cool hit counter

১ দিনেই সারিয়ে তুলুন ব্রণ

ব্রণের সমস্যা এমন একটি সমস্যা যা ছেলে বা মেয়ে উভয়েরই হয়ে থাকে। যাদের তৈলাক্ত ত্বক তাদের ব্রণ সমস্যাটি বেশি হয়ে থাকে। আর একবার ব্রণ হলে সেই ব্রণ সহজে সারতে চায় না। ব্রণ সমস্যাটি নিয়ে তাই তরুণ-তরুণীদের মধ্যে সব সময় উৎকণ্ঠার মধ্যে থাকে। কিন্তু কিছু উপায় আছে যা দ্বারা খুব সহজে (মাত্র ১৫ ঘণ্টার) মধ্যে ব্রণ দূর করা যায়। আসুন তাহলে খুব দ্রুত ব্রণ দূর করার কিছু উপায় জেনে নেয়া যাক।

ব্রণ

ব্রণের দাগ দূর করার উপায়

১। দারুচিনি এবং মধুর পেষ্ট

দারুচিনি এবং মধুতে প্রাকৃতিক অ্যান্টিমাক্রোবিয়াল উপাদান আছে। এই দুটি মিলে ব্রণের জীবাণু ধ্বংস করে দেয়। ১ চা চামচ দারুচিনি পাউডার এবং ২ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে পেষ্ট করে নিন। এবার এটি ব্রণের ওপর লাগান। শুকানোর পর ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন ব্রণ অনেকটা শুকিয়ে বা ছোট হয়ে আসছে।

২। পেঁপের পেষ্ট
পেঁপে ত্বকের মৃত কোষ দূর করে এবং মুখের অতিরিক্ত চর্বি কমিয়ে থাকে। এক টুকরো পেঁপে নিয়ে বীচি ফেলে পেষ্ট করে নিন। এই পেষ্ট ব্যবহারের আগে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে করে আপনার মুখের ছিদ্রগুলো খুলে যাবে।এবার পেঁপের পেষ্ট ব্রণে লাগিয়ে ফেলুন। শুকানোর পর কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধয়ে ফেলুন। এছাড়া, ৩টি স্ট্রবেরি পেষ্ট এবং দুই চাচামচ মধু দিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। মুখ কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। এবার স্ট্রবেরি ও মধুর প্যাক লাগান। ৩০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

পড়ুন  ব্রণ এবং ব্রণের দাগ দূর করার সহজ উপায়

৩। ডিমের সাদা অংশ
ব্রণ দূর করার সবচেয়ে সহজ উপায় হল ডিমের সাদা অংশের ব্যবহার। ডিমের সাদা অংশে ভিটামিন এবং অ্যামিনো অ্যাসিড আছে যা ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে। ৩টি ডিমের সাদা অংশ নিন। এবার খুব ভাল করে ফাটুন। তারপর সাদা অংশটুকু ব্রণে লাগান।
শুকিয়ে আবার লাগান। এভাবে ৪ বার ডিমের সাদা অংশ ব্যবহার করুন। ২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

৪। নিম
নিমের তেল এবং নিম পাউডারে অ্যান্টিব্যাক্টিরিয়াল উপাদান আছে। প্রথমে কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এক টুকরো তুলোর বল নিমের তেলের মধ্যে ভিজিয়ে নিন। এবার এটি ব্রণের ওপর ব্যবহার করুন। নিমের তেলের সাথে নিমের পাউডার দিয়ে পেষ্ট তৈরি করে নিতে পারেন। এটি সারা রাত মুখে লাগিয়ে রাখুন। সকালে ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।