ছাড়া ডাবের পানি শরীরের পানিশূন্যতা রোধ করে, বাড়তি উদ্দীপনা জোগায়। ত্বকের লাবণ্য বাড়াতে ফেসিয়ালের সময় নারকেল তেলের ব্যবহার করা যায়।
রূপ রুটিনে তো নারকেলের ব্যবহার আছেই, সঙ্গে খাবার হিসেবেও জনপ্রিয় এটি। বারডেম জেনারেল হাসপাতালের প্রধান পুষ্টিবিদ আখতারুন্নাহার আলো বলেন, নারকেল আসলে অনেক কাজের কাজি। নারকেল তেলের রান্না করা খাবার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে মুক্তি দেয়। এ ছাড়া নারকেল তেল মাথা ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। তবে যাদের কোলেস্টেরল বেশি, তাদের নারকেল খাওয়া থেকে বিরত থাকা ভালো।

নারকেলের দুধ

 

নারকেলের দুধ দিয়ে পোলাও, পিঠা, ইলিশ মাছ, মাংস রান্নার প্রচলন তো বহু পুরোনো। রূপচর্চার জন্যও নারকেলের দুধ দারুণ এক উপকরণ। এক কাপ গোলাপের পাপড়ি, আধা কাপ গোলাপ জল ও এক কাপ নারকেলের দুধ হালকা গরম পানির সঙ্গে মিশিয়ে নিন। গোসলের আগে এতে ১৫ মিনিট শরীর ভিজিয়ে রাখলে ত্বকে আর্দ্রতা বজায় থাকবে। এ ছাড়া ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ঘরে তৈরি নারকেলের দুধ সরাসরি ত্বকে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বকে বয়সের ছাপ দেখা দিলেও নারকেলের দুধ ব্যবহার করতে পারেন। রোদে পোড়া দাগ দূর করতে রাতে ঘুমানোর আগে ত্বকের সেই অংশে নারকেলের দুধের প্রলেপ দিয়ে রাখুন। এরপর সকালে ঘুম থেকে উঠে ধুয়ে নিলেই পোড়া দাগ থেকে মুক্তি মিলবে।

নারকেল তেল

নারকেল তেল রান্নায় আলাদা একটা ঘ্রাণ আনে। তবে বাজারে বোতলজাত করা নারকেল তেলে আরও নানা ধরনের রাসায়নিক পদার্থ থাকে, ফলে এই নারকেল তেল রান্নার জন্য উপযোগী নয়। তবে অনেক প্রতিষ্ঠান আলাদা করে রান্নার উপযোগী নারকেল তেল বাজারজাত করে থাকে। এ ছাড়া সরাসরি নারকেল শুকিয়ে তেল করে নিয়েও রান্নায় ব্যবহার করা যেতে পারে। নারকেল তেল চুলের যত্নে ব্যবহার করা হয়। মাথায় ব্যবহারের ফলে মাথার ত্বক ঠান্ডা থাকে। শীতের সময়ে অল্প একটু নারকেল তেল ঠোঁটে ঘষে নিলে ঠোঁট ফাটবে না। চুল রুক্ষ হয়ে গেলে নারকেল তেল ব্যবহার করে ঘণ্টা খানেক পর শ্যাম্পু করে নিলে চুল ঝলমলে হয়ে যাবে।

নারকেলের পানি

ত্বক ভালো রাখতে নারকেলের পানি ভালো। ডাবের পানিতে পটাশিয়াম বেশি থাকায় তা শরীর ঠান্ডা রাখে। ডাবের পানিতে অল্প পরিমাণে সোডিয়াম থাকে। আখতারুন্নাহার আলো জানান, বাজারের একটা কোমল পানীয় অপেক্ষা এক গ্লাস ডাবের পানি অনেক ভালো। কারও মুখে যদি দাগ দেখা যায়, তাহলে প্রতিদিন ডাব বা নারকেলের পানি দিয়ে মুখ ধুলে প্রাকৃতিকভাবেই দাগ চলে যাবে।

ঘরে নারকেলের দুধ তৈরি করবেন যেভাবে

নারকেল ভেঙে কুরিয়ে নিন। এবার ২৫০ গ্রাম কোরানো নারকেলের সঙ্গে দেড় কাপ হালকা গরম পানি মিশিয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে মিশ্রণটি দিয়ে পরিষ্কার কাপড়ে ছেঁকে নিন। পেয়ে যাবেন নারকেলের দুধ। একটা বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করতে পারেন এটি।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About Farzana Rahman

One comment

  1. Nice post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *