cool hit counter

সহবাসকালে পুরুষের আত্মবিশ্বাস দৃঢ় করার কিছু পদ্ধতি

সহবাসকালে পুরুষের আত্মবিশ্বাস দৃঢ় করার কিছু পদ্ধতি
সহবাসকালে পুরুষের আত্মবিশ্বাস দৃঢ় করার কিছু পদ্ধতি

এমন অনেক পুরুষ আছে মুখে অনেক কিছু বলে কিন্তু কাজে পারেন না। আবার অনেকে আছেন যতটা বলে তার থেকে বেশি কিছু করার ক্ষমতা রাখেন।এমন অনেক ক্ষেত্রে ঘটে থাকে যে, স্ত্রাীকে কাছে পেয়ে পুরুষ তার আত্মবিম্বাস হারিয়ে ফেলে।আগে যে নারীর সাথে কথা বললেই উত্তেজনা বোধ করত, এখন সেই নারীকে কাছে পেয়েও কঠিন হতাশায় ভোগে এমন পুরুষ অনেকে আছেন।এর কারণ কি?কারণ সেই পুরুষের মনে ভয় থাকে যে, সে তার স্ত্রীকে আসলেই সুখী করতে পারবে কিনা।এই পোষ্টটি পড়ার সময় অনেকেই আছেন যারার এমন সমস্যায় পড়েছেন এবং সব কথা ও মিলে যাচ্ছে। ভয়ের কিছু নাই। আজ আপনাদের এই ধরনের সমস্যার সাধান দিতে চলেছি। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

আপনার সঙ্গী কিন্তু আপনার কাছ থেকে অনেক কিছু আশা করে।সে মনে মনে আপনাকে নিয়ে অনেক কল্পনা ঝল্পনা ইতিমধ্যেই শেষ করে ফেলেছে।সেই চিন্তা ভাবনাকে বাস্তেব রূপদান যেন সঠিকভাবে হয় তা না হলে তার মনে সংকোচের জন্ম নেয়।তাই প্রথম মিলনের  ( sex ) ক্ষেত্রে নিজেকে ভালেভাবে প্রস্তুত করতে হবে। সব চেয়ে বড় জোর মনের জোর। মনে থেকে নিজেকে প্রস্তুত করুন।

শুধু নিজের তৃপ্তি পেলেই হবে না।আপনার সঙ্গীর বিষয়টা আগে দেখতে হবে।ফোরপ্লে করলেই শুধ হবে না।এতে সে আপনাকে সেলফিস মনে করবে। স্ত্রীকে ভালোবসেন এটি তাকে বুঝান।

দ্বিধায়, হতাশায় ভুগবেন না।বিদেশি পর্ণ মুভিতে যা দেখেন সেইটা আপনার চিন্তার বিষয় না।আপনি একজন বাংলাদেশি পুরুষ এবং অন্য পাঁচটা পুরুষের ভিতর যা আছে আপনার ভিতর ও তাই আছে।তাই হাতাশায় ভোগার কিছুই নাই।

নিজের সৌন্দর্যের প্রতি একটু নজর দিন।একথা কখনো ভাবা ঠিক না যে, নারী খোঁচা খোঁচা দাড়ি পছন্দ করে।আপনার সহবাসকালে নারী যদি আপনার দাঁড়ির কোচায় ব্যাথা পায় তবে সেটা আসলে ভালো প্রভাব ফেলে না।আর রাতে অবশ্যই দাঁত ব্রাশ করবেন্ মুখে যেন দুর্গন্ধ না থাকে।শররে বডি স্প্রে ও ইউজ করতে পারেন।

সহবাসকালে একমনে আপনার সঙ্গীকে আদর করুন।অন্য চিন্তা ভাবনা কখনো মনে আনবেন না। অন্য কোন চিন্তা ভাবনা রলে সেটা অপনার মুখেই ফুটে উঠবে।যাতে করে আপনার সঙ্গীনী বুঝতে পারবে যে আপনি অন্যমনুষ্ক।কারণ মানুষের মুখ আয়নার মত।

এমন কিছু করবেন না যাতে আপনার স্ত্রী অখুশী হয়।আপনি যদি সহবাসে অভ্যস্ত না হন, তবে আপনার স্ত্রীর সাহায্য নিন। সে এত অখুশী না বরং খুশী হয়ে  অবশ্যই আপনাকে সাহায্য করবেন।

চরম মুহূর্তে আপনার স্ত্রী যে হছাৎ থেমে যেতে পারে এমন চিন্তা ভুলেও মাথায় আনবেন না।তাহলে কিন্তু আপনার মন মানসিকাতা অন্য রকম থাকবে।

আর নিজেদেরে ভিতর বুঝাবুঝিটাই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার স্ত্রঅ ও একজন মানুষ তাই তাকে খুশি করা আপনার পক্ষে কোন ব্যাপার না।একজন কিছুটা পিছিয়ে থাকলে অন্যজন তাকে সাহয্য করবে এই নীতিতে চলতে হবে।

আপনার ডক্টর সাইটটির একমাত্র উদ্দেশ্য আপনাদের সু্স্থ্য ও সুন্দর জীবনের।আপনাদের জীবনকে সুস্থ্য, সুন্দর ও সুখময় করার জন্য নিয়মিত ভিজিট করুন আপনার ডক্টর সাইটে।মনে না থাকলে আপনি সাইট আপনার ব্রাউজারে সেভ করে রাখুন। 
আর একটা অনরোধ আমাদের পোষ্ট আপনাদের সামান্যতম উপকারে আসলে পোষ্টটি শেয়ার করবেন।
আপনার স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন সমস্যার জন্য এখানে কমেন্ট করে জানান।তাছাড়া অপনারা কোন ধরণের পোষ্ট চান তাও জানাতে ভুলবেন না।ধন্যবাদ

ফেসবুক কমেন্ট

comments

About সাদিয়া প্রভা

সাদিয়া প্রভা , ইন্ডিয়ার Apex Group of Institutions এর BBA এর ছাত্রী ছিলাম। বর্তমানে বাংলাদেশে স্বাস্থ্য বিয়সক তথ্য নিয়ে লেখালেখি করি।