cool hit counter
Home / প্রশ্ন ও উত্তর / আমার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছে, কিন্তু ওকে কোন মতেই রাজি করানো গেলনা…

আমার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছে, কিন্তু ওকে কোন মতেই রাজি করানো গেলনা…

প্রশ্নঃ আমার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছে, কিন্তু ওকে কোন মতেই রাজি করানো গেলনা। ভেবে পাচ্ছিলামনা কি ভুল ছিল আমার। মানষিক ভাবে খুব ভেঙ্গে পরলাম। ভেঙ্গে গেল তিল তিল করে গড়া ৭ বছরের স্বপ্ন।

আমার

আমি যখন ক্লাস ৮ম শ্রেণীতে পড়ি তখন প্রেম করব ভাবি। সেই সুবাদে ফ্রেন্ড আমাকে একটা মেয়ে দেখায়। মেয়েটি তখন ৪র্থ শ্রেণীতে পড়ে। আমি হেসে বললাম এইটুকু মেয়ে ও প্রেমের কি বোঝে? এভাবেই ২ বছরে আস্তে আস্তে মেয়েটিকে ভালবাসতে শুরু করলাম। একদিন সামনে দাড়িয়ে আই লাভ ইউ বললাম। কিছু না বলে চলে গেল। ৩ মাস পরে হ্যা বলল। দেখা করতে আসলো নদীর পারে। এটা জানতে পেরে প্রচুর মেরেছিল ওর মা। আমি কয়েক দিন দেখা করলাম না ভাবলাম দেখা হলে মারের কথা মনে করে আমাকে আবার না বলে দিতে পারে। ৭ দিন পর সামনে গিয়ে বললম কি ব্যথায় ভালবাসা কমে গেছে? বলল না বেড়ে গেছে। আরো বলল এ কদিন যেমন সামনে আসেননি তেমনি আরো ১০ দিন আসবেন না কারন আমার পরীক্ষা। ১০ দিন পরে ওদের বাসার সামনে গেলাম দেখলাম তালা ঝুলছে ভেবেছিলাম ঈদের ছুটি কাটাতে বেড়াতে গেছে হয়ত। কিন্তু আর কোনদিন ফিরে আসল না । জানতে পারলাম ওরা এ শহর ছেড়ে চলে গেছে। প্রায় একবছর পর ওর বোনের নাম্বার জোগাড় করলাম। ফোন দিলাম। ওকে ডেকে দিল কিন্তু ও আমাকে চিনতে পারলো না। ওর আপু নাম্বার পাল্টে ফেলল। আর কোন খোজ পেলামনা ওদের। তবু আমি আশা ছাড়লাম না। তার তিন বছর পর আবার আপুর নাম্বার পেলাম । কথাও হত আপুর সাথে। কোন উপায় না দেখে তাকেই বললাম আপু আমি আপনার বোন কলি কে ভালবাসি। একথা বলার পর খুব অপমান করল। বলল কমন সেন্স নেই বড় বোন কে ছোট বোনের কথা বলছি!! ৩ দিন পরে আমার কাছে একটা আননোন ফোন আসলো রিসিভ করতেই সেই চিরচেনা কন্ঠসর।

-চিনতে পেরেছ আমাকে?
-যাকে ভালবাসি তার কন্ঠ ভুলি কি করে!
-নাম বল দেখি ।
-কলি !!

ওর বাসার কেউ জানতো না এ বেপারে। হটাত ও ফোন করা কমিয়ে দিল ।আমি ভাবলাম হয়ত চাপে আছে তাই ফোন দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেনা। ওর আপু হটাত ফোন দিয়ে জানতে চাইলো আমি ওকে ভালবাসি কিনা, আমি ওকে বিয়ে করব কিনা? আমি বললম হ্যা! বলল মুরুব্বী কাউকে দিয়ে বিয়ের প্রস্তাব পাঠাও। মা কে দিয়ে প্রস্তাব পাঠালাম। সবাই রাজি হল। আমার বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছে, কিন্তু ওকে কোন মতেই রাজি করানো গেলনা। ও ঢাকায় আঁকাশ নামের একটা ছেলেকে ভালবাসে বিয়ে করতে হলে আঁকাশ কেই করবে। ভেবে পাচ্ছিলামনা কি ভুল ছিল আমার। মানষিক ভাবে খুব ভেঙ্গে পরলাম। ভেঙ্গে গেল তিল তিল করে গড়া ৭ বছরের স্বপ্ন।

প্রশ্নঃ আমি যখন আমার গার্ল ফ্রেন্ড এর সাথে কথা বলি আমার পুরুষাঙ্গ দিয়ে একপ্রকার পানি বের হয় এটা কি কোন সমস্যা ?

কিছু দিন পরে ফেসবুকে একটা মেয়ের সাথে পরিচয়। ফেসবুকে মেয়েদের ব্যাপারে নেগেটিভ কমেন্টস করতাম তখন।মেয়েটি আমাকে ফোন করে জানতে চাইলো আমি মেয়েদের হেট করি কেন? বললাম কারন টা । শুনে খুব দুঃখ প্রকাশ করল। মিথিলা সুযোগ পেলেই আমাকে ফোন করত। ভালবাসার প্রস্তাব ওই আমাকে প্রথম জানালো। বললাম আমি প্রেমে বিশ্বাস করিনা।ভালবাসলে সোজা বিয়ের পিড়িতে বসতে হবে বিয়ের পরে প্রেম। পরিচয়ের ৭ দিনের মাথায় ওকে যশোর থেকে তুলে এনে বিয়ে করলাম। ওর মাকে ওর ফোন থেকে ফোন করে বললম আপনার মেয়ে ভাল আছে ওকে খোজার ব্যর্থ চেস্টা করবেন না। আমি ওর হ্যাজবেন্ড। সময় হলে পরিচয় ঠিকানা দিব। আমার শ্বাশুরি আমাকে বলল আনুষ্ঠানিক ভাবে তোমাদের বিয়ে দিব। এই মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে আমার বউ কে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখল । তার ১৪ দিন বাদে আমি আবার সু কৌশলে বউ নিয়ে পালালাম। এবার ওর মা আমার নামে নারী ও শিশু আপহরন মামলা ঠুকে দিল। কোর্টে ওর স্টেট মেন্টের কোন মূল্য নেই কারন ওর বয়স ১৬ বছর ২ মাস। তাই পালিয়ে রইলাম ৫ মাস। এই ৫ মাসে সবাই বলল একটা বেবি নিতে ।আমার মত ছিলনা কিন্তু আমার বউ বাধ্য করল বেবি নিতে। ওর পেটে বেবীর বয়স ৩ মাস ৭ দিন তখন ও বলল আমাদের এখন বাচ্চা নেওয়ার সময় না তাই ওকে নস্ট করে ফেলবো।আমি বললম এখন আর তা সম্ভব না। তার দুইদিন পরে ওকে নিয়ে কোটে দাড়ালাম। ও জজ কে বলল আমি সেচ্ছায় আমার স্বামীর কাছে এসেছিলাম। কিন্তু এখন আমার মা বাবার সাথে ফেরত যেতে চাই। তারপরে আজ ৩ মাস কেটে গেল ওর কোন খবর নেই। আমার বাচ্চাটা ও রেখেছে নাকি নস্ট করে ফেলেছে তাও জানিনা। জানবই বা কি করে ও আমার ফোন ধরেনা। আমি গেলেও দেখা করেনা। কি করব আমি এখন??

 

অাপনার ডক্টরের উত্তরঃ আপনার ডক্টরের নিয়মিত পাঠকদের কাছে ভালো কোন পরামর্শ থাকলে প্রশ্নকারীকে উত্তর দিয়ে সাহায্য করবেন। ধন্যবাদ

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Check Also

আমার

আমার শিক্ষিকাকে আমার খুব ভালো লাগত, তাই আমি উনাকে বিয়ের প্রস্তাব দিই….

প্রতিদিনই আপনার ডক্টর অনলাইন বাংলা স্বাস্থ্য টিপস পোর্টালের ফেসবুক ফ্যানপেজে অনেক ম্যাসেজ আসে। সব ম্যাসেজর …