cool hit counter

দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating )সমস্যা (২য় পর্ব)

Quick ejaculating

 

দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) নামটা শুনলেই অনেকে চমকে জান কারণও আছে! অনেকে দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) রোগ হিসাবে ধরেই নিয়েছে। আসলেই কি এটি কোন সমস্যা?
দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) বলতে মিলনের সময় খুব দ্রুত দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) হওয়াকে বুঝায়। আর দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) হওয়ার পিছনে রয়েছে যৌন শিক্ষার অভাব। আমি আপনাদের সাথে চ্যালেঞ্জ করতে পারি আপনি যৌনতায় দুর্বল নন। দুর্বল আপনার মন এবং নিজেকে দুর্বল ভেবে আপনি যতটা দুর্বল নন তার চেয়েও দুর্বল হয়ে গেছেন।

দেখুন যৌন মিলন একটা কৌশল এর ব্যাপার যে সব পুরুষ এই কৌশলটা বুঝে তারা কখনো দুর্বল হয় না। আসুন ক্লিয়ার করে দেই। ” আপনি যখন আপনার স্ত্রীর সাথে মিলিত হবেন তখন আপনি নিজেকে শান্ত রখবেন। যেমন শুরুটা করবেন আলিঙ্গন দিয়েন অর্থাৎ আদর করা বা বাহ্যিক কাজ করবেন।

আপনি আদর করাতে সময় নেবেন। একটা বিষয় মাথায় রাখবেন একজন পুরুষের উত্তেজিত হতে সময় লাগে না কিন্তু একজন নারী উত্তেজিত হতে অনেক সময় নেয়। তাই আগে আপনার স্ত্রীকে কে উত্তেজিত করুন তার পর নিজে উত্তেজিত হউন।

দ্রুত বীর্যপাত ( Quick ejaculating ) বলে কোন কিছু আমি বিশ্বাস করিনা। কারণ আপনি যদি কৌশল অবলম্বন না করেন তবে আপনার স্থায়িত্ব বেশিক্ষণ হবে না। মিলনে সময় নিন এবং উপভোগ করুন। আর সাবধান কোন স্প্রে ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন কেন না স্প্রে করলে আপনার অনুভূতি থাকবে না এবং এর প্রভাব আপনার স্ত্রীর উপরও পড়বে।

তাই যদি কোন ওষুধ medicine বা অন্য কিছু ব্যবহার করতে চান তবে অবশ্যয় চিকিৎসকের পরামর্শে করুন। মনে রাখবেন আপনার একটি ভুল হয়ত আপনার এই আনন্দকে সারাজীবনের জন্য মাটি করে দিবে।

এখান থেকে দ্রুত বীর্যপাত সমস্যা ( প্রথম পর্ব ) দেখে আসুন
আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটে কোন প্রকার অশ্লীল আর্টিকেল দেওয়া হয় না। মূলত যৌন জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করে তোলার জন্য জানা অজানা অনেক কিছু তুলে ধরা হয়।এরপরও আপনাদের কোর প্রকার অভিযোগ থাকলে Contact Us মেনুতে আপনার অভিযোগ জানাতে পারেন, আমরা আপনাদের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করব। ধণ্যবাদ আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটের সাথে থাকার জন্য।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।