রূপচর্চা হবে এবার মৌসুমী ফল ব্যবহার করে

মৌসুমী ফল কেনার সময় একটু বেশি করেই কিনুন। খাবারে ফলের যেমন আবশ্যকতা রয়েছে তেমনি ফল দিয়ে আপনি সেরে নিতে পারে আপনার দৈনন্দিন রূপচর্চাটুকু। আসুন জেনে নিই কোন ফল দিয়ে কোন ধরনের রূপচর্চা করবেন।রূপচর্চা

রূপচর্চা হবে এবার মৌসুমী ফল ব্যবহার করে

ডাব

চুলের জন্য যেমন নারিকেল, ত্বকের জন্য তেমনি উপকারী কচি ডাব। প্রতিদিন দুটো ডাবের জল খেলে করলে কমনীয়তা বাড়ে ত্বকের। নিয়মিত কচি ডাবের জল দিয়ে মুখ ধুলে বসন্তের দাগও দূর হয়।

শুধু বসন্ত নয়, ব্রনের দাগও দূর করা যায় ডাবের জলে ধুয়ে। একটু তুলা ডাবের জলে ভিজিয়ে মুখে লাগান। শুকোতে দিন। তারপর হালকা ম্যাসাজ করুন। এতে মুখে সুন্দর উজ্জ্বল ভাব আসবে। ত্বক হবে কোমল ও মসৃণ। ডাবের জল দিয়েও তৈরি করে রাখতে পারেন বরফ।

আনারস

রূপচর্চা করতে আনারস কার্যকারিতা অপরিসীম। আনারস ত্বকের মৃত কোষ, ধুলাবালি ও তেল সহজেই বিদায় করে। আনারসের স্ক্রাব তৈরি করে ব্যবহার করতে চাইলে চার টুকরো তাজা আনারস, আধা কাপ টিনজাত আনারস এবং তিন চা চামচ জলপাই তেল একত্রে ব্লেন্ড করে মাস্ক তৈরি করুন।

পড়ুন  উজ্জ্বল লাবন্যময় ত্বকের যত্নে ১৫টি কার্যকরী টিপস!

মুখে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলবেন। আনারস, লেবু ও কমলার রস একসঙ্গে মেশান। সঙ্গে নিন অল্প ময়দা। পেস্টটি মুখে লাগান। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

আপেল

রূপচর্চা করতে আপেল কার্যকারিতা অপরিসীম। মুখের চামড়ায় ভাজ পড়া ও পিগমেন্টেশনের সমাধানে আপেল খুব কার্যকরী একটি ফল। শুষ্ক ত্বকের জন্য ১-২ টি আপেল বেটে তাতে ১-২ চামচ লেবুর রস, সামান্য শসার রস আর একটি ডিমের কুসুম একত্রে মিশিয়ে ২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এটি ব্যবহারে ত্বকের শুষ্কতা কমে আর্দ্রতা বজায় থাকবে আর ত্বক মসৃণ কোমল হবে।

কলা

Loading...

রূপচর্চা করতে কলা কার্যকারিতা অপরিসীম। কলা এমন একটি ফল যা আপনি সারা বছরই পাবেন। পাকা কলা, টক দই, জলপাই তেল, মধু একত্রে মিশিয়ে মাথার ত্বকে এবং চুলে লাগিয়ে শুকিয়ে গেলে শ্যাম্পু করে নিন। চুল ঝরঝরে মসৃণ হবে। মুখের কালো দাগ দুর করতে পাকা কলা, মধু, গ্লিসারিন আর ডিমের সাদা ভাগের মিশ্রণের মাস্ক ১৫ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

কমলালেবু

খুশকি দূর করতে মাথার ত্বকে কমলালেবুর রস ব্যবহার করুন। সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর কমলালেবুর রসের সঙ্গে গোলাপজল ও মধু মিশিয়ে তুলা দিয়ে নিয়মিত মুখে লাগালে মুখের রুক্ষ ভাব কমে যাবে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে ও ত্বকের কোমলতা বাড়বে।

পড়ুন  জেনেনিন দ্রুত স্ত্রীর বীর্যপাত ঘটানোর উপায়

পেঁপে

রূপচর্চা করতে পেঁপে কার্যকারিতা অপরিসীম। পাকা পেঁপে বলিরেখা ও ম্লান ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। পাকা পেঁপে সামান্য দুধ ও লেবুর রসের সঙ্গে চটকে মুখ ও গলায় নিয়মিত লাগান, ত্বকের ক্লান্তি ভাব কেটে যাবে ।

শসা

চোখের ক্লান্তি ভাব ও ডার্ক সার্কেল দূর করতে শসার ব্যবহারের কথা আমরা প্রায় সবাই জানি। ত্বকের পুষ্টি বাড়াতে শসা কুড়ে তাতে দই ও ওটমিল মিশিয়ে মুখে ও গলায় লাগিয়ে নিন। মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

তরমুজ

রূপচর্চা করতে তরমুজ কার্যকারিতা অপরিসীম। স্কিন টোন লাইট করতে এবং ত্বকের আর্দ্রতা বাড়াতে তরমুজের রসের সংগে শসার রস মিশিয়ে বানানো ফেসপ্যাক ১০ মিনিট করে নিয়মিত ব্যবহার করুন।

আঙ্গুর

মুখের ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে আঙ্গুর খুব উপকারী। মুলতানি মাটি, আঙ্গুরের রস, গোলাপজল ও লেবুর রস একত্রে মিশিয়ে নিজেই বানিয়ে নিন নিজের ফেসপ্যাক আর হয়ে উঠুন দীপ্তিময় সুন্দর ।

মাল্টা

যে কোনো ত্বকের পক্ষে উপকারী একটি ফল। খুব অল্প সময়ের মধ্যে ত্বকের নির্জীব ভাব কাটিয়ে দিতে সক্ষম।

কদবেল

মেসতার জন্য কার্যকর একটি ফল। আর একটি গুণ হলো- ক্লিনজার হিসেবেও খুব ভালো কাজ করে।

পড়ুন  মেকআপ করার কিছু সহজ ট্রিকস জেনে নিন

সারা বছরের মৌসুমী ফলের যথাযথ ব্যবহার যেমন আপনার স্বাস্থ্যকে রাখবে সুন্দর আর ত্বককে করে তুলবে দীপ্তিময়।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *