cool hit counter
Home / যৌন জীবন / ধর্মমতে যৌন মিলন দীর্ঘস্থায়ী করার উপায়

ধর্মমতে যৌন মিলন দীর্ঘস্থায়ী করার উপায়

কিছুদিন আগে একটি পোষ্টের মাধমে আপনার ডক্টর জানিয়েছিল যে কিভাবে যৌন মিলন দীর্ঘস্থায়ী করা যায় পোষ্টটি না পড়লে যৌন মিলনের স্থায়ীত্ব বাড়াতে কিছু sex টিপস পোষ্টটি পড়ে আসতে পরেন।

ধর্মমতে যৌন মিলন দীর্ঘস্থায়ী করা

ধর্মমতে যৌন মিলন দীর্ঘস্থায়ী করা

পৃথিবীতে অধিকাংশ দম্পতিই কোনও না কোনও এক সময় এই অভিযোগটা করেন! যে বিয়ের কিছু বছর পরেই পরস্পরের প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে যায়। বিশেষ করে স্বামীরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন স্ত্রীদের প্রতি। আবার স্ত্রীরাও আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন স্বামীর প্রতি। আর ফলাফল হয় পরকীয়া! সংসার ভাঙুক বা না ভাঙুক, সম্পর্ক ঠিকই ভাঙে। কিন্তু কখনো কি ভেবেছেন এমন কেন হয়? দুটো মানুষ পরস্পরকে খুব ভালোবেসে বিয়ে করলেও কেন হারিয়ে যায় আকর্ষণ? জবাব মিলবে এখানে-

 

মিলন অধিকসময় স্থায়ী ত্বকের যত্ন নিন:

সবচাইতে বড় যে ভুলটি করেন বেশিরভাগ মানুষ, সেটা হলো বিয়ের পর নিজেকে আর আগের মত যত্ন না করা। নিজেকে সাজানো, নিজের সৌন্দর্য রক্ষা করা, শরীর সুগঠিত রাখা ইত্যাদি কাজগুলো করেন না। সময়ের সাথে সাথে জীবন থেকে হারিয়ে যায় নিজেকে সুন্দর দেখাবার প্রয়াস। স্বভাবতই সঙ্গীর চোখেও আপনি হয়ে পড়তে থাকেন সাদামাটা। অনেক ক্ষেত্রে কুৎসিতও!

 

বেশিসময় ধরে মিলনের জন্য রোম্যান্টিসিজম প্র্যাকটিস করুন:

বিয়ে হয়ে গেলো মানেই ফুরিয়ে গেছে সব? বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাই হয়। কেবল দুজনে কোথাও বেড়াতে যাওয়া, একটা রোম্যান্টিক ডেট, রোম্যান্টিক মেসেজ চালাচালি এসব যেন কোথায় হারিয়ে যায়। এমনকি যৌন জীবনটাও হয়ে পড়ে একদম একঘেয়ে। অনেকেই মনে করেন, বিয়ে তো হয়েই গেছে! এখন আর এসব করে কী লাভ? আরে, বিয়ের পরই তো এসবের বেশী প্রয়োজন। রোমান্টিকতার চর্চা করুন মানসিক ও শারীরিক ভাবে। প্রেম ও যৌনতার দুনিয়া, দুটোকেই ভরিয়ে রাখুন নতুনত্বে।

 

সম্পর্ককে সময় না দেওয়া:

খুব ব্যস্ত আপনারা দুজন? একসঙ্গে বসে এক কাপ চা খাবার, একটু নিরিবিলি কথা বলার অবসর মেলে না? সবসময়েই আশেপাশে থাকে কেউ না কেউ? মানসিক আকর্ষণ হারিয়ে যাবার এটাও একটা কারণ, ভাবনা শেয়ার করতে না পারা।

 

মিলনের সময় বাড়ানোর জন্য সবসময় একসাথে কাটানো:

একটি খাবার যদি আপনি প্রতিদিন খান, কেমন লাগবে আপনার? কিংবা এক সিনেমা যদি রোজ দেখেন? সারাক্ষণ পরস্পরের সঙ্গে থাকলেও তাই হয়। কখনো তাঁকে ছাড়াই বেড়াতে যান। বন্ধুদের সঙ্গে মিশুন, নিজেকেও সময় দিন। একটু দূরত্ব সম্পর্কের জন্য ভালো।

 

সবসময় আগোছালো থাকা:

আচ্ছা, প্রতিদিন আপনার ঘরে পরার পোশাকটি কি খেয়াল করে দেখেছেন কখনও? বেশির ভাগ মানুষই ঘরের মাঝে নিজেকে গুছিয়ে রাখেন না। ভুলে যান যে প্রিয় মানুষটি আপনাকে এই ঘরের মাঝেই দেখছে। তাই নিজেকে একটু গুছিয়ে রাখুন। একটা বিচ্ছিরি পোশাকের চাইতে একটু টিপটপ পোশাক পরুন, চুলটা আঁচড়ে রাখুন। দেখতে সুন্দর দেখালে আকর্ষণটা অটুট থাকবে চিরকাল।

 

খিটখিটে হয়ে যাওয়া:

একটা জিনিষ সব সময় মনে রাখবেন যে, তিনি আপনার স্ত্রী বা স্বামী হলেই তার সাথে খারাপ ব্যবহার করার অধিকার আপনি রাখেন না। বরং তার সঙ্গেই করতে হবে সবচেয়ে ভালো ব্যবহার। কী বা যাবে আসবে, বিয়েই তো করেছি। এই ভাবনা অবিলম্বে ত্যাগ করুন।

 

অনেক সময় দেখা যায় যে, অনেক পুরুষ স্বল্প সময়ের মধ্যেই বীর্যপাত করেন, যার ফলে নারী অতৃপ্ত থেকে যায়। তাই মিলনের সময় নারীর চাওয়া পাওয়াকে বেশি প্রাধান্য দেয়া উচিত। মিলনের সময় বাড়ানোর উপায়গুলো জেনে নিন-

 

১. নিজেকে অযথা উত্তেজিত হতে দিবেন না, ধৈর্য ধরুন।উত্তেজিত হলে দীর্ঘক্ষণ সঙ্গম করা সম্ভব নয়।
২. সঙ্গিনীর গায়ে হাত দেয়ার আগে তাকে ভালোবাসুন।
৩. চুম্বন দিয়ে শুরু করুন এবং তা দীর্ঘায়িত করুন। জেনে নিন নারীকে দ্রুত উত্তেজিত করার সহজ কিছু টিপস
৪. স্পর্শ কাতর অংশে প্রথমেই হাত দিবেন না।
৫. সঙ্গিনী পুরোপুরি উত্তেজিত হবার ১-২ মিনিট পর মিলনের প্রস্তুতি নিন।
৬. কখনোই জোর করে কিছু করবেন না অথবা জোর করে দীর্ঘায়িত করবেন না।
৭. সঙ্গীনির পছন্দ অনুযায়ী আসন পরিবর্তন করুন। কারণ আসন পরিবর্তনে মিলনের ইচ্ছা পুনরায় বেড়ে যায় যার কারণে দীর্ঘসময় মিলন করা সম্ভব।
৮. একজনের আমন্ত্রনের জন্য অন্যজন বসে থাকবেন না।
৯. কারো আগে পরে বীর্যপাত হলে কিংবা শক্ত না হলে সঙ্গীকে দোষারোপ করবেন না। মাঝে মাঝে এরকম হতেই পারে।

নারীকে দ্রুত তৃপ্তি দেওয়ার উপায় জেনে নিতে পারেন

আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটে কোন প্রকার অশ্লীল আর্টিকেল দেওয়া হয় না। মূলত যৌন জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করে তোলার জন্য জানা অজানা অনেক কিছু তুলে ধরা হয়।এরপরও আপনাদের কোর প্রকার অভিযোগ থাকলে Contact Us মেনুতে আপনার অভিযোগ জানাতে পারেন, আমরা আপনাদের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করব। ধণ্যবাদ আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটের সাথে থাকার জন্য।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Check Also

যৌবন ধরে রাখে যে সব ভেষজ উদ্ভিদ

চটজলদি রোগ নিরাময়ের জন্য আমরা অনেকেই অ্যালোপ্যাথির দ্বারস্থ হয়ে যাই। কষ্ট লাঘবে তখন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়টা …

One comment

  1. আমার বয়স ১৯ ওজন ৭৬
    আমার সমস্যা হল ২০০৫ সালে আমাকে যখন মুসলমানি করাইছিল তখন রক্ত বন্ধ হছ্ছিল না এরপর ঢাকা শিশু হাসপাতালে bleeding disorder অপারেশন হয় সেই থেকে শুরু হয়ে এখনো আমার লিঙ্গের আগার অংশে একটা ব্যাথা রয়ে গেছে ওখানে হাত লাগালে কাপড়ের সাথে ঘষা লাগলে ব্যাথা করে এখন আমি কি করতে পারি????