cool hit counter
Home / যৌন জীবন / পুরুষের লিঙ্গ গঠন বৃত্তান্ত ও কর্মকান্ড (penis ফাংশন)

পুরুষের লিঙ্গ গঠন বৃত্তান্ত ও কর্মকান্ড (penis ফাংশন)

লিঙ্গ
পুরুষের লিঙ্গ গঠন বৃত্তান্ত ও কর্মকান্ড (penis ফাংশন)

লিঙ্গ পুরুষের যৌনতার প্রধান অঙ্গ। এই অঙ্গের সাহায্যেই পুরুষরা অবর্ণনীয় তীব্র যৌনসুখ লাভ করে থাকেন। এটি নারীদের যোনিতে প্রবেশ করে প্রচুর সেক্স প্লেজার সৃষ্টি করে। সেই সাথে আরেকটি নতুন জীবন তৈরির উপাদান ‘বীর্য’ ছড়িয়ে দেয়।
লিঙ্গ অন্ডকোষের সামনে ঝুলন্ত অবস্থায় থাকে। এটি দেখতে প্রায় একটা বুড়ো আঙ্গুলের মত। এই penis হচ্ছে পুরুষের প্রস্রাব (ইউরিনেশন) করার এবং নারী সহবাস করার একমাত্র এবং অভিন্ন চমৎকার যন্ত্র। লিঙ্গের যে অংশটি দেহের সাথে অর্থাৎ বস্তিদেশে বা পেলভিসে যুক্ত থাকে তাকে বলে লিঙ্গ মূল বা গোড়া। এর পর থেকে লিঙ্গ গ্রীবার কাছে গোড়া খাঁজের মত অংশ পর্যন্তকে বলে লিঙ্গ দেহ। বাকি অংশটুকু অর্থাৎ সেই দেহের ডগায় বা লিঙ্গের অগ্রভাগে টুপির মত দেখতে যে লালচে বর্ণের কোমল মাংসপিন্ডের অংশটি দেখা যায় তাকে বলে লিঙ্গমণি বা লিঙ্গমন্ডু বা গ্ল্যান্স। এই লিঙ্গ মুন্ডের সামনের দিকটা ঈষৎ সরু হয়ে এসেছে এবং এর মুখের কাছেই থাকে মূত্রনালীর মুখ। পুরুষাঙ্গের এই অগ্রভাগ বা অংশটি খুবই ‘সপর্শকাতর’ তথা অত্যন্ত যৌন অনুভূতিশীল অংশ।
আমাদের পুরুষাঙ্গটি ‘স্পঞ্জের মত’ এক প্রকার নরম সংকোচনশীল ও সম্প্রসারণশীল পেশিতন্তু বা উত্থানশীল তন্ত বা ইরেক্টাল টিস্যু দিয়ে গঠিত। এর মধ্যে অসংখ্য রক্তবাহী নালী ও নার্ভের শাখা-প্রশাখা ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। স্বাভাবিক অবস্থায় লিঙ্গ বা পুরুষাঙ্গটি নরম ও ছোট থাকে কিন্তু সেক্স উত্তেজনার সময় এইসব রক্তনালীতে প্রচুর রক্ত এসে পূর্ণ হয়ে যায় ফলে এটি আকারে বৃদ্ধি পেয়ে লম্বা, মোটা-তাজা ও দৃঢ় হয় আর একেই বলে ইরেকশন অফ পেনিস বা লিঙ্গের উত্থান। কারো কারো লিঙ্গ উত্তেজিত হলে শক্ত হয়ে ডানে বা বামে বেঁকে যায়- এটা স্বাভাবিক এটা কোনো রোগ নয়। একজন পূর্ণ বয়স্ক লোকের লিঙ্গের আকার স্বাভাবিক ও সুপ্ত অবস্থায় ৩-৪ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা থাকে এবং এর পরিধি বা ঘের প্রায় ২-৩ ইঞ্চির মত চওড়া থাকে। কিন্তু সেক্স উত্তেজনার সময় এবং যৌনমিলনের মজাদার সময় লিঙ্গের উত্থিত উত্তেজিত হয় এবং শক্ত ও মোটা হয় এবং আকারে বৃদ্ধি পেয়ে লম্বা প্রায় ৫-৭ ইঞ্চি পর্যন্ত হয় এবং এর পরিধিটিও বৃদ্ধি পায় অর্থাৎ অনেকটা মোটা হয় প্রায় ৩-৫ ইঞ্চির মত। তবে পুরুষদের লিঙ্গের স্বাভাবিক আকার সবার বেলায় সমান নয়। ক্ষেত্র বিশেষে এটি কম বেশি ছোট বড়, মোটা, চিকন হয়। তবে সুখের কথা লিঙ্গের এই ছোট বড় মাপের জন্য যৌনক্ষমতা বা ভিরিলিটি যৌন সুখ, যৌন আরাম এবং সন্তান উৎপাদনের ক্ষমতা বা ফার্টিলিটির সাথে তেমন কোনো আহামরি সম্পর্ক বা যোগসূত্র নেই। অনেকের মাঝে এরকম ভ্রান্ত ধারণা আছে যে, লিঙ্গের আকৃতির কিছুটা ছোট হলে তারা হয়ত সেক্সুয়াল লাইফে সেটিসফাইড হতে পারবেন না। তাই অনেক সময় এরকম ভাবনার বশবর্তী হয়ে তারা নানা রকম মানসিক চাপ, মানসিক অশান্তি, ভয় ও অহেতুক দুশ্চিন্তায় ভুগতে থাকেন। কিন্তু এটা ঠিক নয়। তবে এই মেন্টাল কমপ্লেক্সের সাথে যদি শারীরিক কোনো অক্ষমতা বিদ্যমান থাকে তবে অবশ্যই চিকিৎসা সহায়তা গ্রহণ করার প্রশ্ন আসে।
পাঠকবৃন্দ, আপনারা নিশ্চয়ই জেনেছেন যে, যৌনতা বা সেক্স সম্পর্কে জানতে হলে প্রথমেই মানবদেহের যৌন অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলোর সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান বা সাধারণ এনাটমি জানা অত্যন্ত প্রয়োজন। আর এসব অঙ্গের এনাটমি জেনে রাখলে যৌন অনুভূতি ও সেক্স সম্পর্কে সুন্দর ও সুচারুভাবে বুঝতে পারা সম্ভব হবে। সম্ভব হবে নিজেকে জানার এবং সেই সাথে প্রিয়জনকেও। আর তখনই যৌনতা বা সেক্স হয়ে উঠবে আরো সুখের আরো মধুর-তৃপ্তিকর। লিঙ্গ বিষয়ক আরো পোষ্ট নিয়ে হাজির হবে আপনার ডক্টর।তাই নিয়মিত যৌন বিষয়ক টিপস পেতে আপনার ডক্টরের বাংলা হেল্থ সাইটরে সাথে থাকুন
ধন্যবাদ সবাইকে।

পুরুষাঙ্গ বিষয়ক কিছু অজানা তথ্য

আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটে কোন প্রকার অশ্লীল আর্টিকেল দেওয়া হয় না। মূলত যৌন জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করে তোলার জন্য জানা অজানা অনেক কিছু তুলে ধরা হয়।এরপরও আপনাদের কোর প্রকার অভিযোগ থাকলে Contact Us মেনুতে আপনার অভিযোগ জানাতে পারেন, আমরা আপনাদের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করব। ধণ্যবাদ আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটের সাথে থাকার জন্য।

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।

Check Also

যৌবন ধরে রাখে যে সব ভেষজ উদ্ভিদ

চটজলদি রোগ নিরাময়ের জন্য আমরা অনেকেই অ্যালোপ্যাথির দ্বারস্থ হয়ে যাই। কষ্ট লাঘবে তখন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়টা …