ঘুম পুরুষের তুলনায় নারীর বেশি কেন?

ঘুম
ঘুম পুরুষের তুলনায় নারীর বেশি কেন?

আপনার মতে কার বেশি ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে, নারী নাকি পুরুষের? অনেকেই হয়তো বলবেন পুরুষের। কারণ সারাদিনের বাইরে কাজকর্ম অন্যান্য বিষয় নিয়ে অনেকে এটিই ভাবেন। কিন্তু গবেষণার ফলাফল অন্য কথা বলে। ডিউক ইউনিভার্সিটির গবেষকদের মতে পুরুষের তুলনায় নারীদের বেশি ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে।
বেষক দল তাদের গবেষণায় দেখতে পান পুরুষের তুলনায় নারীরা কম ঘুমের কারণে শারীরিক ও মানসিক দিক থেকে দুর্বল হয়ে পড়েন। এছাড়াও গবেষণায় আরও দেখা যায় কম ঘুমের কারণে নারীদের হৃদপিণ্ডের রোগ, বিষণ্ণতা এবং মানসিক সমস্যায় ভোগার ঝুঁকি পুরুষের তুলনায় অনেক বেশি। ঘুমবিশেষজ্ঞ মাইকেল ব্রেউস বলেন, ‘গবেষণায় দেখা যায় ঘুম কম হলে সকালে নারীদের মধ্যে রাগ, বিষণ্ণতা এবং ক্ষতিকর আবেগগুলো কাজ করতে থাকে’।
কার কতোটা ঘুমের প্রয়োজন

অন্যান্য শারীরিক বিষয়ের পাশাপাশি মানসিক শক্তি ব্যয়ের উপরেও ঘুমের পরিমাণ নির্ভর করে থাকে এবং গবেষকগণ দেখতে পান নারীরা পুরুষের তুলনায় অনেক বেশি মাত্রায় মস্তিষ্ক ব্যবহার করে কাজ করে থাকেন।
ইংল্যান্ডের Loughborough University’র স্লিপ রিসার্চ সেন্টারের ডিরেক্টর বলেন, ‘ঘুমের মাধ্যমে আমাদের মস্তিষ্কের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ নতুন করে শক্তি পায় এবং রিকভার হয়। মস্তিষ্কের এই অংশ দিয়ে আমরা চিন্তা করা, স্মৃতি ধরে রাখা, কথা বলা ইত্যাদি ধরণের কাজ করে থাকি।
পুরোদিনে যতোটা মস্তিষ্ক ব্যবহার করে কাজ করা হবে ততোটাই আমাদের মানসিক শক্তি যোগানের চাহিদা হবে এবং পূরণ করতে হবে এবং এর উপর নির্ভর করেই আমাদের ঘুমের পরিমাণ নির্ধারিত হবে। নারীরা একসাথে অনেক কাজ করে থাকেন, তারা মাল্টিটাস্কার যা পুরুষেরা নন সুতরাং নারীদের মস্তিষ্ক অনেক বেশি ব্যবহার হচ্ছে পুরোদিন। সুতরাং এই হিসেবেও নারীদের পুরুষের চাইতে বেশি ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে’।
গবেষকগণ আরও বলেন, ‘এই রিসার্চটি গড়পড়তা মানুষের উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে। এতে করে সাধারণ একজন পুরুষের তুলনায় নারীর বেশি ঘুমের প্রয়োজন আছে তা স্পষ্ট। তবে, যদি কোনো পুরুষ সারাদিন এমন কাজ করেন যা অনেক বেশি মস্তিষ্ক ব্যবহার করে করতে হয় তাহলে তাদেরও কিছুটা বাড়তি ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে, কারণ এতে করে ক্ষয় হয়ে যাওয়া মানসিক শক্তি পূরণ হয়’।
ঘুম সম্পর্কে বিজ্ঞান যা বলে

সাধারণত একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের ৭ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুমের প্রয়োজন রয়েছে এর থেকে কম হওয়া বা অনিদ্রা সমস্যায় যারা ভোগেন তাদের নানা শারীরিক সমস্যা পরতে দেখা যায়। হার্টের সমস্যা, ব্লাড কল্ট, স্ট্রোক, মানসিক সমস্যা, ত্বক বুড়িয়ে যাওয়া, বিষণ্ণতা ইত্যাদি সমস্যায় আক্রান্ত হন তারাই যারা কম ঘুমান।

আপনার যে কোন স্বাস্থ্য বিষয়ক তথ্যের জানান দিতে আপনার ডক্টর রয়েছে আপনার পাশে।জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করার জন্য নিয়মিত ভিজিট করুন আপনার ডক্টর health সাইটে।মনে না থাকলে আপনি সাইট আপনার ব্রাউজারে সেভ করে রাখুন।ধন্যবাদ

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *