cool hit counter
Home / বৈশাখী সাজ / চুড়ি-দুলে বৈশাখী সাজে

চুড়ি-দুলে বৈশাখী সাজে

চুড়ি-দুলে বৈশাখী সাজে

ঢাকা: বাঙালি নারীর হাতে রেশমি চুড়ির রিনিঝিনি ছন্দে, মন মেতে ওঠে আনন্দে। কানে ঝুলানো দুল সঙ্গে দেয় আলাদা আবহ। তাই বৈশাখ বরণে নতুন পোশাকের সঙ্গে হাতভর্তি রেশমি চুড়ি আর মিলিয়ে কানের দুল চাই-ই চাই। রাত পোহালেই পহেলা বৈশাখ। তাই শেষ বারের মতো নিজের সাজগোজের সব অনুষঙ্গ আরেকবার মিলিয়ে নিতে পারেন। পোশাকের রং-এর সঙ্গে মিলিয়ে চুড়ি-গয়না কিনেছেন তো?

চুড়ি

এখনো না কিনে থাকলে জেনে নিন কোথায় পাবেন মনের মতো কাঁচের চুড়িআর কানের দুল। টিএসসির মোড়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি ভবনের পাশে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান এবং ছবির হাট ও চারুকলার সামনে কাঠ, মাটির গয়না আর কাচের চুড়ির পসরা সাজিয়ে বসেছেন চুড়িওয়ালা মামারা। এছাড়া দোয়েল চত্বর, আজিজ সুপার মার্কেট, আড়ং, কলাবাগানসহ ইডেন কলেজ, নিউ মার্কেটে রাস্তার দুপাশে, গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের পাশে রয়েছে চুড়ি, দুল, গলার মালার বিশাল বাজার। suri-2চারুকলার সামনে দীর্ঘদিন ধরে চুড়ি বিক্রি করে আসছেন মফিজ মামা। তিনি বলেন, বাহারি রঙের কাঁচের চুড়ির বেচাকেনা সারাবছরই আছে। কিন্তু বেশ কিছু বছর পহেলা বৈশাখের আমাদের বেচাকেনা অনেক বেশি হয়। কি রঙের চুড়ি. বেশি বিক্রি হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, লালা আর সাদার চাহিদা সবচেয়ে বেশি। তবে হালকা বা গাঢ় অন্যান্য রঙের চুড়িও বিক্রি হচ্ছে বেশ। দামের ব্যাপারে তিনি বলেন, অন্যান্য সময়ের চেয়ে ডজন প্রতি চুড়ির দাম এখন একটু বেশি রাখছি। তবে খুশি হয়ে যে যেমন দেয় সেটাই নিচ্ছি। মৌচাক মার্কেট ঘুরে কথা হল কুসুম হাসনাইনের সঙ্গে। ‍কুসুম বললেন, শাড়ির সঙ্গে মিলিয়ে আগের চুড়ি আর কানের দুল, গলার মালা সবই আছে। কিন্তু নতুন বছরে নতুন পোশাকের সঙ্গে নতুন চুড়ি-দুল না হলে মন ভরে না, তাই আজ আবার কিনতে এসেছি। এসব দোকানে পহেলা বৈশাখে মাটির গয়নার চাহিদা অন্য সময়ের চেয়ে অনেক বেশি। আকর্ষণীয় এই গয়নাগুলোর দাম থাকবে হাতের নাগালেই।

এক জোড়া কানের দুল ৫০ থেকে ৮০ টাকা, মালা ৮০ থেকে ২৫০ টাকা, চুড়ি ২০ থেকে ২০০ টাকার মধ্যে। মাটির ওপর ডিজাইন করে তাতে রং ধরিয়ে তৈরি হয় গহনা। আধুনিকতার ছোঁয়ায় মানের ভিন্নতায় এসেছে ব্যবহারের বিশিষ্টতা। এখন মাটির গহনায় যুক্ত করা হয় বিভিন্ন স্টোন, ছোট ছোট ডিজাইনের মেটাল, পুতি। ইদানীং বিটস ও মেটালের গয়না বেশ চলছে। এবারের বৈশাখে আপনিও বেছে নিতে পারেন এমন গয়না। কিনতে পারেন বিভিন্ন ফলের বিচির গয়না, প্লাস্টিক, কাঁচ পুঁতি আর কাঠ পুঁতির গয়না। এবারের বৈশাখে পুঁতির সঙ্গে মেটাল মিলিয়ে তৈরি করা হালকা ও ভারী নকশাদার বাহারি গয়না পাওয়া যাচ্ছে। বৈশাখী সাজে অনায়াসে এসব গয়না মানিয়ে যাবে। নানা রকম ঝুনঝুনি, চুমকি, পুঁতি ব্যবহার করা মাটির গয়নাও আপনার সাজে ব্যাবহার করতে পারেন। বৈশাখী সাজের বড় একটি অংশ জুড়ে থাকে ফুলের গয়না। ফুলেল সাজে নিজেকে অনন্য করে তুলতে বেছে নিতে পারেন রং-বেরঙের ফুলের গয়না। এখন প্রয়োজন আপনার রুচি আর সাধ্যের সমন্বয় করে গয়না কেনার পালা। এসব গয়না ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকার মধ্যে অনায়াসে পেয়ে যাবেন। হাতের চুড়ি পাবেন সেট অনুযায়ী ভিন্ন দামে।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন

Check Also

বৈশাখী

বৈশাখী রূপচর্চা ও বৈশাখী সাজ

বৈশাখী রূপচর্চা ও বৈশাখী সাজ বৈশাখী রূপচর্চা গরমের সময় ত্বকের অতিরিক্ত যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। কারণ এ …