cool hit counter

ক্লাস নাইনের ছেলের সাথে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছি….

প্রতিদিনই আপনার ডক্টর অনলাইন বাংলা স্বাস্থ্য টিপস পোর্টালের ফেসবুক ফ্যানপেজে অনেক ম্যাসেজ আসে। সব ম্যাসেজর উত্তর দেওয়া সম্ভব হয় না।তাই পাঠকদের কাছে প্রশ্নটির বিস্তারিত তুলে ধরা হয় (প্রশ্নকারীর নাম ও ঠিকানা গোপন রেখে)। আপনি ও আপনার সমস্যার কথা লিখতে পারেন অামদের ফেসবুক ফ্যানপেজে https://www.facebook.com/apoardoctor/ আজকের প্রশ্নঃ ক্লাস নাইনের ছেলের সাথে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছি….

সম্পর্ক

 

টেনের শেষের দিকে একদিন কোচিং-এ পড়ার সময় হঠাৎ বাইরে তাকিয়ে একজনকে দেখতে পাই, আমার চোখ সেখানে আটকে যায়। একটা মানুষ এত্ত সুন্দর হয় কীভাবে? প্রথম দেখাতেই চোখ ফেরাতে পারিনি। কিছুদিন পরে খেয়াল করি, সে আমাদের ক্লাসে আসলো। বুঝলাম সে আমাদের সাথেই পড়ে। সেদিন থেকে ওকে পছন্দ করা শুরু করে দিই। কিন্তু কিছুদিন পর জানতে পারি তার প্রেমিকা আছে। খুব কষ্ট পাই কিন্তু নিজেকে ফিরিয়ে আনতে খুব কষ্ট হয়। এদিকে আমার বাসায় বিষয়টা টের পায়। তারা জানতে চাইলে আমি সব বলে দেই। আমাকে তারা বুঝায়, আমি বুঝি যে এই পছন্দের কোন ভবিষ্যৎ নেই। কিন্তু তাও নিজেকে পুরো ফিরিয়ে আনতে আমার ২ বছর লেগে যায়। আমি তখন এইচএসসি পরীক্ষা শেষ করি, যখন আমি তার থেকে নিজেকে সরিয়ে আনতে সক্ষম হই।

 

এইচএসসির পর আমি মেডিকেলে কোচিং এ ভর্তি হই। তখন আমার পরিচয় হয় দুঃসম্পর্কের এক মামার সাথে। তার আগে একটি সম্পর্ক ছিলো কিন্তু কোনভাবে ভেঙে গিয়েছিলো। আমিও তাকে আমার পছন্দের ছেলের কথা জানাই এবং বলি, আমি ২ বছর ধরে তাকে ভালোবাসি আর এর থেকে সরে আসতে পারছিনা। তখন সে আমাকে সাপোর্ট দেয় এবং আমাকে প্রোপোজ করে। আমি প্রথমে রাজী হইনি। পরে কি ভেবে রাজী হলাম। কিন্তু কিছুদিন সম্পর্কের পরে সে বলে, তার পক্ষে সম্পর্ক রাখা সম্ভব না। তখন আমি খুব ভেঙে পড়ি। তার পরিবারের অনেকের সাথে যোগাযোগ করি। কিন্তু তাদেরও একই কথা। তারা আমাকে মেনে নিতে পারবেনা।

 

যাইহোক, অনেক ঝামেলার পরে আমাদের সম্পর্ক শেষ হয়। এই সম্পর্কের জন্য আমার জীবনযাত্রা পুরো বদলে যায়। আমার আর মেডিকেলে চান্স পাওয়া হয়না। তারপর একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হই। ভার্সিটিতে ফার্স্ট ইয়ারের সময় আমার এক মেয়ে ফ্রেন্ডের কাজিনের সাথে পরিচয় হয়। আমরা প্রথমে খুব ভালো বন্ধুত্ব করি। কিন্তু এক সময় সেও প্রোপোজ করে। আমি রাজী হই কারণ সে দেশের বাইরে থাকতো। আর আম্মু বিদেশ খুব পছন্দ করে। তাছাড়া তাদের ফ্যামিলি স্ট্যাটাস, পড়াশোনা সবই মিলে গেছিলো। তাই সব মিলে আমি গ্রহন করি।

 

প্রায় এক বছর আমাদের ভালোমত সম্পর্ক ছিলো, আমরা ফোনেই কথা বলতাম। এ বছর পরে ও বাংলাদেশে আসে এবং আমাদের দেখা হয়। আমি তার বিষয়ে খুব কনফিডেন্ট ছিলাম যে আমাদের বিয়ে হবেই। আর এজন্যই আমাদের মাঝে শারীরিক সম্পর্ক বাদে সবই হয়। আমি খুব দুর্বল হয়ে পড়ি ওর প্রতি। সেও আমাকে তেমনটাই বলে। কিন্তু ২ মাস পরে ও আবার দেশের বাইরে চলে যায়। আপু এই দুই মাসে আমরা প্রায় প্রতিদিনই দেখা করি কিন্তু সমস্যা শুরু হয় ও যাওয়ার পর থেকে। ফেসবুকে অনেকে আমার সাথে যোগাযোগ করে আর সবাই বলে ওর সাথে ওদের সম্পর্ক চলছে। শারীরিক সম্পর্কও হয়েছে ওদের মাঝে। এসব শুনে আমার মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে। আমি ওর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বলে তারা আমাকে পছন্দ করেনি। কিন্তু ও যখন বাংলাদেশে ছিলো, তখন তারা বলেছিলো যে আমাকে তারা পছন্দ করে। এখন পুরাই উলটা কথা তাদের। ও এসবের কিছুই স্বীকার করতোনা। ওর বন্ধুদের কাছ থেকে জানতে পারি ও আসলেই এমন ধরনের।

ভালোবাসার সম্পর্ক ঠিক রাখতে চান? তাহলে এই ৬ টি অভ্যাস দূর করুন

তখনই আরেকটা ভুল করে ফেলি। সুইসাইড করার চেষ্টা করি। কিন্তু বমির কারণে সেটা হয়নি, আজ পর্যন্ত বেঁচে আছি। এরপর আস্তে আস্তে ওর কাছ থেকে নিজেকে সরিয়ে আনি আর ডিসিশন নেই যে বিয়ের আগে আর কোন সম্পর্কে জড়াবোনা। খুব কঠিন করে ফেলি নিজেকে। কিন্তু সবসময়ই নিজেকে খুব ছোট মনে হত, আমি বিয়ের আগেই এত কিছু করলাম, আমাকে অন্য কেউ টাচ করলো, ডিপ্রেশনে ভুগছিলাম। এর মাঝে পরিচয় হয় এক আত্মীয়ের সাথে যে একজন হাফেজ। আমি তার সাথে কিছুদিন কথা বলি। এবং বলি যে আমি অনেক গুনাহর কাজ করেছি। আমাকে মুক্তির পথ দেখান। আর আমি তাকে আমার জন্য শাফায়েতের জন্যেও বলি। এক পর্যায়ে সে আমাকে প্রোপোজ করে। আমি খুব অবাক হই। একজন হাফেজ হয়েও সে আমাকে প্রোপোজ করলো! আমি তাকে অনেক বুঝাই যে এটা সম্ভব না। কিন্তু সে বলে সে আমাকে খুব ভালোবাসে। তার কথায় আর আমার মুক্তির চিন্তা করে আমি রাজী হই কিন্তু তার কিছুদিন পর আমি জানতে পারি তার আগে একটি সম্পর্ক এবং সে ঐ মেয়ের সাথে অনেকবার শারীরিক সম্পর্ক করেছে। এখন সে ঐ মেয়েকে ছেড়ে আমার কাছে আসতে চাইছে। কিন্তু সে আমাকেও ওসব করতে বলে।

 

আমি তাকে বুঝাই যে এসব সম্ভব না। সে একবার বোঝে, আবার চায়। আপু এখন আমি কী করবো? আমিও তাকে ভালোবেসে ফেলেছি। আবার ঐ মেয়েটার জন্যও খারাপ লাগছে। আবার এটাও ভাবি যে আমি হয়তো চেষ্টা করলে তাকে ভালো পথে আনতে পারবো। আবার এটাও ভয় হয় যদি আমার সাথেও ওসব করে?

ভাসুরের সাথে শারীরিক সম্পর্ক, আমাদের সাথে নিয়িমিত… পড়ুন বিস্তারিত

আপু, আমার জীবনের ঘটনাগুলো সংক্ষেপে বললাম। জানি আমাকে সবাই খারাপ ভাবছে কিন্তু আপু একটা কথা বলতে পারি, আমি শুধুমাত্র একটু সত্যিকারের ভালোবাসা পাওয়ার জন্য সবার সাথে সম্পর্কের শুরু করেছিলাম, আমি কাউকে ছেড়ে আসিনি। কেবল প্রথমজন ছাড়া।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।