কালো ঠোঁট স্বাভাবিক করবেন যেভাবে

ঠোট একটি আকর্ষণীয় অঙ্গ। ছেলে মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রে এটির যত্ন বেশ লক্ষ করা যায়।তবে ত্বকের যত্নের দিক থেকে মেয়েরা একটু এগিয়ে কারণ মেয়েরা বাড়িতে একটু বেশি সময় পায় এবং সভাবত করনেই এমন।একজন ব্যক্তি ফর্সা কিন্তু তার ঠোট যদি কালো হয় তবে দেখতে কিন্তু খুবই খারাপ লাগে।তবে এই খারাপ লাগাকে ভালো লাগার উপায় ও করা যাবে কোন বৈজ্ঞানিক উপায়ে না সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপায়ে।তেমন কিছু natural health tips শেয়ার করছি। চলুন তাহলে দেখি কীভাবে কালো ঠোঁট স্বাভাবিক করবেন?

কালো ঠোঁট স্বাভাবিক করবেন যেভাবে

কালো ঠোঁট স্বাভাবিক করবেন যেভাবে

খুব সাধারণ এবং প্রাকৃতিক যে নিয়মগুলো মেনে ঠেটের কালচে ভাব দূর করতে পারবেন………

১. ধূমপান মানে বিষপান তা সবাই জানি। ধুমপানের কারণে অনেক প্রকার common diseases হয়। এটি যেমন ভিতরের অঙ্গের ক্ষতি করে তেমনি বইরের অঙ্গের ও ক্ষতি করে যার মাধ্যে ঠোট অন্যতম।তাই ধুমপান জনিত কোন অভ্যাস থাকলে পরিহার করুন এখুনি।

২. চা বা কফির যদি পানের অভ্যাস যদি বেশি থাকে তবে সেটার পরিমাণনে কমিয়ে দিনে  এব থেকে দুই বার করুন।

৩. মদ বা অ্যালকোহল সবসময় এড়িয়ে চলুন।

৪. লেবুর রস একটা দারুন ক্লিনিজ।লেবুর রসের সাথে মধু মিশিয়ে ঠোটে লাগান দেখবেন কালোভাব দূর হবে।

৫. পারলে ধনে পাতার রস ঠোটে মাখান কারণ ধনে পাতার রস ঠোঁটের কালোভাব দূর করে থাকে।

৬.  ভালো ফলাফল পেতে একটা একটা লেবুর অর্ধেক কেটে নিন।এবার এই অর্ধেক লেবুর উপর ২ ফোটা মধু মিশিয়ে ঠোটে ম্যসেজ করুন। ম্যসেজ অবশ্যই বৃত্ত্কার ভাবে করবেন।এরপর বরফের পানিতে ঠোট ভালোকরে ধুয়ে ফেলুন।

৭. সকালে যখন ব্রাশ করবেন তখন ব্রাজ দ্বারা ঠোটের উপর হালকাভাবে ঘষবেণ।দেখবেন ঠোটের মরা কোষগুলো উঠে যাবে।

৮. কয়েক ফোঁটা মধু ও কাঁচা দুধ মুলতানি মাটির সাথে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান , দেখবেন ঠোঁটের কালোভাব দূর হবে।

৯. যদি ঠোঁটের কোনা কালো হয় তবে শসা ও পাতিলেবুর রস একসাথে মিশিয়ে প্রতিদিন ৩-৪ বার লাগান। অনেক উপকার পাবেন।

১০. ঠোটের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে ব্যবহার করুন গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, মধু ও গোলাপজলের মিশ্রণ।

১১. রাতে ঘুমানোর আগে একটি প্রাযাক ব্তেযকহার করুন।নারিকেলের তেল ও বাদাম তেল একসঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। সপ্তাহে ২ দিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন দেখবেন কালো দাগ দূর হবে।

১২ পানিকে জীবনের সঙ্গী করুন .প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ গ্লাস পানি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

১৩. ঠোটে অযথা কৃত্রিম দ্রব্য ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।প্রস্তুত করকের সিল বো হলোগ্রাম দেখে ব্যকহার করুন।যেমন লিপিস্টিক বা অন্য কিছু ব্যবহারের আগে সেটার মান সম্পর্কে নিশ্চিত হবেন।

আমার চাই আপনাদের জীবন যাতে সুখি ও সুন্দর হয় এমন কিছু উপহার দিতে। যদি আমাদের টিপসগুলো আপনাদের সমান্যতম কাজে আসে তবে একটা থ্যাকস দিতে ভুলবেন না। আর  আপনার যে কোন হেল্থ রিলেটেড টিপস পেতে আপনার ডক্টর সাইটটি ভিজিট করুন।

আপনার জন্য আরো কিছু পোষ্ট:
অল্প সময়ে মাথার চুল ঘন করার দু’টি ঘরোয়া টিপস
সিল্কি চুলের গোপন গোপন রহস্য

Tags: Lip clean, clean Lip, remove black spot, remove lip black spot, clean lip black spot, how to clean lip’s black spot, lips clinic
আপনার স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন সমস্যার জন্য এখানে কমেন্ট করে জানান।তাছাড়া অপনারা কোন ধরণের পোষ্ট চান তাও জানাতে ভুলবেন না।ধন্যবাদ

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *