cool hit counter

অল্প সময়েই ত্বক দাগহীন উজ্জ্বল করে তোলার ভিডিও দেখুন

সারা মাস রোজা, তারপর ঈদ এর কারনে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য অনেকটাই মলিন হয়ে গেছে। ঈদ পর আবার কর্মক্ষেত্রে ফেরত যেতে হবে এই ক্লান্ত ত্বক নিয়েই। না, উপায় আছে একটি। ত্বকের দাগ, মলিনতা দূর করে ফেলুন তিনটি ধাপে। চলুন দেখে নিই প্রক্রিয়াটি।

ত্বক

আপনি ত্বক এর যত্ন দিনে নিচ্ছেন কী রাতে, তাতে কিছু আসে যায় না। প্রতিদিন তিনটি কাজ করা জরুরী। তা হলো-

– ক্লিনজিং
– টোনিং
– ময়েশ্চারাইজিং

১) ক্লিনজিং
আপনি যদি মেকআপ করে থাকেন, তাহলে আপনি জানেন যে পরিষ্কার ত্বকেই মেকআপ ভালো লাগে। আর মেকআপ না করলেও ত্বক পরিষ্কার থাকাটা বাঞ্ছনীয়। প্রতিদিন বাড়ি ফিরে সবটা মেকআপ তুলে ফেলুন, আলসেমি করবেন না। মেকআপ না থাকলেও সারাদিন ত্বক অনেক ধুলোবালির মধ্য দিয়ে যায়। এ কারণে বাড়ি ফিরে ক্লিনজিং করাটা জরুরী।

এর জন্য যা যা করতে হবে –
– পরিমাণমতো ক্লিনজিং মিল্ক মুখে ম্যাসাজ করে নিন ৩০ সেকেন্ড, এরপর টিস্যু দিয়ে মুছে ফেলুন। এই কাজটির পুনরাবৃত্তি করুন আরেকবার
– চোখের মেকআপ সরিয়ে ফেলার জন্য মেকআপ রিমুভাল প্যাড ব্যবহার করতে পারেন
– এরপর ব্যবহার করুন সাধারণ একটি ফেসওয়াশ
– সপ্তাহে ২/৩ বার স্ক্রাব বা এক্সফলিয়েটিং ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন
– মুখ মোছার জন্য টিস্যু ব্যবহার করুন, টাওয়েলে অনেক ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে
– হালকা কোনো ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন

২) টোনিং
এ কাজটি বেশীরভাগ মানুষই করেন না। তবে টোনিং সাধারণত ক্লিনজিং এরই একটি অংশ। টোনার একটি কটন প্যাডে নিয়ে সারা মুখ মুছে নিন। চোখের আশেপাশে ব্যবহার করবেন না। ত্বককে ময়েশ্চারাইজার শোষণ করার জন্য প্রস্তত করবে এই কাজটি।
৩) ময়েশ্চারাইজিং
আপনার ব্যবহৃত ময়েশ্চারাইজার মুখ ও ঘাড়ের ত্বকে দিন এবং ওপরের দিকে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে মাসাজ করুন। তৈলাক্ত ত্বকের কারণে অনেকের ব্রণ হয় এবং তারা মনে করেন ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারে তাদের ত্বকের অবস্থা আরও খারাপ হবে। কিন্তু তা মোটেই ঠিক নয়। তারা ব্যবহার করতে পারেন হালকা ময়েশ্চারাইজিং লোশন অথবা জেল। ভারি ক্রিম বা তেল ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। ঠোঁটে ব্যবহার করতে পারেন ভ্যাসেলিন।

দেখে নিতে পারেন ভিডিওটি-

নিয়ম করে এই কাজগুলো করলে আপনিও ত্বকে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন দেখতে পারবেন। এগুলোর পাশাপাশি ব্যবহার করতে পারেন আই ক্রিম অথবা সিরাম, তবে অবশ্যই ময়শ্চারাইজারারের পরে। আর হ্যাঁ, সকালে বাইরে বের হবার আগে অবশ্যই সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। যদি আপনার ত্বকে ব্রণের উপদ্রব থাকে তাহলে প্রতি রাতে অ্যাকনি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। ত্বককে সুস্থ রাখার জন্য আপনার শরীরটাকেও সুস্থ রাখতে হবে ভেতর থেকে। সুতরাং হালকা ব্যায়াম করতে পারেন। রোজা ভাঙার পর বেশি করে পানি পান করুন, ভাজাভুজি ধরণের খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। অনেকে ভাবেন ফেশিয়াল করলে ত্বক ভালো হয়ে যাবে কিন্তু তা অনেক ক্ষেত্রেই হয় না।

এই কাজগুলো করলেই আপনার ত্বক ভালো হয়ে আসবে। তবে আপনার ত্বকের সমস্যা যদি বেশি হয়, তবে অবশ্যই একজন ডার্মাটোলজিস্ট দেখান, অবহেলা করবেন না।

অল্প সময়েই ত্বক দাগহীন উজ্জ্বল করে তোলার ভিডিও দেখুন

আরো পড়ুন:

৫ মিনিটেই অপরূপা সুন্দরী হওয়ার টিপস

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন