cool hit counter

কাজের ফাঁকে ঝটপট একটু রূপচর্চা করেনিন

কাজের ফাঁকে ঝটপট একটু রূপচর্চা করে নিন

ছুটির দিনগুলো ছাড়া মোটামোটি সারাদিনই কাজের চাপ থাকে সবার। সেটা শিক্ষার্থীর জন্য হোক কিংবা চাকরিজীবী জন্য। তার উপর অন্যান্য কাজেও বাইরেও মাঝে মাঝে যেতে হচ্ছে, রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়ে ঘুরতে হচ্ছে। ত্বকের ক্ষতি হবে জেনেও সময়ের অভাবে রূপচর্চা ঠিক মতো করা হয় না অনেকেরই। এই ব্যস্ততার মাঝে নিজের রূপচর্চার কথা ক’জনেরই বা মনে থাকে। এতকিছুর মাঝে নিজেকে খানিকটা সুন্দর রাখার চেষ্টা করাই যায়। কাজের ফাঁকে একটু সময় করে যদি আমরা ফ্রেশ হয়ে নিই তাহলে মনটাও ফুরফুরে হয়ে যায়। বাহিরে ঝটপট কীভাবে রূপচর্চা করবেন তা নিয়ে আজক আলোচনা করবো।

রূপচর্চা

 

কাজের ফাঁকে সময়টাতেই চাইলে সেরে নেওয়া যায় চটজলদি রূপচর্চা।সকাল ৮টা সাড়ে ৮টায় বের হওয়ার সময় নিজের হালকা মেকআপটাও ঠিকমতো করে আসা যায় না। সেখানে বাইরে বসে রূপচর্চা করাটা কঠিন মনে করেন সবাই।রাস্তার জ্যাম ঠেলে বাড়ি ফিরতে ফিরতে দেরি হয়ে যায়,শরীরজুড়ে থাকে ক্লান্তি। তখন আর কারোই বা ইচ্ছে করে রূপচর্চা নিয়ে মাথা ঘামাতে।

দিনের বড় একটা সময় যেহেতু বাইরেই কেটে যায় সে কারণে বাইরে কাজের ফাঁকে বসেই সেরে নেওয়া উচিত ত্বকের যত্ন।চাইলে অবসর বের করে নেওয়া সম্ভব,যার পুরোটাই নির্ভর করে নিজের উপর। খুব অল্প সময়ে নিজেকে রিফ্রেশ করে নেওয়া সম্ভব। তবে এর জন্য সঙ্গে কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস রাখতে হবে। যেমন—ফেসওয়াশ, সানস্ক্রিন, টিস্যু বা রুমাল এবং প্রয়োজনীয় কসমেটিকস।

কসমেটিকস এমনিতেও অনেকে সাথে রাখেন সবসময়, তবে তার সাথে রূপচর্চা   এর বাকি জিনিসগুলোও ব্যাগেই রাখতে পারেন। ব্যাগের আলাদা পকেটে বা একটা ছোট ব্যাগে ভরে রেখে দিন। সময়-সুযোগ বুঝে সেগুলো রূপচর্চা করার জন্ব্যযবহার করুন।

ভার্সিটি বা অফিসে সাধারণত এসির ভেতর থাকতে হয়। এতে ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয় বেশি। আর তৈলাক্ত ত্বক আরও বেশি চিটচিটে হয়ে যায়। এ ক্ষেত্রে সুযোগ পেলে ঠাণ্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে মুখ ধুয়ে নেবেন। আর মুখ তেলতেলে হলে টিস্যু বা রুমাল দিয়ে মুখ মুছে নেবেন।
একটা ছোট আয়না সবসময় সঙ্গে রাখলে ভালো হয়।এতে মাঝে মাঝে আয়নায় দেখে নেয়া যায় আপনার মেকআপ,চুল ঠিক আছে কি না। হালকা মেকআপ করেই সবাই ঘর থেকে বের হয়।তবে ভার্সিটি বা অফিস দূরে হলে জার্নিতে মেকআপ নষ্ট হয়ে যায়, মুখে ক্লান্তির ভাব এসে যায়।অফিস বা ভার্সিটিতে ঢুকেই একটু ফ্রেশ হয়ে নেওয়া ভালো।

দীর্ঘ সময় কাটানোর ফলে ঠোঁট শুকিয়ে যায়। তাই মাঝে একবার লিপস্টিক মুছে নতুন করে লাগান, অথবা ভেসলিন ব্যবহার করুন,ফ্রেশ দেখাবে।
বের হওয়ার আগে যেমন সানস্ক্রিন লাগিয়েছিলেন, তেমনি মাঝে কাজে বাইরে বের হতে হলে আবার লাগান। বিশেষ করে যাদের ঘোরাঘুরির মধ্যে থাকতে হয় তাদের জন্য এটা অনেক জরুরী।

সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার সময় বেসিক একটা মেকআপ সবাই করে থাকে। তবে এটা অনেক বেশি সময় থাকলে অনেকেরই অ্যালার্জি হতে পারে। তাই মুখ সারাদিনে একবর হলেও মুখ ধুয়ে হালকা মেকআপ এবার করে নিন।

হালকা রূপচর্চা করার জন্য যা যা লাগবে শুধু তাই কাছে রাখুন। সাজার যেই জিনিস ব্যবহার করতে আপনার বেশি সময় লাগে সেটা না রাখাই ভালো।
চুল ঠিক রাখুন।সাথে ছোট চিরুনি রাখতে পারেন। খেয়াল রাখবেন চুল যেন উস্ক খুস্ক না দেখায়।
মুখ ধোয়ার আগে হাত ভালমতো পরিষ্কার করুন। এতে হাতের জীবাণু মুখে যাবে না।

মুখে বার বার পানি দিয়ে ভালো করে ধুবেন, এতে আপনার ক্লান্ত ভাব দূর হয়ে যাবে এবং সতেজ ভাব মুখে ফুটে উঠবে।
বাইরে বেশি থাকলে ঘন ঘন পানি পান করুন। বোতলে পানি রাখুন। এতে ত্বক ভালো থাকবে এবং আপনিও ফ্রেস ফিল করবেন।
বাইরে দীর্ঘ সময় কাজ করতে হলে অবশ্যই খেয়ে নেয়াটা জরুরী, না হলে আপনি অসুস্থ হয়ে পরবেন, বেশি ক্লান্ত লাগবে।
এভাবে বাইরে অল্প সময় বের করেই রূপচর্চার জন্য সময় বের করে নেয়া যায়। বাইরে সতেজ থাকাটাই জরুরী!

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন