...

তিল দেহের কোথায় থাকলে কি হয়

তিল
তিল দেহের কোথায় থাকলে কি হয়

সাধারণত শরীরের কোনও বিশেষ অংশে একটি তিলের অবস্থান সেই অঙ্গের সৌন্দর্যকে অনেকাংশে বাড়িয়ে তোলে। ভাবুন একদা বিশ্ব মাতানো সঙ্গীত শিল্পী ম্যাডোনা কিংবা সুপার মডেল সিন্ডি ক্রফোর্ডের ঠোঁটের ওপরের তিলের কথা! ওই একটিমাত্র তিল তাদের সৌন্দর্যকে করেছে বহুগুণ আকর্ষণীয় আর কাম্য।

তবে তিলকে শুধুমাত্র শারীরিক সৌন্দর্যের জ্যোতি বাড়ানোর কারিগর হিসেবেই ভাবা হয় না। চিন্তাশীল মানুষদের অনেকেই ভাব-লক্ষণ আর অন্যান্য আনুষঙ্গিক বিচারে সিদ্ধান্তে চেয়েছেন শরীরের তিলের অবস্থঅনের ভাল-মন্দ নিয়ে। তেমনি কিছু ধারণা এখানে তুলে ধরা হলো। তবে অনেক চিন্তাশীল মানুষ এটাও মনে করেন যে—এসব ধারণা আসলে কুসংস্কারকেই শক্তিশালী করে এবং এগুলোর সত্যিকারের কোনও ভিত্তি নেই।

তবে পক্ষে বিপক্ষের চিন্তা বাদ দিয়ে সময়ের কণ্ঠস্বরের পাঠকদের জন্য প্রচলিত ধারণাগুলো তুলে ধরা হল ।

প্রাচীন সমুদ্র শাস্ত্রে তিল দেখে ভাগ্য নির্ধারণের পদ্ধতি বর্ণনা করা আছে। তিল দেখে আমরা ভবিষ্যৎ সম্পর্কেও জানতে পারি। শরীরের বিভিন্ন অংশে তিলের উপস্থিতি, রং, আকৃতি প্রভৃতি দেখে আমরা আমাদের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে ধারণা করতে পারি। দীর্ঘ গবেষণার পর ভারতীয় উপমহাদেশীয় পণ্ডিতরা এ তত্ত্ব আবিষ্কার করেন।

পুরুষের শরীরে ডান দিকে এবং নারীদের শরীরে বাঁ দিকে তিল থাকা শুভ। আসুন দেখি আমাদের ভাগ্য সম্পর্কে তিল কী বলে। কোনো ব্যক্তির শরীরে ১২টির বেশি তিল হওয়া শুভ মনে করা হয় না। ১২টার কম তিল হওয়া শুভ ফলদায়ক।

পড়ুন  জানেন কি বাংলাদেশেও living together before marriage আইন অনুযায়ী  বৈধ !

যাদের ভ্রুতে থাকে তারা প্রায়ই ভ্রমণ করেন। ডান ভ্রুতে তিল থাকলে ব্যক্তির দাম্পত্য জীবন সুখী হয়। আবার বাঁ ভ্রুর তিল দুঃখী দাম্পত্য জীবনের সঙ্কেত দেয়।

মাথার মাঝখানে থাকলে তা নির্মল ভালোবাসার প্রতীক। ডান দিকে তিল থাকা কোনো বিষয়ে নৈপুণ্য দর্শায়। আবার যাদের মাথার বাঁ দিকে তিল আছে তারা অর্থের অপচয় করেন। মাথার ডান দিকের তিল ধন ও বুদ্ধির চিহ্ন। বাঁ দিকের তিল নিরাশাপূর্ণ জীবনের সূচক।

ডান চোখের মণিতে  থাকলে ব্যক্তি উচ্চ বিচার ধারা পোষণ করে। বাঁ দিকের মণিতে যাদের তিল থাকে তাদের বিচার ধারা ভালো হয় না। যাদের চোখের মণিতে তিল থাকে তারা সাধারণত ভাবুক প্রকৃতির হন।

চোখের পাতায় থাকলে ব্যক্তি সংবেদনশীল হন। তবে যাদের ডান পাতায় থাকে তারা বাঁ পাতায় তিলযুক্ত লোকের তুলনায় বেশি সংবেদনশীল।

কানে থাকা ব্যক্তি দীর্ঘায়ু হন।

স্ত্রী বা পুরুষের মুখমণ্ডলের আশপাশের তিল তাদের সুখী ও ভদ্র হওয়ার সঙ্কেত দেয়। মুখে তিল থাকলে ব্যক্তি ভাগ্যে ধনী হন। তার জীবনসঙ্গী খুব সুখী হয়।

নাকে থাকলে ব্যক্তি প্রতিভাসম্পন্ন হন এবং সুখী থাকেন। যে নারীর নাকে রয়েছে তারা সৌভাগ্যবতী হন।

পড়ুন  মেয়েদের গোপন অঙ্গে তিল থাকলে যা হয়?

যাদের ঠোঁটে রয়েছে তাদের হৃদয়ে ভালোবাসায় ভরপুর। তবে ঠোঁটের নীচে থাকলে সে ব্যক্তির জীবনে দারিদ্র্য বিরাজ করে।

গালে লাল থাকা শুভ। বাঁ গালে কালো তিল থাকলে, ব্যক্তি নির্ধন হয়। কিন্তু ডান গালে থাকলে তা ব্যক্তিকে ধনী করে।

যে স্ত্রীর থুতনিতে থাকে তিনি সহজে মেলামেশা করতে পারেন না। এরা একটু রুক্ষ স্বভাবের হন।

ডান কাঁধে থাকলে সেই ব্যক্তি দৃঢ়চেতা। আবার যাদের বাঁ কাঁধে তিল থাকে তারা অল্পেই রেগে যান।

যার হাতে থাকে তারা চালাক-চতুর হন। ডান হাতে তিল থাকলে, তারা শক্তিশালী হন। আবার ডান হাতের পিছনে থাকলে তারা ধনী হয়ে থাকেন। বাঁ হাতে থাকলে সেই ব্যক্তি অনেক বেশি টাকা খরচ করেন। আবার বাঁ হাতের পিছনের দিকে থাকলে সেই ব্যক্তি কিপটেও হন।

যে ব্যক্তির ডান বাহুতে থাকে তারা প্রতিষ্ঠিত ও বুদ্ধিমান। বাঁ বাহুতে থাকলে ব্যক্তি ঝগড়াটে স্বভাবের হন। তাঁ বুদ্ধিতে খারাপ বিচার থাকে।

যাদের তর্জনীতে তিল থাকে তারা বিদ্বান, ধনী এবং গুণী হয়ে থাকেন। তবে তারা সব সময় শত্রুদের কারণে সমস্যায় থাকেন।

পড়ুন  প্রিয়জনের বাবা-মায়ের মন জয় করার ১০টি কৌশল জেনে নিন

বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠে তিল থাকলে ব্যক্তি কর্মঠ, সদ্ব্যবহার এবং ন্যায়প্রিয় হন। মধ্যমায় থাকলে ব্যক্তি সুখী হন। তার জীবন কাটে শান্তিতে।

যে ব্যক্তির কনিষ্ঠায় রয়েছে তারা ধনী হলেও জীবনে অনেক দুঃখ-কষ্ট সহ্য করতে হয়।

যার অনামিকায় থাকে, তারা জ্ঞানী, যশস্বী, ধনী ও পরাক্রমী হন।

গলার সামনের দিকে থাকলে ব্যক্তির বাড়িতে বন্ধু-বান্ধবের আনাগোনা লেগে থাকে। গলার পিছনে  থাকলে সেই ব্যক্তি কর্মঠ হয়।

যে ব্যক্তির কোমরে  থাকে, তার জীবনে সমস্যার আনাগোনা লেগেই থাকে।

ডান দিকের বুকে থাকা শুভ। এমন স্ত্রী খুব ভালো হয়। পুরুষ ভাগ্যশালী হয়। বা দিকের বুকে থাকলে স্ত্রীপক্ষের তরফে অসহযোগিতার সম্ভাবনা থাকে। বুকের মাঝখানে থাকলে সুখী জীবনের সঙ্কেত দেয়।

যে জাতকের পায়ে রয়েছে তারা অনেক ভ্রমণ করেন।

যে ব্যক্তির পেটে আছে তারা খুব খাদ্যরসিক হয়। মিষ্টি তাদের অত্যন্ত প্রিয়। তবে তারা অন্যকে খাওয়াতে খুব একটা পছন্দ করে না।

ডান হাঁটুতে থাকলে গৃহস্থজীবন সুখী হয়। বাঁ হাঁটুতে থাকলে দাম্পত্য জীবন দুঃখময় হয়।

ম্যাগাজিন প্রিয়ন্তি এবং এই সময় অবলম্বনে ।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.