লিকুইড ফাউন্ডেশন তৈরি করুন নিজেই

মেকাপ এর খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান হল ফাউন্ডেশন । আপনি খুব সহজেই বাসায় বসেই তৈরি করে নিতে পারেন লিকুইড ‘ফাউন্ডেশন’(Foundation)। এটি আপনি বাজার থেকে যেমন সহজেই কিনতে পারবেন, সেরকম কতগুলো খুব সাধারণ উপাদান দিয়ে নিজেই তৈরি করে নিতে পারেন লিকুইড ফাউন্ডেশন।ফাউন্ডেশন

লিকুইড ফাউন্ডেশন তৈরি করুন নিজেই

লিকুইড ফাউন্ডেশন তৈরি করার জন্য যা যা লাগবেঃ

ময়েশ্চারাইজার ( আপনার স্কিনে সুট করে এমন একটি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। আপনার স্কিন ড্রাই বা মিক্সড স্কিন হলে যেকোনও ময়েশ্চারাইজিং লোশন ব্যবহার করতে পারেন। আপনার স্কিন তৈলাক্ত হলে , ময়েশ্চারাইজার নির্বাচন করার ক্ষেত্রে ক্রিম বেসড ফর্মুলা এড়িয়ে চলুন। আপনি ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার বা অন্য যেকোনো ময়েশ্চারাইজার যা আপনার স্কিনে সুট করে, ব্যবহার করতে পারবেন ।)

বিবি বা সিসি ক্রিম ( বিবি বা সিসি ক্রিম ব্যবহার করার বাপারটি একেবারেই অপশনাল। আপনার স্কিনে খুব ভালো সুট করে এমন যেকোনো বিবি বা সিসি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। বাজারে এখন যে বিবি বা সিসি ক্রিম গুলো পাওয়া যাচ্ছে , সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলঃ রিমেল এর নাইন ইন ওয়ান স্কিন পারফেক্টইং সামার মেকাপ ,গারনিয়ার এর স্কিন রিনিউ মিরাকল স্কিন পারফেক্টর , ম্যাক এর প্রেপ এন্ড প্রাইম বিউটি বাম , মেইবিলিন এর ক্লিয়ার স্মুথ মিনারেলস বিবি ক্রিম ইত্যাদি ।)

ফেস কমপ্যাক্ট বা মিনারেল পাউডার ( আপনার স্কিন টোনের কালার এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কমপ্লেক্সন ব্যবহার করুন। যদি কমপ্যাক্ট না থাকে, তবে হাই ডেফিনিশন পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। কমপ্যাক্ট না থাকলে মিনারেল পাউডারও ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে যে প্রোডাক্টগুলো ব্যবহার করতে পারেন সেগুলো হলঃ রেভলন কালার স্তে প্রেসড পাউডার , ম্যাক এর স্টুডিও ফিক্স পাউডার প্লাস ফাউন্ডেশন আপনার ‘ত্বক’(Skin) তৈলাক্ত হলে, ম্যাক এর মিনেরালাইজ কমপ্যাক্ট পাউডার, বুরজয়েস প্যাস্টেল টিলেন্ত এসেনশিয়াল প্রেসড পাউডার ব্যবহার করতে পারেন । )

এসপিএফ লোশন ( গরমকালে ফাউন্ডেশন তৈরি করার ক্ষেত্রে এসপিএফ লোশন ব্যবহার করতে পারেন। শীতকালে এসপিএফ লোশন ব্যবহারের দরকার নেই। বুটস এর সলতান সানস্ক্রিন লোশন টি ব্যবহার করতে পারেন ।)

বিউটি সিরাম ( যেকোনো ব্র্যান্ডের সিরাম ব্যবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই এমন কোনও সিরাম ব্যবহার করবেন যা আপনার ত্বকে সুট করে। সিরাম ব্যবহারের অভ্যাস না থাকলে সিরাম বাদ দিতে পারেন। এক্ষেত্রে , লাকমি , পনডস এর ফ্ললেস হোয়াইট এবং লোটাস এর সিরাম ব্যবহার করতে পারেন । )

ববি ক্লিপ বা চা চামচ

একটি পরিষ্কার পাত্র

ফাউন্ডেশন সংরক্ষণ করার জন্য একটি ছোট জার বা বোতল ( এক্ষেত্রে পুরনো ফাউন্ডেশনের বোতল ও ব্যাবহার করতে পারেন )

 টুথপিক বা কটন বার

প্রণালীঃ

প্রথমে পরিষ্কার একটি পাত্রে ময়েশ্চারাইজার, এসপিএফ লোশন, বিবি বা সিসি ক্রিম এবং বিউটি সিরাম নিন। এর মধ্যে ফেস কমপ্যাক্ট একটি ববি ক্লিপ এর সাহায্যে খুঁচিয়ে কিছুটা তুলে নিতে পারেন অথবা চা চামচের সাহায্যে স্কুপ করে তুলে নিতে পারেন। যদিও অনেকেই কমপ্যাক্ট থেকে ববি ক্লিপ এর সাহায্যে পাউডার উঠিয়ে নিয়ে থাকে। তবে চামচ ব্যবহার করে সহজেই স্কুপ করে তুলে নেয়া যাবে পাউডার এবং এতে করে প্রেসড পাউডার এর প্যালেটেও দাগ কম পড়বে। প্রেসড পাউডার বা কম্প্যাক্ট না থাকলে মিনারেল পাউডারও ব্যবহার করতে পারেন। মিনারেল পাউডার ব্যবহার করার সুবিধা হল যে এটি লুজ পাউডার হিসেবেই থাকে এবং তাই ব্যবহার করাটা সুবিধাজনক। মিনারেল পাউডার , প্রেসড পাউডার বা কম্প্যাক্ট এই তিনটার যেকোনও একটি পাউডার ব্যবহার করতে হবে তবে সেটিং পাউডার বা ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার ব্যবহার করবেন না। এরপর সবগুলো উপাদান একসাথে টুথপিক বা কটন বার এর সাহায্যে খুব ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেল আপনার লিকুইড ফাউন্ডেশন। এভাবে তৈরি করা ‘লিকুইড’(Liquid) ফাউন্ডেশন আপনি ২৫-৩৫ দিনের মত সংরক্ষণ করতে পারবেন। সংরক্ষণ করার জন্য একটি ছোটো জার বা বোতল ব্যবহার করতে পারেন। পুরনো ফাউন্ডেশনের বোতলও ব্যবহার করতে পারেন। এক্ষেত্রে বোতল টি অবশ্যই পরিষ্কার করে ব্যবহার করবেন। অনেকেই পুরনো ফাউন্ডেশন এর বোতল পরিষ্কার না করে সরাসরি ব্যবহার করেন। এটির কোনও দরকার নেই কেননা আপনি যে ফাউন্ডেশনটি তৈরি করলেন তার উপাদান এবং কভারেজ আপনার পুরনো ফাউন্ডেশনের সাথে ম্যাচ নাও করতে পারে।

এই ফাউন্ডেশনটি বানাতে আপনি যে কমপ্যাক্ট বা মিনারেল অথবা প্রেসড পাউডার ব্যবহার করেছেন, ফাউন্ডেশনটি লাগানোর পর একই পাউডার ব্যবহার না করে অন্য একটি ‘পাউডার’(Powder) যদি আপনি ব্যবহার করেন সেটিং পাউডার হিসেবে যা আপনার স্কিনের সাথে মানানসই তবে আপনি আরও ভালো কভারেজ পাবেন।

অনেকেই আছেন যাদের একাধিক ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে হয় ফুল কভারেজ এর জন্য। তারা ছোটো একটি বোতলে যে ফাউন্ডেশন গুলো তারা ব্যবহার করে থাকেন, সেগুলো পরিমাণ মতো নিয়ে মিশিয়ে নিতে পারেন এবং তার সাথে অল্প পরিমাণে মিনারেল পাউডার মিশিয়ে সংরক্ষণ করতে পারেন।

Loading...

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *