cool hit counter

আজকের রাশি ফল- ১৯/১৬/২০১৬

আজকের রাশি ফল- ১৯/১৬/২০১৬

মেষ রাশি ( ২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)। ভর # ৬

মাঠের খেলা দুই রকম আছে, একটা লগবগ করতে করতে খেলা, অন্যটা খেটে খেলা। প্রিয় মেষ, আপনি দলের ক্যাপ্টেন, আপনি খেলেন ধরুন গিয়ে, রাশিস্টপার ব্যাক পজিশনে। দলের অন্য খেলোয়াড়রা গোল করতে না পারলে আপনি বিরক্ত হয়ে সামনে এগিয়ে যান। তখন আপনার মাথার লাল ফেট্টি ঘামে ভিজে চুর। গোল দিয়ে আপনি দ্রুত নিজের অবস্থানে ফিরে আসেন। প্রতিপক্ষের কোন খেলোয়াড় আপনার বুটের আঘাতে ছিটকে ছিটকে পড়ে, তা আপনি ফিরেও দেখেন না। জয় হোক আপনার!

 বৃষ রাশি (২১ এপ্রিল-২১ মে)। ভর # ১
জয়-পরাজয় নির্ধারিত হওয়ার আগেই হেরে যাবেন? যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগেই মনে মনে হেরে যাবেন? তাহলে তো আসলেই হেরে যাবেন আপনি। কাজেই কাজী নজরুলের সঙ্গে দীপ্ত কণ্ঠে উচ্চারণ করুন: বলো বীর, চির উন্নত মম শির…জয় হোক আপনার!
মিথুন রাশি (২২ মে-২১ জুন)। ভর # ৬
বহুবার বলেছি, মিথুন হচ্ছে এক দ্রোহী চরিত্র। উল্টোকে পাল্টে দেওয়ার ক্ষমতা যার রাশি চরিত্রের অন্যতম বৈশিষ্ট্য। তাহলেও প্রিয় মিথুন, এ সপ্তাহে বেশি বাড়াবাড়ি করতে যাবেন না। অতিরিক্ত অস্থিরতা করলে শেষমেশ আপনি নিজেই উল্টোপাল্টা হয়ে সাইড লাইনের বাইরে উড়ে যাবেন।

কর্কট রাশি (২২ জুন-২২ জুলাই)। ভর # ২
সংখ্যা ২-এর আওতায় থেকে চলতি সপ্তাহে আপনি মারাত্মক ভুল শুদ্ধের দিকে চলে যেতে পারেন। যদি শুদ্ধের দিকে যান, তাহলে তো ভালো, আর যদি ভুলের দিকে হেলে পড়েন, তাহলে যে কী হবে—সে তো বোধ হয় না বললেও চলে। এই বাক্য পড়ে আসলে আপনার খুশি হওয়ার কথা।

সিংহ রাশি (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)। ভর # ১
আমরা বলি তাসের ঘর। কথাটা এসেছে ইংরেজি ‘হাউজ অব কার্ডস’ থেকে। কথাটির মর্মার্থ বোঝা কঠিন নয়। প্রিয় সিংহরাজ, চলতি সপ্তাহে জোর তুফানি হাওয়ায় আপনার পৃথিবী দুলতে থাকবে। এ কথা শুনেও আপনাকে স্থির থাকতে বলি। জয় হোক!

কন্যা রাশি (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)। ভর # ২
শিল্পী ও তাঁর ‘বেদনাবোধ’ অন্যের আনন্দ-ব্যথা নিজ বুকে প্রতিধ্বনিত না হলে বড় শিল্পী হওয়া কি সম্ভব? হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের কথা স্মরণ করুন-ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক ফোঁটা অসুখে ছিলেন বলে আমরা কখনো শুনিনি। কিন্তু তাঁর বেদনার গানগুলো আজও বাঙালিকে কাঁদায়। আসল কথা হলো এই যে শিল্পীর ব্যক্তিগত জীবনে দুঃখ না থাকলেও তাঁর মধ্যে অন্যের ব্যথার প্রতি দরদ না থাকলে বড় শিল্পী হওয়া কি সম্ভব?

তুলা রাশি (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)। ভর # ২
প্রিয় তুলা, এ সপ্তাহে আপনাকে কিঞ্চিৎ তুলাধুনা…। আমার কথা শুনে মাইন্ড ব্যাড করবেন না, প্লিজ। শেষ অবধি আপনার প্রশস্ত কপালে জয়ের নিশান আঁকা হচ্ছে—এই তো আমরা দেখতে পাচ্ছি।

বৃশ্চিক রাশি (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)। ভর # ২
মার দিয়া কিল্লা! আরকি বলে গা। ডিয়ার বোন ও ভাইবোন, শেষ পর্যন্ত এত জোরেই ব্যাট হাকালেন যে কিয়া আর বলে গা…বলটা শেষ পর্যন্ত আকাশেই হারিয়ে গেল। নাহ্, ইহা অইন্যায়, খুব অইন্যায়।

ধনু রাশি (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর০। ভর # ৯
ফরাসি চলচ্চিত্র নির্মাতা জঁ লুক গদার বলেছেন, অভিনেতারা একই সঙ্গে দানব ও শিশু এবং আমার সঙ্গে তাদের সম্পর্ক সুখের নয়। আমি তাদের সঙ্গে কথা বলি না। কথা বলা কঠিন, কারণ তারা রুগ্ণ শিশুর মতো, সব সময়ই ভরসার কথা শুনতে চায়। আত্মপ্রকাশের অক্ষমতা তাদের কষ্ট দেয়। এ কারণেই কিন্তু তারা শিল্পী। তারা যেন শিশু। জন্মের মুহূর্তেই কথা বলতে চায়। অন্যের কাছ থেকে তাদের অভিব্যক্তি ধার করতে হয়।

মকর রাশি (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)। ভর # ৩
এ সপ্তাহে প্রিয় মকর, অতিরিক্ত বকর-বকর করতে যাবেন না। একটু চেপে কথাবার্তা বলুন। অর্থাৎ চুপ করে থেকে শুনুন বেশি, বলুন কম। আমার তো মনে হয় চলতি সপ্তাহে আমরা আপনার উদ্দেশে গেয়ে উঠতে পারব: তোমারই হোক জয়!

কুম্ভ রাশি ( ২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)। ভর # ৯
আমার অতি প্রাচীন ডায়েরি থেকে কয়েকটি লাইন শুনাই:…সবার আসন গ্রহণ করা হতেই সময় নষ্ট না করে রবীন্দ্রনাথ থেকে পড়তে এবং ব্যাখ্যা করতে শুরু করলেন সিলেটের সাহিত্যিক গাজী সাহেব। তাঁর পরনে ড্রেসিং গাউন। চোখ দুটি বন্ধ। বললেন: তোমার উষসীতে লেখা সম্পাদকীয় পড়লাম। এটি অত্যন্ত উচ্চাঙ্গের হয়েছে। অল্প কথায় তুমি সুষ্ঠুভাবে তোমার বক্তব্য নিবেদন করেছ, ইত্যাদি। এরপর বিমূর্ত চিত্রকলা নিয়ে আলাপ উঠল। প্রিয় কুম্ভ, চলতি সপ্তাহে মাঝেমধ্যে চোখ বন্ধ করে ভাববেন আমি এসব কী করছি!

মীন রাশি ( ১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)। ভর # ৩
আজ যখন আপনাদের রাশিফল লিখছি তখন তারিখ ১৭ মার্চ। ঢাকাসহ পুরো দেশ শিশু-কিশোরদের কলকাকলিতে মুখর। আমার অনুলিখনকারী পিচ্চি সাংবাদিক মিশুক একটু পরই অ্যাসাইনমেন্টে যাবে। ওখানে অপেক্ষা করছে পিচ্চি বিজ্ঞানীরা। বিজ্ঞান মেলা শুনেই আমার গায়ে কাঁটা দিচ্ছে। মনে হচ্ছে সব কাজ ফেলে ওর সঙ্গে ছুটে যাই। জানি না আল্লাহ এত আনন্দ আমার জন্য লিখে রেখেছেন কি না। প্রিয় মীন, চলুন না আমাদের সঙ্গে।
আপনি নিজেই আপনার ভাগ্য নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন শতকরা ৯০ থেকে ৯৬ ভাগ। বাকিটা আমরা ফেট বা নিয়তি বলতে পারি। ভাগ্য অনেক সময় অনির্দিষ্ট কারণে আপনা থেকেও গতিপথ বদলাতে পারে।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন