cool hit counter

ভালোবাসার সম্পর্ক ঠিক রাখতে চান? তাহলে এই ৬ টি অভ্যাস দূর করুন

বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় সম্পর্কচ্ছেদের প্রধান কারণ বলতে বলা হলে প্রেমিক-প্রেমিকা একই উত্তর দিয়ে থাকেন আর তা হলো, ‘ও আর আগের মত নেই’। কিন্তু আসলেই কি মানুষ বদলে যায় নাকি একে অপরের কিছু বিরক্তিকর অভ্যাস দেখতে দেখতে মনে মনে তার ওপর বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হয়? একটু মনে করে দেখুন তো ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্র আপনার কোন অভ্যাস কি আপনার প্রেমিক/প্রেমিকার কাছে খুব বেশি বিরক্তিকর ছিল?

ভালোবাসার

ভালোবাসার সম্পর্ক ঠিক রাখার উপায়

ভালোবাসার সম্পর্ক ঠিক রাখতে চান? তাহলে দূর করুন এই ৬ টি অভ্যাস
কিছু বিরক্তিকর অভ্যাস আছে যার কারণে অনেকেরই সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায় তার ভালোবাসার মানুষটির সাথে। আর একবার সম্পর্ক নষ্ট হলে সেই সম্পর্ক পুনরায় আগের মত হয়না কখনোই। প্রেমিক-প্রেমিকার সেইসব বিরক্তিকর অভ্যাসগুলো নিয়েই আজকে আমাদের এই লেখা। যে কোন একটি অভ্যাসই আপনার সুন্দর সম্পর্কটিকে ভেঙে দেয়ার জন্য যথেষ্ট। সুতরাং এই অভ্যাসগুলো পরিহার করার চেষ্টা করুন।

অতিরিক্ত খবরদারী করা
আপনার প্রেমিক/প্রেমিকা কি করছেন, কি খেলেন কিংবা কথায় যাচ্ছেন তা জিজ্ঞেস করা অবশ্যই আপনার তার প্রতি চিন্তার প্রকাশ করে। কিন্তু এই সামান্য কুশল বিনিময় বিরক্তির পর্যায়ে তখনই পরে যখন আপনি অযথাই তার ওপর খবরদারী করতে যান। এখানে যাবেন না, সেখানে কেন গেলেন, এর সাথে কথা বলবেন না, তার সাথে মিশবেন না এই ধরণের অতিরিক্ত অধিকার খাটিয়ে কথা বলা বিরক্তির কারণ হয়ে উঠতে পারে। প্রেমিক/প্রেমিকাকে বুঝতে হবে কোন আচরণটি আকর্ষণীয় এবং কোনটি বিরক্তিকর। একে অপরকে ভালোবাসার বন্ধনে বাধার চেষ্টা করুন অধিকার খাটিয়ে বিরক্তিকর কোন বন্ধনে নয়।

অন্যের সাথে তুলনা করা
আপনার ভালোবাসার মানুষটি যা করেন এবং আপনার জন্য যা করছেন তার তারিফ করা শিখুন। অন্য কারো সাথে তুলনা করে তার মানসিকতাকে আঘাত করবেন না। অমুকের প্রেমিক/প্রেমিকা তার জন্য অনেক কিছু করেছে তুমি কেন করো না বা করতে পারো না এই ধরণের তুলনামূলক কথা কখনোই নিজের প্রেমিক/প্রেমিকার সামনে বলা উচিৎ নয়। অন্য একজনের সাথে তুলনা করা সব চাইতে বড় আঘাত আপনার ভালোবাসার মানুষটির জন্য। এই ধরণের অভাস ত্যাগ করুন।

নিজের প্রাক্তন প্রমিক/প্রেমিকার কথা বলা
অনেকের নিজের বর্তমান ভালোবাসার মানুষটির সামনে কথায় কথায় প্রাক্তন প্রেমিক/প্রেমিকার কথা বলার অভ্যাস আছে। এই অভ্যাসটি আপনার বর্তমান সম্পর্কের জন্য অনেক বেশি ক্ষতিকর। আপনি আপনার প্রাক্তন প্রেমিক/প্রেমিকার সম্পর্কে ভালো বা খারাপ যাই বলুন না কেন আপনার বর্তমান প্রেমিক/প্রেমিকা তা ভালো চোখে দেখবেন না। এতে করে আপনার প্রেমিক/প্রেমিকা ভাবতে পারেন আপনার মনে এখনো আপনার প্রাক্তন মানুষটিই আছে। সম্পর্কচ্ছেদ হওয়ার জন্য এই সামান্য চিন্তাই যথেষ্ট। সুতরাং এই অভ্যাসটি দূর করুন।

প্রেমিক/প্রেমিকার প্রাক্তন ভালোবাসার মানুষ সম্পর্কে কথা বলা
অনেক জুটিই এই ভুল কাজটি করে বসেন। বিশেষ করে যখন ঝগড়া হয়। আবার হাসি ঠাট্টার ছলে ভালোবাসার মানুষটির প্রাক্তন প্রেম সম্পর্কে কথা বলেন অনেকে। একে অপরকে প্রাক্তন প্রেমিক/প্রেমিকার কথা বলে খোটা বা খোঁচা দেয়ার এই প্রবণতাও সম্পর্কচ্ছেদের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। যত রাগই উঠুক কিংবা হাসি ঠাট্টার ছলেই হোক না কেন ভালোবাসার মানুষটির প্রাক্তন প্রেম সম্পর্কে কোন কথা বলবেন না।

কথায় কথায় অতীত টেনে আনা
তুমি এই কাজটি করেছিলে, তুমি ওই কথাটা বলেছিলে এই ধরণের কথাবার্তা আপনার ভালোবাসার মানুষটির কাছে আপনাকে শুধুমাত্রই একজন বিরক্তিকর মানুষ হিসেবে উপস্থাপন করে। কথায় কথায় অতীত টেনে এনে সম্পর্ককে বিষাক্ত করে তুলবেন না। এই ধরণের অভ্যাস দূর করুন, সম্পর্ক ঠিক থাকবে।

কথা না শোনা
ভালোবাসার সম্পর্ক (relation) ঠিক রাখতে হলে প্রেমিক এবং প্রেমিকা উভয়কে ভালো শ্রোতা হতে হয়। আপনি আপনার ভালোবাসার মানুষটির কথা শুনলেন না বা শুনতে চাইলেন না এতে করে তিনি ভাবতে পারেন আপনি তাকে এড়িয়ে চলছেন। এই ভাবনাটি সম্পর্কের জন্য ভালো নয়। প্রেমিক/প্রেমিকার কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন। এতে করে তিনি নিজেকে আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে করবেন। এবং সেই হিসেবে তিনিও আপনাকে গুরুত্ব দেবেন।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।