গোড়ালি ফেটেছে? পায়ের গোড়ালি ফাটার চিকিৎসা ঞরে বসে কীভাবে করবেন?

এ সময়টাতে ধুলায় ধূসরিত পায়ের গোড়ালি ফেটে গেলে মেজাজও কিন্তু বিগড়ে যায়। ফাটা গোড়ালি দেখলে জুতা জোড়াও যেন ভেংচি কাটে। পুরো বছর ধরেই পা ফাটার ঘটনাটি ঘটে থাকে। তবে শীতকালে এটি বেড়ে যায় বেশ। কারণ, বাতাসে আর্দ্রতা কম এবং সেই সঙ্গে রাস্তায় প্রচুর ধুলাবালিও থাকে।

সবার মোজা পরার অভ্যাস নেই। ফলে পায়ে ধুলাবালি লেগেও পা ফেটে যায়। এখন থেকে শুরু করে শীত শেষ না হওয়া অব্দি সপ্তাহে অন্তত এক দিন পায়ের যত্ন (foot care) নেওয়া দরকার। যত্ন (care) নেওয়ার কিছু পদ্ধতি জানালেন আয়ুর্বেদিক রিসার্চ অ্যান্ড হেলথ সেন্টারের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও আয়ুর্বেদিক চিকিত্‍সক (treatment) ও পরামর্শক শালিন ভারতী এবং হারমনি স্পার আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা। তাঁদের দুজনের পরামর্শ অনুযায়ী পাঠকদের জন্য থাকছে জরুরি কিছু বিষয়-

* রাতে ঘুমানোর আগে পায়ে ভালোভাবে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগিয়ে মোজা পরে ঘুমান।

* পায়ের গোড়ালি নরম ও কোমল রাখার ক্ষেত্রে প্রতিদিন রাতে বি ওয়াক্স বা মৌমাছির মোম ব্যবহার করতে পারেন।

* নরম জুতা পরুন।

পা ফাটা রোধের উপায় জেনে নিন ।পা ফাটার চিকিৎসা By Bangla Health Tips

* পদ আভ্রিয়াঙ্গাম নামে এক আয়ুর্বেদিক পরিচর্যায় প্রথমেই পুরো পায়ের গোড়ালি ভালোভাবে নারকেল তেল দিয়ে মালিশ করে নিন। এরপর কুসুম গরম পানিতে ১৫-২০ মিনিট পা ভিজিয়ে রাখুন। এবার চালের গুঁড়া ও গোলাপজল মিশিয়ে তৈরি করা পেস্ট পায়ের গোড়ালিতে লাগিয়ে রাখুন। এটি স্ক্রাব হিসেবে ভালো কাজ করবে। এরপর লেবু দিয়ে ঘষে স্ক্রাব তুলে ফেলুন। গোড়ালির মৃত কোষগুলো তুলে ফেলার জন্য মধু ও লেবু দিয়ে একটি স্ক্রাব তৈরি পায়ে লাগিয়ে রাখুন। এরপর পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

* গোলাপজল ও গ্লিসারিন সমপরিমাণে নিয়ে একটি বোতলে রেখে ব্যবহার করা যাবে। এই ময়েশ্চারাইজার প্রতিদিন, এমনকি প্রতিবার পা ধোয়ার পরেও ব্যবহার করা ভালো।

* পায়ের চামড়া কখনো টেনে তুলবেন না।

* প্রতিদিন পায়ের গোড়ালিতে ময়েশ্চারাইজার লাগানোর অভ্যাস করুন।

* নিয়মিত পায়ের পাতায় জলপাই তেল ও কর্পূর মিশিয়ে মালিশ করুন। এতে পায়ের পাতা নরম ও কোমল হবে এবং দাগ দূর হবে।

* রোজ রাতে পায়ের পাতা মালিশ করুন। এতে সারা দিনের ক্লান্তি দূর হবে ও পা সুন্দর থাকবে।

* গোসলের সময় নিয়মিত পায়ের গোড়ালি পরিষ্কার (clean)করুন।

* পায়ের জীবাণু দূর করতে লবঙ্গ তেল মালিশ করুন।

* পাকা কলা চটকে নিয়ে তার মধ্যে একটি ডিমের কুসুম ও এক চামচ মধু নিয়ে ভালোভাবে মিশ্রণ তৈরি করুন। এই পেস্টটি পায়ের পাতা ও গোড়ালিতে লাগিয়ে বিশ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। এতে পায়ের শুষ্কতা দূর হবে এবং উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

গোড়ালির যত্ন (care) বাড়িতেই

স্ক্রাব ব্যবহার করতে পারেন। চালের গুঁড়া ও শসার রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট কিছুক্ষণ পায়ের গোড়ালিতে ঘষে নিন। এরপর কুসুম গরম পানিতে শ্যাম্পু ও লবণ মিশিয়ে তাতে পা ভিজিয়ে রাখুন কিছু সময়ের জন্য। বার মাটির ঝামায় কিছুটা শ্যাম্পু ভরিয়ে পায়ের ফাটা জায়গাগুলো খুব ভালো করে ঘষুন।

ব্রাশে ক্লিনজার দিয়ে খুব ভালোভাবে পুরো পায়ের গোড়ালি পরিষ্কার (clean)করে নিন। পুশার দিয়ে নখের গোড়া ও নখের পাশে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন। সব শেষে লেবু দিয়ে পুরো পায়ের গোড়ালি পরিষ্কার (clean) করে নিন। ক্লিনজার হিসেবে লেবু বেশ ভালোভাবে কাজ করে। এ ছাড়া লেবু নখ সাদা ও পরিষ্কার(clean) রাখে।

এরপর পানি দিয়ে খুব ভালো করে পায়ের গোড়ালি ধুয়ে নিন। ডিপ ময়েশ্চারাইজার অথবা সবচেয়ে ভালো হয় যদি পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করতে পারেন।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

পড়ুন  খেজুর এর নানা স্বাস্থ্য উপকারিতা

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.