মেয়েদের অর্গ্যাজম কিভাবে হয়?

মেয়েদের অর্গ্যাজমমেয়েদের অর্গ্যাজম

জনপ্রিয় অনলাইন বাংলা স্বাস্থ্য টিপস পোর্টাল আপনার ডক্টরের এই পোষ্টটি করা আপনাদের অনুরোধে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন প্রিয় পাঠক তিনি আপনার ডক্টরের মেইলে মেইল করে প্রশ্ন করেছেন যে, কিভাবে মেয়েরা অর্গ্যাজম লাভ করে?জনপ্রিয় অনলাইন বাংলা স্বাস্থ্য টিপস পোর্টাল আপনার ডক্টর সেই প্রশ্নের আলোকে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছে। চলুন বিস্তারিত জানা যাক।

 

 

আপনার ডক্টর পাঠক প্রশ্নের উত্তর: কিভাবে মেয়েদের অর্গ্যাজম লাভ হবে সেটা একেকজনের ক্ষেত্রে একেকরকম হয়। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ক্লিটোরিস (ভগাঙ্কুর) স্টিমুলেট করলে মেয়েদের অর্গ্যাজম লাভের সম্ভাবনা বেশি। প্রথমে ক্লিটোরিস কোথায় সেটা দেখুন। যৌনাঙ্গের উপরের দিকে যেখানে যৌনাঙ্গের ঠোটদুটো (বৃহদোষ্ঠ) পরষ্পরের সাথে মিলিত হয় সেখানে ক্লিটোরিস অবস্থিত। আঙ্গুল দিয়ে বা জিহ্বা দিয়ে হালকা করে ঘষে ক্লিটোরিস উত্তেজিত করা সম্ভব (নারীদের যোনি চোষার বিষয়ে কিছু তথ্য জেনে নিন )। যেহেতু ক্লিটোরিসে প্রচূর পরিমাণে নার্ভ থাকে তাই ওখানে উত্তেজিত করলে মহিলাদের অর্গ্যাজমের সম্ভাবনা সাধারণত সবথেকে বেশি। যোনির মধ্যে লিঙ্গ প্রবেশ করিয়ে সঙ্গম বা আঙ্গুল প্রবেশ করিয়ে নাড়াচাড়া করলেও মেয়েদের অর্গ্যাজম হতে পারে। যোনির মধ্যে লিঙ্গ প্রবেশ করিয়ে সঙ্গমের সময় হাত বা আঙ্গুল দিয়ে ক্লিটোরিস উত্তেজিত করলে মেয়েদের যৌন আনন্দ ও অর্গ্যাজম হবার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। G-স্পট ( জি-স্পট কি ? নারীর যৌনাঙ্গের জি-স্পট সম্পর্কে বিস্তারিত) উত্তেজিত করেও মেয়েদের অর্গ্যাজম হতে পারে। G-স্পট হল যোনির অভ্যন্তরীণ গাত্রের উপরের দেওয়ালে অবস্থিত একটি বিশেষ স্থান যেখানে স্পর্শ করলে মেয়েরা খুব উত্তেজিত হয়ে যায়। G-স্পট খুজতে হলে যোনির মধ্যে একটি আঙ্গুল প্রবেশ করিয়ে যোনির উপরের দেওয়ালে আঙ্গুল দিয়ে সুড়সুড়ি দেবার চেষ্টা কর। যেখানে সুড়সুড়ি দিলে আপনার সঙ্গিনীর উত্তেজনা সবথেকে বেশি হবে সেটাই তার G-স্পট। অতঃপর ওই G-স্পট আঙ্গুল দিয়ে উত্তেজিত করলে মেযয়েদের অর্গ্যাজম হতে পারে। এছাড়াও অনেক মেয়েই আছে যাদের স্তনের চুষলে (মেয়েদের দুধ মর্দন এবং চোষার সঠিক কৌশল), নিতম্ব, নাভী ইত্যাদিতে স্পর্শ করলেও অর্গ্যাজম হয়। কিছু বিরল ক্ষেত্রে এমন হওয়াও সম্ভব যে শুধু উত্তেজক গল্প শুনেই মেয়েদের অর্গ্যাজম হচ্ছে। ঠিক কি করলে মেয়েদের অর্গ্যাজম হবে সেটা আপনি ও আপনার সঙ্গিনী দুজনে মিলে পরীক্ষা করে বের ককরুন! তবে জেনে রাখুন, ছেলেদের মত যৌনসঙ্গমের সময় সর্বদা যে মেয়েদের অর্গ্যাজম হবেই তার কোন মানে নেই। সঙ্গমের সময় অনেক মেয়েদেরই অর্গ্যাজম হয় না।

 

আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটে কোন প্রকার অশ্লীল আর্টিকেল দেওয়া হয় না। মূলত যৌন জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করে তোলার জন্য জানা অজানা অনেক কিছু তুলে ধরা হয়।এরপরও আপনাদের কোর প্রকার অভিযোগ থাকলে Contact Us মেনুতে আপনার অভিযোগ জানাতে পারেন, আমরা আপনাদের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করব। ধণ্যবাদ আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটের সাথে থাকার জন্য।

অন্যরা যা খুঁজছেন: মেয়েদের অর্গ্যাজমের কারণ, অর্গ্যাজমের কারণ, অর্গ্যাজমের হলে কি হয়, অর্গ্যাজমের ফলাফল, নারীদের অর্গ্যাজম, মহিলাদের অর্গ্যাজম, মেয়েদের অর্গ্যাজমের লক্ষণ, অর্গ্যাজম কেন হয়, অর্গ্যাজম হওয়া কি ভালো, অর্গ্যাজম বুঝা, পুরুষদের অর্গ্যাজম, ছেলেদের অর্গ্যাজম, বীর্যপাত, পুরুষদের বীর্যপাত, মেয়েদের বীর্যপাত, অর্গ্যাজম ও বীর্যপাত, argyajama, meyader argyajama

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *