বাসায় ফেসিয়াল করতে চান? দেখে নিন পদ্ধতি!

সুন্দর ত্বক সবাই চায়। বিশেষ করেরে মুখের ত্বক। আর মুখের ত্বক সুন্দর রাখার জন্য দরকার পূর্ণ পরিচর্চা। আর মুখের ত্বকের যত্নের কথা বললে সব থেকে জরুরি ফেসিয়াল করা। কিন্তু সেখানেও সমস্যা। ভাল কোন পার্লারে ফেসিয়াল করতে গেলে অনেক টাকা খরচ হয়ে যায়। কম খরচে যে সে পার্লারে করলে ত্বকের বারটা বেজে যায়।তাই যারা কম খরচে ভাল ফেসিয়াল করতে চান তারা বাসাতে করতে পারেন। কিভাবে বাসায় ফেসিয়াল করবেন সেটা দেখেন।ফেসিয়াল

বাসায় ফেসিয়াল করতে চান? দেখে নিন পদ্ধতি!

যা যা লাগবে: ১।ফেসওয়াস, ২।ক্লিনজিং মিল্ক, ৩।ম্যাসাজ ক্রিম, ৪।স্ক্রাব, ৫।ব্লাক হেড রিমুভ টুলস (যদি ব্লাক হেডস বা হুয়াইট হেডস প্রোবলেম থাকে), ৬।টোনার, ৭।ফেস ম্যাস্ক, ৮।সীট ম্যাস্ক, ৯।মস্চারাইজার।

যেভাবে করবেন:

১।ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।পরিষ্কার তোয়ালে বা ফেসিয়াল টিস্যু দিয়ে মুখে মুছে নিন।

২।হাতের তালুতে ক্লিনজিং মিল্ক নিন। ৫ মিনিট ধরে মুখে ম্যাসাজ করুন।এবার পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৩।ম্যাসাজ ক্রিম দিয়ে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করুন। তারপর হাতে সামান্য পানি নিয়ে আরো ২ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এবার মুখ ধুয়ে ফেলুন।

৪।স্ক্রাবার দিয়ে ৩-৫ মিনিট স্ক্রাব করুন ও ধুয়ে ফেলুন।

৫।ব্লাক হেডস বা হুয়াইট হেডস সমস্যা থাকলে টুলস দিয়ে সেগুলো পরিষ্কার করুন। যদি সমস্যা না থাকে তবে এই ধাপ টা আপনি বাদ রাখুন।

৬।মুখে কিছু সব বরফ ঘষুন। এবার টোনার ব্যবহার করুন।টোনার ধুয়ে ফেলার কোন প্রয়োজন নেই। এই অবস্থাতে আপনি পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।

৭।সম্পূর্ণ মুুখে বেশ ভাল করে ফেস ম্যাস্ক লাগান। ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন।এবার ২ মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। মুখ মুছে নিন।

৮।সীট ম্যাস্ক লাগান। ভিন্ন গ্রুপের সীট ম্যাস্ক ভিন্ন সময় ত্বকে রাখতে হয়। তাই আপনি যেটা ব্যবহার করছেন সেটার প্যাকেটের সাথে দেখুন ব্যবহার বিধিতে কতো সময় ব্যাবহারের কথা লিখা আছে। ব্যবহার বিধিতে যেমন থাকবে সেটা মেনে চলুন। সময় পূর্ণ হলে সীট ম্যাস্ক তুলে নিন। মুখ পানি দিয়ে ধোয়ার কোন প্রয়োজন নেই। এভাবে পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।

৯।এবার মস্চারাইজার ব্যবহার করুন। ভিন্ন কোন মস্চারাইজার না। আপনি প্রতিদিন যেটা ব্যবহার করেন সেটাই ব্যবহার করুন।মস্চারাইজার ব্যবহার নাা করে থাকলে দৈনন্দিন ব্যবহৃত ক্রিম লাগান।

এই তো শেষ হয়ে গেলো ফেসিয়াল করা।আপনি চাইলে এই সব প্রোডাক্ট একটা ব্রান্ডের কিনতে পারেন বা ত্বকের ধরণ অনুযায়ী আলাদা ব্রান্ডেরও ব্যবহার করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হবে।তাছাড়া বাজারে Facial কিট সেট পাওয়া যায়। কিন্তু সেগুলো অনেক সময় ত্বকে শ্যূট করে না।

আপনার ত্বকে ধরুন ‘olay facewash’ শ্যূট করে। কিন্তু ‘olay cleansing milk’ শ্যূট করে না। সেক্ষেত্রে olay ফেসিয়াল কিট কিনে লাভ নাই। আবার ‘The body shop vitamin e tonar’ শ্যূট করে কিন্তু ‘The body shop vitamin e moisturizer’ শ্যূট করে না। তাই যে ব্রান্ডের যেটা শ্যূট করে সেটাই কিনুন।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *