cool hit counter

গরমে ব্যায়াম করুন ফিট থাকুন

গরমে ব্যায়াম করুন ফিট থাকুন

গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা। অসহ্য লাগছে। এর মধ্যে ব্যায়াম । ধুর, ফিট থাকা যায় নাকি গরমে। এমনটা অনেকে ভাবেন। এই গরমেও সুস্থ থাকতে, ফিট থাকতে ব্যায়ামতো করতেই হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।

ব্যায়াম
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শরীর শিক্ষাকেন্দ্রের ফিজিক্যাল ইনস্ট্রাক্টর হাবিবুর রহমান জানালেন, বছরের যেকোনো সময় শরীর চনমনে রাখতে হলে নিয়মিত ব্যায়াম করতেই হবে। গরম পড়েছে বলে যে ওজন বাড়বে না তা নয়; বরং তীব্র গরমে শারীরিকভাবে দুর্বল হওয়া থেকে বাঁচায় ব্যায়াম।
গ্রীষ্মকালীন ব্যায়ামবলে কিছু নেই। সাধারণত যেসব ব্যায়ামকরেন, সেগুলোই করতে পারেন। তবে গরমের সময়ে দুপুরে ব্যায়াম করা ঠিক নয়। ঢাকার মগবাজারের ‘মাসল অ্যান্ড ফিটনেস’ জিমের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আকাশ বলেন, গরমে হিট স্ট্রোক, ডিহাইড্রেশন ইত্যাদির সমস্যা দেখা দেয়, ফলে বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে ব্যায়াম করলে ভালো।
এ সময় ব্যায়াম করলে ঘাম বেশি হয়, তাই হালকা ফ্রি-হ্যান্ড ব্যায়ামকরতে পারেন। গরমে ফিট থাকতে বেশ কিছু পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা:
প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে কমপক্ষে ১০ মিনিট দড়ি-লাফ দিতে পারেন মডেল: আইরিন* অফিস থেকে ফেরার পথে বা আশপাশে যেকোনো জায়গায় যাওয়ার সময় রিকশা না নিয়ে হেঁটে যান অথবা দিনের যেকোনো সময়ে কিছুক্ষণ অযথা হাঁটাহাঁটি করুন।
* ব্যায়ামের জন্য হাঁটাহাঁটি করতে ইচ্ছা না হলে কোনো শপিং সেন্টারে বা মার্কেটে ঘুরতে যেতে পারেন। সেখানে কিছু পছন্দের বা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রও কেনা হবে আবার আপনার ব্যায়ামও হয়ে যাবে।
* ইয়োগা বা ধ্যানও করতে পারেন। এটি কোনো ঘাম না ঝরালেও শরীর সুস্থ রাখতে এবং আপনাকে ফিট রাখতে অনেক সাহায্য করবে।
* বাসায় বা অফিসে বা অন্য কোথাও ওপরে উঠতে লিফট ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। সিঁড়ি ব্যবহার করুন। আপনার সারা দিনের ব্যায়ামের অন্যতম মাধ্যম হতে পারে সিঁড়ি দিয়ে কয়েকবার ওঠানামা করা।
* দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে কমপক্ষে ১০ মিনিট দড়ি-লাফ দিন। দিনে দিনে সময় আরও বাড়িয়ে দিন। কম সময়ে সহজ ব্যায়াম এটি।
* দুপুরে ও রাতে খাওয়ার পর ছাদে বা বাড়ির সামনের ফাঁকা জায়গায় বা সামনের রাস্তায় একটু হেঁটে আসুন। এই ছোট ব্যায়াম আপনার খাবার হজম করতে এবং শরীর ফিট রাখতে সহায়তা করবে।
* গরমকালে সবচেয়ে ভালো ব্যায়ামগুলোর একটি হলো সাঁতার কাটা। এতে গরম লাগারও আশঙ্কা নেই। তবে সাঁতার কাটার সময় বেশি পানি পান করতে হবে।
* নিজের শরীরকে গরম আবহাওয়ার সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার সময় দিন। প্রথম কয়েক দিন একটু কম সময়, কম কষ্ট হবে এ রকম কিছু ব্যায়াম করুন। এরপর ধীরে ধীরে সময় বাড়িয়ে নিন।
* রাতের বেলা ভালো করে ধুয়েমুছে শুয়ে পড়ুন মেঝের ওপর। মেঝের শীতলতা আপনাকে গরম থেকে মুক্তি দেবে। আর আপনার কোমরে কিংবা পিঠে ব্যথা থাকলে তা সারিয়ে দেবে।
* বিভিন্ন ধরনের স্ট্রেচিং ব্যায়াম, যেমন—আর্ম স্ট্রেচিং বা লেগ লিফটিং করতে পারেন। এতে খুব একটা ঘাম হয় না কিন্তু রক্ত সঞ্চালন ভালো হয় এবং বিভিন্ন অংশের চর্বি ঝরে যায়।
* দিনের কিছু সময় ধরে সাইকেল চালানোর অভ্যাস করতে পারেন। সাইকেল চালানোতে একদিকে যেমন ব্যায়াম হয়ে যাবে, অন্যদিকে গরমের প্রকোপ আপনাকে স্পর্শ করবে না।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন