স্ট্রেচ মার্ক দূর করুন ঘরোয়া ৫টি উপায়ে

ত্বকের উপরে হালকা রঙয়ের কিছু লাইন বা ভাঁজের মত দাগকে স্ট্রেচ মার্ক বলা হয়। কোমর, ঘাড়ের ভাঁজে, পেটের ভাঁজে অথবা পায়ের ভাঁজে ত্বকে ফাটা ফাটা বা কুঁচকে যাওয়ার মত দাগ পড়ে। সাধারণত শরীরের অভ্যন্তরীণ অংশে এই দাগ পড়ে। তবে অনেক সময় শরীরের দৃশ্যমান অংশেও এই দাগ পড়তে পারে। টান পড়ার কারণে এই দাগ সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন কারণে ত্বকে স্ট্রেচ মার্ক পড়তে পারে। তার মধ্যে অন্যতম হল গর্ভধারণ,অতিরিক্ত ওজন বাড়ানো, অতিরিক্ত ওজন কমানো, হরমোনের অসামঞ্জস্যতা,বংশগত কারণ ইত্যাদি। এই বিশ্রী দাগটি দূর করুন ঘরোয়া কিছু উপায়ে।স্ট্রেচ মার্ক

স্ট্রেচ মার্ক দূর করুন ঘরোয়া ৫টি উপায়ে

১। ক্যাস্টর অয়েল
স্ট্রেচ মার্কের উপর কিছু পরিমাণ ক্যাস্টর অয়েল চক্রাকারে ৫-১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এবার পাতলা সুতির কাপড় দিয়ে স্থানটি পেঁচিয়ে রাখুন। এবার গরম পানির বোতল দিয়ে রাখুন। এটি আধা ঘণ্টা রাখুন। এটি প্রতিদিন এক মাস করুন। দেখবেন দাগ হালকা হয়ে গেছে।

২। আলুর রস
আলুর রসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এবং মিনারেল আছে যা কোষ পুনর্বিন্যাস করে থাকে। এক টুকরা আলু কেটে রস বের করে নিন এবার আলুর রস স্ট্রেচ মার্কের স্থানে লাগান। এমনভাবে লাগাবেন যেন স্ট্রেচ মার্ক সম্পূর্ণভাবে আলুর রসে ঢেকে যায়। আলুর রস শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে আলু রস না ব্যবহার করে একটি মাঝারি আকৃতির আলু কেটে স্ট্রেচ মার্ক এর স্থানে ঘষতে পারেন।

৩। চিনি
চিনি প্রাকৃতিক এক্সফলিয়েট হিসেবে কাজ করে। এটি স্ট্রেচ মার্ক দূরে বেশ কার্যকর। এক টেবিল চামচ কাঁচা চিনি, বাদাম তেল এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার এটি স্ট্রেচ মার্কের স্থানে লাগান। হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন কয়েক মিনিট। সপ্তাহে তিন দিন অবশ্যই করুন, পারলে প্রতিদিন করুন। দেখবেন কয়েক মাসের মধ্যে আপনার স্ট্রেচ মার্ক অনেক হালকা হয়ে গেছে।

৪। অ্যালোভেরা জেল
স্ট্রেচ মার্ক সহ ত্বকের অনেকগুলো সমস্যা সমাধাবে অ্যালোভেরা জেল বেশ কার্যকর। অ্যালোভেরা জেলে সরাসরি স্ট্রেচ মার্ক এর উপর ম্যাসাজ করে লাগান। কিছু সময় পর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এছাড়া এক কাপ অ্যালোভেরা জেল, একটি ভিটামিন এ ক্যাপস্যুল এবং ভিটামিন ই ক্যাপস্যুল একসাথে মেশান। এই মিশ্রণটি ত্বকের উপর ম্যাসাজ করে লাগান। ভাল ফল পেতে এটি ত্বকে প্রতিদিন ব্যবহার করুন।

৫। লেবুর রস
অর্ধেকটা লেবু থেকে রস বের করে নিন। এটি ত্বকে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। লেবুর রসে প্রাকৃতিক এসিড আছে যা দাগ দূর করে থাকে। লেবুর রসের সাথে আলুর রস অথবা শসার রস কিংবা টমেটোর রস মেশাতে পারেন।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *