ধনিয়া পাতা ফ্রিজে রাখলে ২দিন পর পঁচে যায়?জেনে নিন দীর্ঘদিন সংরক্ষন করার উপায়

কম সময়ের মধ্যে মসলা ফসল উৎপাদনে ধনিয়া উল্লেখযোগ্য। ধনিয়া রবি ফসল হলেও এখন প্রায় সারা বছরই এর চাষ করা যায়। ধনিয়ার কচিপাতা সালাদ ও তরকারিতে সুগন্ধি মসলা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এছাড়া ধনিয়ার পুষ্ট বীজ বেঁটে বা গুঁড়া করে তরকারিতে মসলা হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

আজও আপনাদের জন্য তেমন প্রয়োজনীয় একটি টিপস নিয়ে হাজির হয়েছি। আশা করি আপনাদের কাজে আসবে।

Loading...

বাজারে এখন ধনিয়াপাতা পাওয়া যাচ্ছে। সিজন বলে দামটাও অনেক কম। তবে সমস্যা হলো আপনি যতই কিনে রাখেন না কেন, ২-১ দিন পরেই ফ্রিজে রাখলে ধনিয়া পাতায় পচন ধরে। তবে ধনিয়া পাতায় যাতে দীর্ঘদিন ভালো থাকে তা নিয়ে আজকের টিপসটি দেখে নিন।

ধনিয়া পাতা পচে যাওয়ার মূল কারন হচ্ছে ধনিয়া পাতায় থাকা পানি। তাই বাজার থেকে ধনিয়া পাতা সংগ্রহ করার সময় দেখবেন যেন ধনিয়া পাতায় পানি দেওয়া না থাকে। আর থাকলেও কিনে এনে একটি খবরের কাগজের উপর ছড়িয়ে ফ্যানের বাতাসে অল্প সময় পানিটা শুকিয়ে নেবেন। চাইলে টিস্যুও ব্যবহার করতে পারেন। তারপর ধনিয়া পাতার গোড়া কেটে, একটি বক্সে ভরে রেখে দিন। দেখবেন অনেক দিন ধরে ধনিয়া পাতা ভালো থাকবে।

পড়ুন  দ্রুত ওজন কমাতে এই খাবারটি পেট ভরে খান

চাইলে একটি বোতল কেটে ছবির মতন করে রাখতে পারেন, এতে ধনিয়া পাতা বা কাচামরিচ ১৫ দিনের মতন ভালো থাকবে।

বিলাতী ধনিয়া চাষ, টবে বিলাতি ধনিয়া চাষ পদ্ধতি, বিলাতি ধনিয়ার অপকারিতা, বিলাতি ধনিয়া পাতার উপকারিতা, বিলাতি ধনিয়া পাতা চাষ পদ্ধতি, বিলাতি ধনিয়া পাতার বীজ, বিলাতি ধনিয়ার উপকারিতা, জিরা english, পুদিনা পাতা english meaning, মৌরি in english, ধনেপাতার ইংরেজি, এলাচ english, ধনে english, ধনিয়া গুড়া, দারুচিনি english, টবে পুঁইশাক চাষ পদ্ধতি, টবে ক্যাপসিকাম চাষ পদ্ধতি, মুলা চাষ পদ্ধতি, পুদিনা পাতার উপকারিতা, ধনিয়া বীজের উপকারিতা, ধনে পাতা, ধনে বীজের উপকারিতা, গাজরের উপকারিতা, ধনে পাতা english meaning, জয়ত্রী english, বিলাতি ধনিয়া বীজ, ধনিয়া বীজ বপনের পদ্ধতি, ধনিয়া বীজ খাওয়ার নিয়ম, ধনিয়া পাতা, পান সংরক্ষণ, ধনেপাতা সংরক্ষণের উপায়, টমেটো সংরক্ষণ, পুদিনা পাতা সংরক্ষণ, কাঁচা মরিচ সংরক্ষণ পদ্ধতি, ফুলকপি সংরক্ষণ, কড়াইশুঁটি সংরক্ষণ,

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.