cool hit counter
Home / মহিলার স্বাস্থ্য / গর্ভধারণ এড়াতে পাঁচটি প্রাচীন অদ্ভূত নিয়ম!

গর্ভধারণ এড়াতে পাঁচটি প্রাচীন অদ্ভূত নিয়ম!

গর্ভধারণ

গর্ভধারণ এড়াতে পাঁচটি প্রাচীন অদ্ভূত নিয়ম!

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ বা অসময়ে গর্ভধারণ থেকে রেহাই পেতে সেই প্রচীনকাল থেকেই চেষ্টার ত্রুটি ছিল না মানুষের। নানা সময়, নানা জায়গায়, নানা ভাবে জন্মনিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেছে মানুষ। আর এমনই অদ্ভূত কিছু জন্মনিয়ন্ত্রণের নজির নিয়েই লেখা হল আজকে।

 

১. চাঁদের দোষ!
গ্রীনল্যান্ডে মনে করা হত একজন নারীর গর্ভবতী হওয়ার পেছনে সবচাইতে বড় অবদান হচ্ছে চাঁদের। আর তাই গর্ভধারণ এড়াতে চাঁদকে এড়িয়ে চলত নারীরা। তাকাতো না চাঁদের দিকে। এমনকি ঘুমোতে যাওয়ার আগে নিজেদের পেটে থুতু লাগিয়ে নিত তারা। যাতে করে ঘুমের ভেতরেও চাঁদ কোন ধরনের ঝামেলা করে ফেলতে না পারে।

 

২. পারদের মিশ্রণ
চীনে গর্ভধারণ এড়াতে অদ্বূত এক পদ্ধতি অবলম্বন করা হত। আর সেটা হচ্ছে তেল আর পারদের মিশ্রণ পান করা। খালি পেটে নারীদেরকে অসময়ে গর্ভধারণ থেকে বাঁচার জন্যে এই মিশ্রণটি খেতে হত। যদিও এখন আমরা জানি পারদ হাড় আর শরীরের জন্যে ঠিক কতটা ক্ষতিকর!

 

৩. জলপাই তেল
প্রাচীন গ্রীসে জলপাই তেল আর সিডারের তেল একসাথে মিশিয়ে ব্যবহার করত পুরুষেরা। কারণ, মনে করা হত এটি তাদের শুক্রাণুকে অনেক বেশি দূর্বল করে দেয়। ফলে সেটা নারীকে গর্ভধারণ থেকে বিরত রাখে। নিজের লেখাতেও এই মিশ্রণের কথা জানিয়েছেন এ্যারিষ্টটল।

 

৪. মধু
প্রাচীন মিশরে নারীর গর্ভধারন এড়াতে ব্যবহার করা হত মধু। তবে পুরুষ নয়, নারীরা ব্যবহার করত এটা। মনে করা হত মধুর প্রলেপ থাকলে পুরুষের শুক্রাণু নারীর ভেতরে প্রবেশ করতে পারবে না। ফলে জন্ম হবেনা কোন সন্তানেরও! বর্তমানে অবশ্য মধুর পরিবর্তে হানি ক্যাপ ব্যবহার করে অনেকে।

 

৫. নেকড়ের মূত্র
মধ্যযুগে বেশ ভালো রকমের অন্ধ বিশ্বাস ছিল সবার ভেতরে। বিশেষ করে ব্যাপারটা ঔষধ নিয়ে হলে তো কথাই নেই! চিকিৎসার নানারকম ধরন ছিল তখন। আর তারই একটা অংশ হিসেবে সেসময় নারীদের অযাচিত গর্ভধারণ থেকে দূরে থাকতে যৌনমিলন করবার আগেই ঘরের বাইরে গিয়ে কোন নেকড়ের মূত্র ত্যাগ করার স্থানের ওপর মূত্র ত্যাগ করতে হত। কিংবা ঘুরে আসতে হত কোন গর্ভবতী নেকড়ের মূত্রত্যাগের স্থান থেকে!

গর্ভধারণ করতে স্বামীর সাথে কখন মিলিত হবেন ?

৬. লাইসল
খু বেশি দূর যেতে হবেনা। ১৯০০ এর প্রথমদিকের কথা। তখনো জন্মনিয়ন্ত্রণ বৈধ হয়নি আমেরিকায়। লাইসল নামের একটি পণ্য বের করা হয় বাজারে। যেটা কিনা নারী দেহের ভেতরে গিয়ে খানিকটা অংশ জ্বালিয়ে দেবে আর “ নিরাপদ “ ভাবে নিশ্চিত করবে জন্মনিয়ন্ত্রণ! তবে যতটা নিরাপদই বলা হোক না কেন, এটা ব্যবহার করতে গিয়ে আহত তো হনই, নিহতও হন প্রায় ৫ জন!

 

যে কোন স্বাস্থ্য বিষয়ক তথ্যের জানান দিতে আপনার ডক্টর রয়েছে আপনাদের পাশে।জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করার জন্য নিয়মিত ভিজিট করুন আপনার ডক্টর health সাইটে।মনে না থাকলে আপনি সাইট আপনার ব্রাউজারে সেভ করে রাখুন।ধন্যবাদ

তথ্যসূত্র- 10 Strange Methods Of Birth Control From History

অন্যরা যা খুঁজছেন: জন্মনিয়ন্ত্রণের উপায়, জন্মনিয়ন্ত্রণের প্রাকৃতিক উপায়, জন্মনিয়ন্ত্রণের বড়ি, জন্মনিয়ন্ত্রণের উপাদান, জন্মনিয়ন্ত্রণ করার উপায়, জন্মনিয়ন্ত্রণ পিল, জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি, জন্মনিয়ন্ত্রণ ইনজেকশন, জন্মনিয়ন্ত্রণের পির, জন্মনিয়ন্ত্রণের ইনজেকশন, মহিলাদের জন্মনিয়ন্ত্রণ, মহিলাদের জন্মনিয়ন্ত্রণের উপায়, নারীদের জন্মনিয়ন্ত্রণের উপায়, নারীদের জন্মনিয়ন্ত্রণের পিল, নারীদের জন্মনিয়ন্ত্রণের ইনজেকশন, মেয়েদের জন্মনিয়ন্ত্রণের পিল, মেয়েদের জন্মনিয়ন্ত্রণের ইনজেকশন, গর্ভোনিরোধক বড়ি, গর্ভোনিরোধক পিল, গর্ভোনিরোধক ইনজেকশন, গর্ভোনিরোধক সিস্টেম, গর্ভোনিরোধক, pregnancy, pregnancy test, pregnancy pill, pregnancy injection, pregnancy medicine, pregnancy way, natural pregnancy, pregnancy policy, jonmo nirodhok oshud

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Check Also

লোম

মেয়েদের বগল ও পেটের নিচের লোম দূর করার সহজ কিছু উপায়

ওয়াক্সিং বা অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেলার কাজটি অনেকেই পার্লারে গিয়ে করেন। সৌন্দর্য চর্চায় এই কাজটি …