cool hit counter

ভারতীয় জনপ্রিয় চিত্রাভিনেতা অমিতাভ বচ্চন আর বেঁচে নেই!

ভারতীয় জনপ্রিয় চিত্রাভিনেতা অমিতাভ বচ্চন আর নেই।হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মুম্বাই লিলাবতী হাসপাতালে তিনি মৃত্যরকোলে ঢলে পড়েন, তাঁর মৃত্যুতে পুরো ভারতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

অমিতাভ বচ্চন
অমিতাভ বচ্চন (অমিতাভ হরিবংশ বচ্চন) (জন্ম ১১ই অক্টোবর, ১৯৪২ এলাহাবাদ), একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচিত্র অভিনেতা। তিনি বিগ বি এবং শাহেনশাহ নামেও পরিচিত। ১৯৭০-এর প্রথম দিকে তিনি বলিউড সিনেমা জগতে “রাগী যুবক” হিসেবে জনপ্রিয়তা লাভ করেন এবং সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হয়ে ওঠেন।

অমিতাভ বচ্চন মারা গেছেন! গত ২৩ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় মারা গেছেন তিনি। মৃত্যুর কিছু ছবিসহ এমন সংবা প্রকাশ হয় হোয়াটস অ্যাপ ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে। এরপরই এ সংবাদটি ছড়িয়ে পরে সারা বিশ্বে অমিতাভ ভক্তদের মাঝে।

অথচ খোঁজ নিয়ে যানা গেছে ৭৩ বছর বয়সি অমিতাভ বচ্চন সুস্থ এবং স্বাভাবিক আছেন। আর যা ছড়ানো হয়েছে তা

নিছক গুজব। তবে কে বা কারা কোথা থেকে এমন গুজব ছড়িয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায় নি। এর আগে ২০১২ সালে এবং ২০১৫ সালে অমিতাভের মৃত্যু গুজব শোনা গিয়েছিল।

অমিতাভ বচ্চনের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘তিনি এখনো বেঁচে আছেন এবং ভালো আছেন। ইন্টারনেটে আপনারা যা দেখছেন তা বিশ্বাস করা বন্ধ করুন।’

এদিকে ইন্টারনেট দুনিয়ায় তারকাদের মৃত্যু নিয়ে গুজব নতুন কিছু নয়। এর আগে বলিউড অভিনেতা দিলীপ কুমার, শক্তি কাপুর থেকে শুরু করে হালের জনপ্রিয় গায়ক হানি সিং কেউই বাদ পড়েননি এ গুজবের হাত থেকে। কিছু অতি উৎসাহি পাগল ভক্তরাই এমন ঘটনা রটিয়ে থাকেন। আর তারাই এবার জীবন্ত অমিতাভ বচ্চনকে লাশ বানিয়ে দিলেন!

 

বচ্চন নিজের কর্মজীবনে তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং বারোটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সহ অজস্র গুরুত্বপূর্ণ পুরস্কার পেয়েছেন। ফিল্মফেয়ারের শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কারের বিভাগে তিনি সর্বাধিক মনোনয়ন পাওয়ার রেকর্ড করেছেন। অভিনয় ছাড়াও তাঁকে নেপথ্য গায়ক, চলচ্চিত্র প্রযোজক, টেলিভিশন সঞ্চালক এবং ১৯৮৪ থেকে ১৯৮৭ পর্যন্ত ভারতীয় সংসদে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবেও দেখা গেছে।

সূএ: অনলাইন

রোযাদার ব্যক্তি হস্তমৈথুন করলে কি রোযা ভেঙ্গে যাবে?

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।