ইউজড গ্রিন টি ব্যাগ কি ফেলে দিচ্ছেন?

গ্রিন টি পানের উপকারিতা সম্পর্কে আজ পর্যন্ত কতবার কতকিছু শুনেছেন বলুন তো? আর এত পজিটিভ গুনের জন্য বাংলাদেশে আস্তে আস্তে এটি অনেক বেশি পপুলারও হয়ে উঠছে। পাঠকদের অনেকেই আছেন যারা প্রতিদিন ২-৩ কাপ গ্রিন টি খান, তাই না? কিন্তু একটা প্রশ্ন, আপনার ‘ইউজড’(Used) টি ব্যাগটা কি সাথে সাথেই ফেলে দেন?কারণ আজ আপনাদের এই ইউজড ব্যাগ দিয়েই খুব সহজ কিছু ত্বক ও চুল পরিচর্যার উপায় বলে দেব… জানি ট্রাই করার পর আর কোন টি ব্যাগ থেকে একদম আপনার যাকে বলে- ‘মানিস অরথ’ বের না করে ছাড়বেন না…গ্রিন টি

ইউজড গ্রিন টি ব্যাগ কি ফেলে দিচ্ছেন?

অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগতে পারে ইউজ করা গ্রিন টি ব্যাগ আসলেই কোন উপকার করবে কিনা… তাদের জন্য বলছি গ্রিন টি স্কিনে টপিকাল অ্যাপ্লিকেশনে তার অ্যান্টি অক্সিডঅ্যান্ট ক্ষমতার প্রমান রাখতে সক্ষম। স্কিনে গ্রিন টি’র ব্রাইটেনিং, অ্যান্টি এজিং, সেন্সিটিভিটি রিডিউসিং ক্যাপেবিলিটিজের জন্য ইউজড গ্রিন টি অনেককাল আগে থেকেই চীন এবং জাপানের স্কিন এবং হেয়ার কেয়ার রুটিনের অংশ।

তো চলুন দেখে নিই, আপনার কাপের পাশে অবহেলায় পড়ে থাকা টি ব্যাগটির ক্ষমতা…

 

১। ফোলা চোখ এবং ডার্ক সার্কেলের সমসসায়:

আমি নিজেই এই সমস্যার ভুক্তভোগী… আপনারা তো জানেন ঘুম ঠিকমত না হলে অথবা অযত্নে বিভিন্ন হেলথ প্রবলেমে চোখের নিচের ফোলাভাব আর ডার্ক সার্কেল পুরো ফেসকে কতটা টায়ার্ড একটা লুক দেয়! এই সমস্যায় আমি Green tea ব্যাগ ব্যবহার করে খুবই ভালো ফল পেয়েছি। কী করবেন জেনে নিন-

– দিনে ২-৩ কাপ ‘গ্রিন টি’(Green tea) খেলে সব ব্যাগ গুলো পরিস্কার পাত্রে ফ্রিজে রেখে দিন।

– এরপর রাতে ঘুমাতে যাবার আগে অথবা বাইরে রোদ থেকে এলে যদি খুব বেশি চোখে স্ট্রেস পড়ে তখন টি ব্যাগ গুলো বের করে চোখের উপরে দিয়ে ৫-১০ মিনিট রেখে দিন।

– এভাবে রোজ করুন, হোপফুলি ২-৩ সপ্তাহেই চোখের নিচের ত্বকে পরিবর্তন দেখবেন

২। সহজেই তৈরি করুন মাইলড ফেস স্ক্রাব:

এক্ষেত্রে আপনাকে একদম ফ্রেশ ইউজ করা টি ব্যাগ ইউজ করতে হবে।

– একটি টি ব্যাগ থেকে সব টুকু পাতা বের করে নিন। তাতে ২ চিমটি চিনি মেশান, এবার পরিস্কার মুখে পানির ঝাপটা দিয়ে এই স্ক্রাব মুখে লাগিয়ে খুবি হাল্কা হাতে ১ মিনিট ‘ম্যাসাজ’(Massage) করুন। তারপর পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

– যাদের স্কিন খুব পাতলা ও সেনসিটিভ তারা চিনি মেশাবেন না। শুধু গ্রিন টি পাতাই ইউজ করুন।গ্রিন টি

৩। ইজি টু মেক ব্রাইটেনিং ফেস মাস্ক:

– একটি ফ্রেশ ইউজ করা টি ব্যাগের ভেতরের পাতার সাথে এক চামচ চালের গুঁড়া এবং এক চিমটি হলুদ গুঁড়া মেশান। (যাদের স্কিন ড্রাই তারা এক চা চামচ মধু মেশাতে পারেন)। এরপর এর সাথে ২ তেবিল চামচ গোলাপ জল অথবা পানি মেশান।

– এবার এই ফেস প্যাকটি পরিস্কার মুখে মেখে ১৫ মিনিট রাখুন। তারপর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।

– একইভাবে আপনি তৈরি করা গ্রিন টি (লিকুইড) এর সাথে চালের গুঁড়া, হলুদ মিশিয়েও ফেসপ্যাক তৈরি করতে পারেন।

দুটি পদ্ধতিতেই রেগুলার ইউজে আপনার ট্যান কাটবে এবং স্কিন গ্লোইং হবে।

৪। শাইনি এবং সিল্কি চুলের জন্য:

এই টিপসটি প্রতিবার শ্যাম্পু করার পর ইউজ করলে নিজের চুলের শাইন দেখে নিজেই অবাক হবেন। আধা মগ গরম পানিতে ২ টি গ্রিন টি ব্যাগ দিয়ে ঘণ্টা খানেক রেখে দিন। এবার গোসলের পর ঠাণ্ডা গ্রিন টি আপনার পুরো চুলে ঢালুন। এভাবে ১০ মিনিট থাকুন। এরপর ভালোভাবে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে Green tea চুল থেকে ধুয়ে ফেলুন। ব্যাস হয়ে গেল…

৫। সান ট্যান আর সান বার্নের জন্য:

অনেকে আছেন বছরের এই সময়টার চড়া রোদে ৫ মিনিটের জন্য বেরলেই যাদের স্কিন লালচে হয়ে জ্বালাপোড়া করে। এই টিপসটি সেই সব সান সেনসিটিভ স্কিনের জন্য।

– প্রতি সপ্তাহের জন্য গ্রিন টি তৈরি করে ফ্রিজে আইস কিউব করে রাখুন।

– বাসায় আসার সাথে সাথে মুখ ঠাণ্ডা পানি ও ফেসওয়াশ দিয়ে ক্লিন করে ফেলুন। এর পর ফ্রিজে রাখা গ্রিন টি’র আইস কিউব ১ টা পুরো ফেসে হাল্কা হাতে রাব করুন। দেখবেন রেগুলার ব্যবহারে ত্বকের লালচে ভাব, জ্বালাপোড়া এবং র‍্যাশ অনেক কমে যাবে।গ্রিন টি

৬। মুখের দুর্গন্ধ এবং হাইজিনের জন্য:

যারা দাতের সমস্যা এবং মুখের দুর্গন্ধের সমস্যায় ভোগেন তাদের জন্য প্রতিদিন ২ বার গ্রিন টি দিয়ে কুলি করা মাস্ট। গ্রিন টি খাওয়ার হ্যাবিট থাকলে লাস্ট সিপ নিয়ে ৩০ সেকেন্ড কুলি করে ফেলে দিন। এর অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল অ্যাকশন মুখের জীবাণু ধ্বংস করে দুর্গন্ধের সমস্যা কমাতে সাহায্য করবে।

৭। পায়ের বিরক্তিকর দুর্গন্ধ প্রতিরোধে:

অনেক পাঠকই নিশ্চয়ই এই বিরক্তিকর এবং লজ্জাজনক সমস্যায় মাঝে মাঝেই পড়েন! এই সমস্যার সমাধানে গ্রিন টির কার্যকারিতা দেখলে অবাক হবেন। যাদের পায়ের দুর্গন্ধ সমস্যা নিয়ে কিছু কয়ারা ইচ্ছা আছে তারা সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন একটা গামলায় উষ্ণ গরম Green tea  অথবা ৪-৫ টা ইউজ করা গ্রিন টি ব্যাগ আবার গরম পানিতে ভিজিয়ে সেই পানিতে পা দুবিয়ে রাখুন প্রায় ১০ মিনিট। পায়ের ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ কমে দুর্গন্ধের প্রকপ একটু হলেও কমবে।

আশা করি প্রয়োজনমত সবাই টিপসগুলো ট্রাই করে দেখবেন। আর একটা কথা, Green tea ব্যাগ যখনি স্কিন অথবা হেয়ারে ইউজ করবেন সেটা খুবি হাইজিনিকভাবে হ্যান্ডল করবেন। এমন যেন না হয় যে গ্রিন টি ব্যাগ রান্না ঘরে ফেলে রেখেছেন, এই আর্টিকেল দেখে সেটা দিয়েই কিছু একটা ট্রাই করলেন। এতে কিন্তু রেজাল্ট উল্টো খারাপই হবে। সো, যাই ট্রাই করুন না কেন হাইজিনিক ওয়েতে করবেন কিন্তু…

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About পূর্ণিমা তরফদার

আমি পূর্ণিমা তরফদার আপনার ডক্টরের নতুন রাইটার। আশাকরি আপনার ডক্টরের নিয়ামিত পাঠকরা আমাকে সাদরে গ্রহণ করবেন ও আমার পোষ্টগুলো পড়বেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *