cool hit counter

লেবুর কিছু অসাধারণ ব্যবহার

লেবুর কিছু অসাধারণ ব্যবহার

লেবু, আমরা সকলেই কম বেশি খেয়ে থাকি। খিচুরি অথবা যেকোন খাবারের সাথে এটি অনেকের অনেক প্রিয়। আবার আচার তৈরী করেও অনেকে খেয়ে থাকে। ছোট একটা ফল কিন্তু এর উপকারিতা প্রচুর আর পুষ্টিগুণেও ভরপুর। এতে রয়েছে ৬ ভাগ সাইট্রিক অ্যাসিড, প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, ভিটামিন বি৫, বি৩, বি১, বি২, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, জিঙ্ক, কার্বহাইড্রেট ফ্যাট এবং প্রোটিন। আজকে আমরা এই ফলটির বিভিন্ন উপকারিতা এবং ব্যবহার সম্পর্কে জানবো। তবে চলুন জেনে নিই-

লেবুর

 

লেবুর ব্যবহার

প্রথমে স্বাস্থ্য সুবিধাগুলো জেনে নিই-

লেবুতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি। আর ভিটামিন সি ঠাণ্ডা কাশি প্রতিরোধে খুব কাজ দেয়। এছাড়াও লেবুতে রয়েছে ফ্ল্যাবোনয়েড যা শরীরে ভাইরাস প্রতিরোধ করে এবং শরীরকে ফিট রাখে।
আপনার শরীরের পি এইচ ঠিক রাখে।
লেবুর রস ও গরম পানি একসাথে মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে পান করলে অন্ত্রের কার্যক্রম ঠিক রাখে এবং আপনার শরীরের অতিরিক্ত চর্বি কমিয়ে ফেলে।
এর ভিটামিন সি আপনার শরীরের রিঙ্কেল কমাতে সাহায্য করবে।
এটি রুটিন অনুযায়ী খেলে চোখের অসুখের দূর হয়।
লেবুতে ২২ প্রকার ক্যান্সার বিরোধী যৌগ আছে যা ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।
এটি অন্ত্রের কৃমি ধ্বংস করতে সাহায্য করে।
এটি রক্তনালীসমূহকে শক্তিশালী করে।
এটি স্কার্ভি রোগ প্রতিরোধ করে।
ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

পড়ুন  করতে চাইনি, আবার নিজেকে কন্ট্রোলও করতে পারিনি আপু ,কারন....

ত্বকের যত্নে লেবুঃ

এটি ত্বকের সংকোচন সৃষ্টিকারী পদার্থকে নিয়ন্ত্রণে রাখে।
স্কিনের অতিরিক্ত তেল অপসারন করে।
লেবুর রস রস একটি প্রাকৃতিক অ্যানটিসেপ্টিক, যদি এটি মুখে মাস্ক হিসেবে নেয়া হয় তবে এটি স্কিনের অতিরিক্ত তেল ময়লা দূর করবে এবং ব্যাক্টেরিয়া সংক্রমণ হতে দূরে রাখবে।
যাদের মুখে ব্রণ আছে তারা একটি ছোট তুলার বলে লেবুর রস নিয়ে স্কিন পরিষ্কার করলে ব্রণ কমে যায়।
এটি রাতে মুখ ধোয়ার পর ব্রণের দাগে লাগিয়ে রাখলে দাগ তাড়াতাড়ি সেরে যায়।
এটি ত্বকের রঙ উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।
বয়সের কারণে মুখে দাগ পড়লে তাতে লেবুর রস ব্যবহার করলে দাগ হালকা হয়ে যায়।
শক্ত ও স্বাস্থ্যবান নখ পেতে একটি বাটিতে লেবুর রস নিয়ে তাতে ১০ মিনিট নখ ভিজিয়ে রাখুন, এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে হাত ধুয়ে নিন।

চুলের যত্নে লেবুঃ

শুষ্ক চুলের কন্ডিশনারঃ
লেবুর রস, ৩/৪ কাপ অলিভ অয়েল, ১/২ কাপ মধু, দিয়ে একটি প্যাক তৈরী করে চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিট পরে শ্যাম্পু করুন। এটি আপনার চুলকে ড্যামেজ ফ্রি করবে।

চুল পড়া বন্ধেঃ
৩-৪ টেবিল চামচ নারিকেল তেল নিয়ে তাতে অর্ধেক পরিমাণ লেবুর রস মিক্স করে সপ্তাহে একদিন চুলে লাগান। ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল দেখুন।

নতুন চুল গজাতেঃ
কয়েক ফোঁটা লেবুর রস এবং আমলকীর রস মিক্স করে প্রতিদিন রাতে স্ক্যাল্পে লাগিয়ে নিন এবং সকালে ধুয়ে ফেলুন।

অন্যান্য ব্যবহারঃ

মাইক্রোওভেন পরিষ্কার করতে লেবুর খোসা ব্যবহার করা হয়।
রান্নাঘর, খাবার টেবিল, ষ্টোভ, এর তেলের দাগ পরিষ্কার করতে অর্ধেক পরিমাণ লেবু এবং লবণ নিয়ে তৈলাক্ত স্থানে কিছুক্ষণ ঘষে নিন এরপর পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন।
চপিং বোর্ড পরিষ্কার করতে লেবু ব্যবহার করতে পারেন।
আপনার ঘরে যদি চিনি কাঁকুড়ে হয়ে যায় তবে লেবুর খোসা ব্যবহার করে দেখুন।
৪/১ লেবুর রস, কিছু লবণ এবং লেবুর রসের অর্ধেক পরিমাণ বেকিং সোডা নিয়ে দাঁতে ঘষুন। এটি আপনার দাঁত আরও সাদা করবে।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About ফারজানা হোসেন