cool hit counter

যৌবন আকাংখা ‘কমাতে’ চান

যৌবন আকাংখা ‘কমাতে’ চান? এগুলো খেয়ে দেখতে পারেন! যৌনতা নিয়ে টেকি পোস্ট (১৮+ নয় মোটেও)

জীবন কে পুর্ন ভাবে উপভোগ করার জন্য যৌনতার বিকল্প নেই এবং ঠিক এ কারনেই মানুষ আদিম কাল থেকে যৌবন কে চাগিয়ে তুলবার প্রানান্তকর প্রচেষ্টা করে আসছে। আপনারা ঢাকা শহরের আনাচে কানাচে বিভিন্ন রকমের যৌবন বৃদ্ধি কারী তেল, মসল্লা ইত্যাদি দেদারসে বিক্রী হতে নিশ্চই দেখেছেন। এদের সবই আপনাকে অসুরের মত শক্তি দেবার আশা দেখায়!

যা হোক, আসল কথায় আসি।

যৌবন বৃদ্ধির যে সমস্ত খাবার বা ওষুধ পাওয়া যায় তাদের Aphrodisiac বলে ।

এখন অনেক খাবার বা ওষুধ আছে যা আপনার যৌন চাহিদা বা Libido কে কমিয়ে দেয় এবং এদের বলে Anaphrodisiac!

এসব খাবার সম্বন্ধে জানি একটু।

১। কর্নফ্লেক্স – যৌবন

জ্বী ভাই! জন হার্ভে কেলগস সাহেব প্রথম কর্নফ্লেক্স আবিস্কার করেন। কারন? উনার ধারনা ছিলো অতি যৌন আগ্রহ বা সেক্স ড্রাইভ লোকজনকে অসুস্হ করে ফেলে! এজন্য উনি চিনি, গম দিয়ে স্বাদহীন একটা নাস্তা বানালেন যা খেলে যৌন মিলনের ইচ্ছা কমে যায়!
২। জিন আর টনিক –যৌবন

জিন আর টনিকে থাকে কুইনিন। এই কুইনিন শরীরে টেসটোসটেরন এর মাত্রা কমিয়ে দেয়। তার ফলে কমে যায় আপনার দুস্টু দুস্টু ইচ্ছে গুলো!
৩। সয় বা সয়া সস –যৌবন

চাইনিজ বুদ্ধুরা এটা খেয়ে তাদের যৌন চাহিদা দমন করে রাখতো!
৪। মিন্ট (যেমন মেনটস ইত্যাদি) –যৌবন

মিন্ট বা এ জাতীয় খাবার থাকে মেনথল যা আপনার টেসটোসটেরন এর মাত্রা নামিয়ে আনে। সুতরাং ভালোবাসার আগে মুখে সুগন্ধ আনার ক্ষেত্রে লাভ হলেও চরম মুহুর্তে আপনার আসল সুগন্ধি কাজ নাও করতে পারে ব্লগার ভায়েরা আমার!
৫। ধনে পাতা –যৌবন

সাবধান ব্লগার আপুরা! ভাইয়াদের জিনিষপত্র ঠিক রাখতে হলে ধনেপাতা বা এর চাটনী কম খাওয়াবেন! তা না হলে রাতের বেলা বেগুন খাওয়া লাগতে পার্
৬। ঢেড়স –যৌবন

ভাইরে! ঢেড়স খান ঠিক আছে কিন্তু বুঝে শুনে!
৭। টুনা মাছ দিয়ে নুডুলস –যৌবন

না না না ভাই, কখোনই না! জিনিষপত্র টুনা মাছ বা নুডুলস মতোই শুয়ে থাকবে!
৮। টমেটো, লেটুস –যৌবন

ভাই আমি খুব সালাদ পছন্দ করি! কি যে করি!???
৯। ধূমপান –

আর কিছু বলতে হবে?যৌবন

তবে এগুলো কেনো খাবেন?

আপনি যদি অন্য সবার থেকে একটু বেশী দুস্টু দুস্টু হন বা এসব চিন্তা করতে করতে অন্য সবকিছু মন থেকে উবে গেছে এমন হয় তাহলে এগুলো খেয়ে চেস্টা করে দেখতে পারেন!

তবে আমি আর এগুলো বেশী খাচ্ছিনা ভাই!

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন